মরুর শহরে ‘স্বর্ণের হোটেল’


383 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
মরুর শহরে ‘স্বর্ণের হোটেল’
নভেম্বর ২০, ২০১৮ প্রবাস ভাবনা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::

নজরকাড়া স্থাপত্যের জন্য সুনাম রয়েছে মরু শহর দুবাইয়ের। আকাশচুম্বি ভবনের দেখা মেলে এই শহরে। এছাড়া সুদৃশ্য স্থাপনার জন্য পর্যটকদের মনে ঠাঁই করে নিয়েছে শহরটি।

অনেকেই জানেন না, সংযুক্ত আরব আমিরাতের এই শহরটিতে নির্মিত হয়েছে একটি ‘স্বর্ণের হোটেল’!; নাম ‘আমিরাত প্যালেস’।

নাম শুনে প্রথমে এটিকে অনেকে প্রাসাদ মনে করেন। কিন্তু আসলে এটি একটি পাঁচ তারকা হোটেল।

২০০৫ সালে বিশ্বের সবচেয়ে দামি এই হোটেলটি নির্মিত হয়। সিএনএন জানায়, হোটেলের লবি, রুম ও হলওয়েতে রয়েছে এক হাজার ঝারবাতি। এর আলো গিয়ে পড়ে স্বর্ণের সিলিংয়ে।

ভারতের কেরালা রাজ্যের প্রকৌশলী মনোজ কুরিয়াকোসে আমিরাত প্যালেসের এসব সিলিং রক্ষণাবেক্ষণ করেন। তার কাজ হলো, দুই হাজার বর্গমিটারের সিলিংটি ২২ ক্যারটের স্বণ পাত দিয়ে সাজিয়ে রাখা।

প্রতি বছর এই স্বর্ণের পাত বদলাতে হোটেলটির খরচ হয় প্রায় ১.৩ মিলিয়ন ডলার।

মনোজ জানান, সিলিংয়ে যা দেখা যাচ্ছে, এগুলো সবই স্বর্ণের পাতের। পাতগুলো খাঁটি স্বর্ণের। ইতালি থেকে এগুলো আনা হয়েছে। পাতগুলো পিটিয়ে তা পাতলা করে তার পিঠে বিশেষ ধরনের আঠা লাগিয়ে সিলিংয়ের গায়ে সাঁটানো হয়।

হোটেলে আসা অতিথিরা স্বর্ণের এই কারুকাজ দেখে মুগ্ধ হয়ে যান। তিনি বলেন, ‘অতিথিরা সিলিং দেখার পর অনেকে থমকে যান।’