মানবাধিকার পুরস্কার পেলেন সাতক্ষীরার ডি.বি. ইউনাইটেড হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক


761 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
মানবাধিকার পুরস্কার পেলেন সাতক্ষীরার ডি.বি. ইউনাইটেড হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক
নভেম্বর ৩, ২০১৮ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

মোঃ ফয়জুল হক ::
শিক্ষাক্ষেত্রে বিশেষ অবদান রাখায় মানবাধিকা পুরস্কার পেলেন সাতক্ষীরা সদর উপজেলার ডি.বি. ইউনাইটেড হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক মোঃ মমিনুর রহমান।
বৃহস্পতিবার (১লা নভেম্বর) বাংলাদেশ শিশু কল্যাণ পরিষদ মিলনায়তনে বিশ্ব মান দিবস – ২০১৮ উপলক্ষে এশিয়া ছিন্নমূল মানবাধিকার বাস্তবায়ন ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে “মানবাধিকার উন্নয়নে নির্বাচনকালীন সরকারের ভূমিকা” শীর্ষক আলোচনা সভায় সাতক্ষীরা সদরের শিক্ষা ক্ষেত্রে বিভিন্ন অবদান রাখায় ডি.বি. ইউনাইটেড হাইস্কুলে প্রধান শিক্ষক মোঃ মমিনুর রহমানকে এই সম্মাননা প্রদান করেন বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের কেন্দ্রীয় উপদেষ্টা মন্ডলীর সদস্য মোঃ মোজাফ্ফর হোসেন পল্টু। এসময় তিনি অসুস্থ থাকায় তার পক্ষে এই মানবাধিকার পুরস্কার হিসেবে ক্রেস্ট ও সনদ গ্রহন করেন ডি.বি. ইউনাইটেড হাইস্কুলের সহকারী শিক্ষক রমেশ চন্দ্র সরদার।
২০০৯ সালের ৩১ শে ডিসেম্বর মোঃ মমিনুর রহমান ডি.বি. ইউনাইটেড হাইস্কুলের প্রধান শিক্ষক হিসাবে যোগদানের পর হতে বিদ্যালয়টির নিয়ম শৃঙ্খলা, পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা, লেখাপড়ার মান-উন্নয়ন, খেলাধুলা ও সাংস্কৃতি চর্চা, বৃহৎ পরিসরে জাতীয় দিবস সমূহ পালন, সর্বপরি প্রধান শিক্ষকের ঐকান্তিক পরিশ্রমের ফলে ছাত্র-ছাত্রীর সংখ্যা ২৫০ থেকে ৭০০ তে উন্নিত করে সদর উপজেলার একটি অন্যতম শিক্ষা প্রতিষ্ঠান হিসাবে অত্র অঞ্চলে মানুষ গড়ার কারিগর হিসাবে পরিচিতি লাভ করেছে। তারই ফলশ্রুতিতে বিদ্যালয়টি তৎকালীন খুলনা বিভাগীয় কমিশনার ও বর্তমান নৌ-পরিবহন মন্ত্রানালয়ের সচিব আব্দুস সামাদ এবং তৎকালীন সাতক্ষীরা সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও বর্তমান সাতক্ষীরা স্থানীয় সরকার পল্লী উন্নয়ন বিভাগের উপ-পরিচালক শাহ্ আব্দুস সাদী এর ব্যবস্থাপনায় ২০১৬ সালে ১ উপজেলা ১ আদর্শ স্কুল ইনোভেশন শীর্ষক প্রকল্পের আওতায় সাতক্ষীরা সদর উপজেলায় ডি.বি. ইউনাইটেড হাইস্কুলকে অর্ন্তভূক্ত করা হয়।


এছাড়াও তিনি নিজেস্ব উদ্যোগে “মা” ফাউন্ডেশন নামক একটি সেবামুলক প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে প্রতি বছর ৬ষ্ঠ থেকে ১০ম শ্রেণীর শিক্ষার্থীদের লেখা-পড়ায় অধিক উৎসাহ প্রদান করার জন্য বিভিন্ন পরিক্ষায় ১ম, ২য় ও ৩য় স্থান অধিকারীকে পুরস্কার প্রদান করেন। এবছর তিনি ৭টি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ৫টি মাদ্রাসার পি,এস,সি পরিক্ষায় অংশগ্রহনকারী পরীক্ষার্থীদের হাতে কলম, রংপেন ও স্কেল প্রদান করেন যাতে করে তারা আনান্দের সাথে পরীক্ষায় অংশগ্রহন করতে পারে।
##