মারেলগঞ্জে ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ : আটক ২


426 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
মারেলগঞ্জে ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচনকে কেন্দ্র করে সংঘর্ষ  : আটক ২
মে ৩১, ২০১৬ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

এস.এম. সাইফুল ইসলাম কবির, বাগেরহাট :
বাগেরহাটের মোড়েলগঞ্জে সোনাখালী মহব্বত আলী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ে ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচনকে কেন্দ্র করে আওয়ামী লীগ নেতার ছোড়া বন্দুকের গুলিতে আ. লীগ ও বিএনপির ৬ নেতাকর্মী আহত হয়েছেন। মঙ্গলবার বেলা ১০টার দিকে পুটিখালী ইউনিয়নের সোনাখালী গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।
গুলিবিদ্ধ তোফাজ্জেল শেখ(৬৫) ও ইউনিয়ন বিএনপির সহসভাপতি খলিল শিকদারের ৩ ছেলে সিহাব(৩২), রুবেল(৩০) ও আবু হোসাইন বাপ্পি(২৪)কে খুলনা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। অপর গুলিবিদ্ধ সোনাখালী বাজার কমিটির সভাপতি আ. লীগ কর্মী আব্দুস সোবাহান শিকদার(৫৮) ও আ. লীগ কর্মী সত্তার শিকদার(৬৬)কে মোড়েলগঞ্জ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।
মোড়েলগঞ্জ সার্কেলের সহকারী পুলিশ সুপার মো. এনামুল হক মিঠু, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মুহাম্মদ ওবায়দুর রহমান ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন।
থানার ওসি মো. রাশেদুল আলম জানান, ঘটনাস্থল থেকে গুলিবর্ষনকারী ইউনিয়ন আ. লীগের সাবেক সভাপতি ও সাবেক ইউপি চেয়ারম্যান মাহবুব শিকদার ও তার ছোট ভাই এ্যাড. মিজানুর রহমানকে গ্রেফতার করা হয়েছে। একই সাথে মাহবুব শিকদারের ব্যাবহৃত লাইসেন্সী দোনলা বন্দুক, ৩১ রাউন্ড তাজা কার্তুজ ও ব্যবহৃত ২রাউন্ড কার্তুজের খোসাও জব্দ করেছে পুলিশ। এ বিষয়ে মামলার প্রস্তুতি চলছে।
এলাকাবাসি জানান, সোনাখালী মহব্বত আলী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটির নির্বাচন নিয়ে দুই ভাগে বিভক্ত হয়ে যান একই বংশের চাচা ভাতিজা মাহবুব শিকদার ও খলিল শিকদার। মঙ্গলবার সকালে ভোট গ্রহন শুরু হওয়ার পরে মাহবুব শিকদার তার বাহিনী ও আগ্নেয়াস্ত্র নিয়ে বিদ্যালয়ের কাছাকাছি গেলে খলিল শিকদারের লোকজন তাকে ধাওয়া করে। এ সময় নিজের বন্দুক দিয়ে ২রাউন্ড গুলি ছোড়েন। এতে খলিল শিকদারের ৩ ছেলেসহ ৬জন গুলিবিদ্ধ হয়।
এ বিষয়ে মাহবুব শিকদার বলেন, ‘ পরিস্থিতি শান্ত করতে প্রথমে আমি ফাকা গুলি ছুড়ি, পরে আত্মরক্ষার্থে আরো একটি গুলি ছুড়ি। ওই গুলিতে কয়েকজন আহত হলে সকলে ছত্রভঙ্গ হয়ে যায়’।
ভোট গ্রহনকারী কর্মকর্তা (উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষ অফিসার) জানান, ঘটনাটি বিদ্যালয় থেকে কিছুটা দুরে হওয়ায় ভোট গ্রহন কার্যক্রম যথারীতি চলে, তবে ভোটার উপস্থিতি অর্ধেকেরও কম হয়েছে। ##