মালয়েশিয়ায় প্রতারণার ফাঁদে প্রফেশনাল ভিসা !


296 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
মালয়েশিয়ায় প্রতারণার ফাঁদে প্রফেশনাল ভিসা !
এপ্রিল ১, ২০১৮ প্রবাস ভাবনা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

শেখ সেকেন্দার আলী,মালয়েশিয়া ::

স্বপ্নের দেশ মালয়েশিয়ায় ভাগ্য বদলানোর আশায় লক্ষ লক্ষ টাকা ব্যয় করে মালয়েশিয়া এসে অবৈধ হয়ে পড়ছে বাংলাদেশীরা, যাদের নেই কোন কাজের অভিজ্ঞতা ঠিকমত কথা বলতে পারেনা তাদেরকেই প্রফেশনাল ভিসা এনে ক্লিনারের চাকরি দিচ্ছে অসাধু ব্যবসায়ীরা, যার কারণে প্রকৃতপক্ষে সত্যি কারের প্রফেশনাল ভিসায় এসে প্রফেসর ,ইঞ্জিনিয়ার, ডাক্তার তাদের পড়তে হচ্ছে বিড়ম্বনায়, আর সেই সাথে বাড়ছে অবৈধ বাংলাদেশিদের সংখ্যা‌. চরম অপমান আর অবহেলায় প্রফেশনাল ভিসায় এসে মার্কেট, আবাসিক হোটেল ও ফুটপাতে ক্লিনারের কাজ করতে হচ্ছে, বর্তমান সময়ে মালয়েশিয়া সরকার আউটসোর্সিং ভিসা বন্ধ করে জি টু জি ভিসা চালু করে বাংলাদেশীদের জন্য, যার প্রধান শর্ত ছিল ব্যয়বহুল খরচ ও প্রতারণার হাত থেকে রক্ষা পাওয়া কিন্তু বিধিবাম অসাধু মালেশিয়া ও বাংলাদেশী এজেন্ট এর হাত থেকে রেহাই পাচ্ছে না বিদেশে যেতে ইচ্ছুক বাংলাদেশি কর্মীরা, প্রফেশনাল ভিসা নারায়ণগঞ্জের শফিকুল ইসলাম জানান প্রফেশনাল ভিসা এনে আমাকে শপিংমলে ক্লিনারের কাজ দেয়, যখন আমার ভিসা এক বছর শেষপর্যায়ে মালেশিয়ার এজেন্ট আমাকে বলে মালায় রিংগীত ৭০০০ হাজার যার পরিমাণ বাংলাদেশি টাকা
১৫৪,০০০০ এক লাখ চুয়ান্ন হাজার টাকা দিলে আমার ভিসা আরো এক বছর বাড়ানো যাবে, কিন্তু টাকা নিয়েও ভিসা করে দেয় না অনেক বাংলাদেশি অবৈধ হয়ে গেছে ওই কোম্পানী থেকে, আমি ভেবেছিলাম চলে যাব কিন্তু সম্বল বিক্রি করে এসেছি তাই আর যাওয়া হলো না বাংলা দেশে এখন অবৈধভাবে কাজ করছি, এভাবেই অবৈধ হয়ে মালয়েশিয়া পুলিশের ভয়ে জঙ্গলে রাত কাটাচ্ছে হাজারো বাংলাদেশী, আবার সারাদিন কাজ করেও পারিশ্রমিক না নিয়েই চলে যেতে হচ্ছে, মালিকের কাছে কাজের টাকা চাইলেই পুলিশ ইমিগ্রেশনের ভয় দেখায় যে কারণে অবৈধ হয়ে পড়া বাংলাদেশিরা মানবতার জীবন যাপন করছে,