মিথ্যা চাদাবাজি মামলা থেকে অব্যাহতি পেয়েছেন পাইকগাছার বহুলালোচিত আজিজ পরিবার


461 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
মিথ্যা চাদাবাজি মামলা থেকে অব্যাহতি পেয়েছেন পাইকগাছার বহুলালোচিত আজিজ পরিবার
এপ্রিল ৬, ২০১৭ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

এস,এম, আলাউদ্দিন সোহাগ ::
অবশেষে দীর্ঘ ১৫ মাস পর পাইকগাছার বহুলালোচিত আজিজ পরিবার সরকার দলীয় স্থানীয় এমপি এ্যাডঃ শেখ মোঃ নূরুল হকের নির্দেশে দায়ের করা মিথ্যা চাঁদাবাজি ও ভাংচুরের মামলা থেকে অব্যাহতি পেয়েছেন। গত বছরের ৬ জানুয়ারী এমপির লোকেরা আজিজের বাড়িটির দখল নিতে ব্যাপক ভাংচুর চালায়। ঘটনায় উল্টো এমপি’র ভাইপো শেখ আলাউদ্দিন বাদী হয়ে আজিজসহ তার পরিবারের ১৬ জন সদস্যের নামে পাইকগাছা থানায় একটি মিথ্যা মামলা করে। এর পর ১৪ জানুয়ারী তার লোকেরা আজিজকে ধরে পুলিশে দেয়। ঐ মামলায় আজিজ ২৫ দিন জেল খাটেন। মামলায় গ্রেফতার এড়াতে আসামীদের অন্যান্যরা পালিয়ে বেড়াতে থাকেন। এ সুযোগে এমপি নিজে উপস্থিত থেকে তার বাহিনীদের দিয়ে বাড়িটির চার পাশে উঁচু ইটের প্রাচীর নির্মাণ করেন। এতে প্রায় ১৪ মাস পরিবারটি কার্যত গৃহবন্দি হয়ে পড়ে। এনিয়ে বিভিন্ন জাতীয় ও আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমে এমপি’র সমালোচনা করে ব্যাপক খবর প্রকাশিত হয়। এছাড়া আজিজ এমপির রোষানল থেকে পরিত্রাণ পেতে মাননীয় প্রধানমন্ত্রী,স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী ও আ’লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের, মানবধিকার সংগঠন সহ বিভিন্ন দফতরে অভিযোগ করলে দফায় দফায় তদন্তে আসেন ঐসকল দফতরের কর্মকর্তারা। সত্যতাও পান তারা। তবে এক অজ্ঞাত কারণে  তাদের সে তদন্ত প্রতিবেদন পর্যায়ক্রমে ধামাচাপা পড়তে থাকে। তবে মামলায় থানা পুলিশের তদন্ত কর্মকর্তা এসআই জহুরুল হক সত্য ঘটনা উল্লেখ করে আদালতে  তদন্ত প্রতিবেদন দিলে গতকাল পাইকগাছা সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত মামলাটি থেকে আজিজ সহ ১৬ জনকে বেকসুর খালাস প্রদান করেন বলে জানিয়েছেন আজিজের ছেলে আছাদ।
এর আগে সরকারের উচ্চ পর্যায়ের নেতৃবৃন্দের নির্দেশে গত ২৬ ফেব্রুয়ারী পাইকগাছা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ভ্রাম্যমান আদালতের মাধ্যমে বাড়ির উঁচু প্রচীরটি বুল ড্রোজার দিয়ে ভেঙ্গে গুড়িয়ে দেন। এতে প্রায় ১৪ মাস পর মুক্তি মেলে আজিজ পরিবারের।