মিয়ানমারে সু চির কাছে ‘হার স্বীকার’ ক্ষমতাসীনদের


297 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
মিয়ানমারে সু চির কাছে ‘হার স্বীকার’ ক্ষমতাসীনদের
নভেম্বর ৯, ২০১৫ প্রবাস ভাবনা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

ভয়েস অব সাতক্ষীরা ডেস্ক :
সিকি শতাব্দি পর মিয়ানমারে সব দলের অংশগ্রহণে অনুষ্ঠিত প্রথম সাধারণ নির্বাচনে গণতন্ত্রপন্থি অং সান সু চির দলের কাছে পরাজয় মেনে নিয়েছে সেনাসমর্থিত ক্ষমতাসীনরা।

রোববার অনুষ্ঠিত শান্তিপূর্ণ এ নির্বাচনের ফল সোমবার দুপুর পর্যন্ত প্রকাশ করেনি নির্বাচন কমিশন। তবে প্রাথমিক তথ্যের ভিত্তিতে সু চি’র দল ন্যাশনাল লিগ ফর ডেমোক্রেসির (এনএলডি) দাবি, মধ্যাঞ্চলের জনবহুল এলাকায় পড়া ভোটের ৮০ শতাংশই তারা পেয়েছে।

নির্বাচনে সু চির দল বিপুল বিজয় পাবে বলে ধারণা বিশ্লেষকদেরও।

২০১১ সাল থেকে সেনা ছত্রছায়ায় ক্ষমতায় থাকা ইউনিয়ন সলিডারিটি অ্যান্ড ডেমোক্রেটিক পার্টির (ইউএসডিপি) ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তাই উ সোমবার রয়টার্সকে বলেন, “আমরা হেরে গেছি।”

প্রাথমিক তথ্যের ভিত্তিতে এনএলডির মুখপাত্র উইন হতেইন রয়টার্সকে বলেন, মধ্যাঞ্চলের বাইরে মন ও কেইন রাজ্যে পড়া ভোটের ৬৫ শতাংশ পেয়েছে সু চির দল। তবে বাকি পাঁচ রাজ্যের ফল এখনও জানা যায়নি।

৫০ বছরের বেশি সময় ধরে সামরিক কর্তৃত্বের অধীনে থাকা মিয়ানমারের তিন কোটি ভোটারের মধ্যে ৮০ শতাংশ রোববার তাদের রাজনৈতিক ভবিষ্যত নির্ধারণে ভোট দিয়েছেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। দেশি-বিদেশি নির্বাচন পর্যবেক্ষকরা বলছেন, অধিকাংশ ক্ষেত্রে ভোটগ্রহণ অবাধ ও সুষ্ঠু হয়েছে।

রয়টার্স জানিয়েছে, মিয়ানমারের ৫০ বছরের বেশি সময় পর প্রথমবারের মতো গণতান্ত্রিক সরকার গঠনে সু চির দল এনএলডির সংসদের দুই-তৃতীয়াংশ আসন দরকার। নির্বাচনে দলটি এমন জয় পাবে কিনা তা এখনও নিশ্চিত নয়। তবে জনবহুল এলাকার প্রাপ্ত ফল তাদের বিপুল বিজয়েরই ইঙ্গিত দিচ্ছে।