মুন্সিগঞ্জের প্রাক্তন চেয়ারম্যান অসীমের উপর হামলা মামলা : তিন আসামীর কারাদন্ড


411 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
মুন্সিগঞ্জের প্রাক্তন চেয়ারম্যান অসীমের উপর হামলা মামলা : তিন আসামীর কারাদন্ড
ফেব্রুয়ারি ৯, ২০১৬ ফটো গ্যালারি শ্যামনগর
Print Friendly, PDF & Email

 
নাজমুল হক:
শ্যামনগরের প্রাক্তন ইউপি চেয়ারম্যান অসীম কুমার মৃধাকে কুপিয়ে জখম করার মামলায় ৩ আসামীর কারাদন্ড প্রদান করা হয়েছে। মঙ্গলবার বিকেলে অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালত-২ এর বিচারক শরীফ এ এম রেজা জাকির এ রায় ঘোষনা করেন। রায়ে শ্যামনগর উপজেলার হরিনগর গ্রামের সদর শেখের পুত্র আব্দুস সাত্তারকে ১৫ বছর, নেছার আলী মোড়লের পুত্র আবু জাকের মোড়ল ও ওয়াহেদ বক্স গাজীর পুত্র আব্দুল খালেককে ৫ বছর সশ্রম কারাদন্ড প্রদান করা হয়েছে। মামলার ১৩ বছর পরে রায় পাওয়ায় সন্তুষ্ট প্রকাশ করেছেন মামলার কৌশুলি অতিরিক্ত পিপি এড. জিয়াউর রহমান বাচ্চু।
মামলার বিবরণে জানা যায়, ২০০২ সাল থেকে আসামীরা তৎকালীন ইউপি চেয়ারম্যান অসীম কুমার মৃধার নিকট চাঁদাদাবী করে। চাঁদা না দেওয়ায় ২০০৩ সালের ২১ ডিসেম্বর মুন্সিগঞ্জের হরিনগর বাজারে সন্ধ্যা ৬টায় আসামী তৎকালীন ইউপি সদস্য আবু জাবের মোড়লের নিদের্শে আব্দুস সাত্তার ও আব্দুল খালেক তৎকালীন মুন্সিগঞ্জ ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান অসীম কুমার মৃধাকে কুপিয়ে জখম করে। এ ঘটনায় মুন্সিগঞ্জের বিষে গাজীর পুত্র সিরাজুল ইসলাম বাদী হয়ে থানায় মামলা করে। মামলাটি অধিকতর তদন্তের জন্য সিআইডিতে যায়। সিআইডির উপ পরিদর্শক তদন্ত করে ২০০৫ সালের ১৫ মার্চ আদালতে চার্জসীট প্রদান করে। মাললায় দীর্ঘ দিন বিচার প্রক্রিয়ায় পরে আদালত মঙ্গলবার রায় ঘোষণার দিন ধার্য করে। আদালতে দীর্ঘ দিন যুক্তি তর্ক উপস্থাপন করে সরকারি পক্ষের আইনজীবী অতিরিক্ত পিপি এড. জিয়াউর রহমান বাচ্চু দোষ প্রমাণ করতে সক্ষম হন। মঙ্গলবার অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ আদালত-২ এর বিচারক শরীফ এ এম রেজা জাকির রায় ঘোষনা করেন। রায়ে আব্দুস সাত্তারকে একটি ধারায় ১০ ও আপর একটি ধারায় ৫ বছর সশ্রম কারাদন্ড ও ৫ হাজার টাকা জরিমানা ও অনাদায়ে ৩ মাসের কারাদন্ড প্রদান করা হয়। এ ছাড়া আবু জাকের মোড়ল ও আব্দুল খালেককে ৫ বছর সশ্রম কারাদন্ড ও ৩ হাজার টাকা জরিমানা অনাদায়ে ৩ মাসের কারাদন্ড প্রদান করা হয়। রায় ঘোষনার পরে অতিরিক্ত পিপি এড. জিয়াউর রহমান বাচ্চু বলেন, মামলার দীর্ঘ শুনানি শেষে রায় প্রদান করা হয়েছে। রায়ে সন্তুষ্ট প্রকাশ করেছেন মামলার বাদী সাইফুল ইসলাম ও প্রাক্তন ইউপি চেয়ারম্যান আসীম কুমার মৃধা।