মুরাদ হাসানের অশালীন বক্তব্যের ২৭২টি ভিডিও চিহ্নিত


166 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
মুরাদ হাসানের অশালীন বক্তব্যের ২৭২টি ভিডিও চিহ্নিত
ডিসেম্বর ৮, ২০২১ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::

ডা. মুরাদ হাসানের সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হওয়া অশালীন বক্তব্যের ২৭২টি ভিডিও চিহ্নিত করেছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)।

বুধবার হাইকোর্টে এ তথ্য দেন বিটিআরসির আইনজীবী রেজা ই রাকিব।

এর মধ্যে ইউটিউবে চিহ্নিত করা হয়েছে ১১৫টি, যার মধ্যে মুছে ফেলা হয়েছে ২টি। ফেসবুক থেকে বন্ধ করা হয়েছে ১৫টি ভিডিও।

এছাড়া ফেসবুক কর্তৃপক্ষ নিজেরা চিহ্নিত করছে ২০০টির বেশি ভিডিও। তাদের একটি টিম এগুলো নিজেরা সরাতে কাজ করছে।

এর আগে, মঙ্গলবার বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম ও বিচারপতি মো. মোস্তাফিজুর রহমানের হাইকোর্ট বেঞ্চ সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম থেকে একদিনের মধ্যে ডা. মুরাদ হাসানের অশ্লীল অডিও-ভিডিও অপসারণ করতে বিটিআরসির চেয়ারম্যানকে নির্দেশ দেন।

ডা. মুরাদ হাসান জামালপুর-৪ (সরিষাবাড়ী উপজেলা) আসনের সংসদ সদস্য। তার বাবা প্রয়াত মতিউর রহমান তালুকদার জামালপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ছিলেন। এর আগে ডা. মুরাদকে ২০১৯ সালের ১৯ মে তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রীর দায়িত্ব দিয়ে প্রজ্ঞাপন জারি করা হয়েছিল।

বেশ কিছু দিন ধরে বিভিন্ন বিষয়ে বিতর্কিত বক্তব্য এবং কর্মকাণ্ডের কারণে মুরাদ সংবাদের শিরোনাম হয়েছেন। সম্প্রতি সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রতিমন্ত্রীর কিছু অডিও-ভিডিও ছড়িয়ে পড়ায় দেশজুড়ে নিন্দা ও সমালোচনার ঝড় বইছে।

এতে বিব্রতকর অবস্থায় পড়ে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ ও সরকার। বিষয়টি নিয়ে প্রকাশ্যে কিছু বলতে না পারলেও সারা দেশে দলের নেতাকর্মীরা তার ওপর বিরক্ত এবং ক্ষুব্ধ। এ ঘটনায় বিএনপিসহ বিভিন্ন নারী সংগঠনও তীব্র প্রতিবাদ জানিয়েছে। তারা ডা. মুরাদের পদত্যাগ দাবি করেন।

সোমবার প্রধানমন্ত্রী মুরাদ হাসানকে পদত্যাগের নির্দেশ দেন। বিষয়টি নিশ্চিত করে আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের জানিয়েছিলেন, মঙ্গলবারের মধ্যেই পদত্যাগ করতে বলা হয়েছে মুরাদকে।