মুমূর্ষু রোগীর জীবন বাঁচাতে রক্ত দিলেন এমপি জগলুল


786 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
মুমূর্ষু রোগীর জীবন বাঁচাতে রক্ত দিলেন এমপি জগলুল
আগস্ট ২১, ২০১৮ ফটো গ্যালারি শ্যামনগর
Print Friendly, PDF & Email

 

 

শেখ আমিনুর হোসেন,,
সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি থ্যালাসেমিয়ায় আক্রান্ত একজন মুমূর্ষু রোগীর রক্ত দিয়ে প্রাণ বাঁচালেন সাতক্ষীরা-৪ আসনের সংসদ সদস্য এস এম জগলুল হায়দার। সোমবার রাতে কালিগঞ্জ উপজেলার নিজদেবপুর গ্রামের আব্দুর রাজ্জাক গাজীর মেয়ে শ্যামনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি থ্যালাসেমিয়ায় আক্রান্ত মরিয়মকে রক্ত দিলেন এমপি নিজে।
সাতক্ষীরা-৪ আসনের সংসদ সদস্য এস এম জগলুল হায়দার জানান, সোমবার ঘড়িতে সময় তখন রাত ১১ টা। আমি তখন জেগে আছি। গ্রামের অধিকাংশ লোকজন নিজ নিজ গৃহে বিশ্রাম নিচ্ছে। চারিদিকে নীরবতা। শুধুমাত্র ঝিঁ ঝিঁ পোকার ডাক শোনা যাচ্ছে। ঘুমাতে যাওয়ার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। এমন সময় হঠাৎ আমার মুঠোফোনে একটি কল আসে। কল রিসিভ করতেই অপর প্রান্ত থেকে এমপি এস এম জগলুল হায়দার শুনতে পাচ্ছেন, ভাই আমি হিতৈষী রক্তদান সংস্থার পরিচালক দীনেশ মণ্ডল বলছি। খুব বিপদে পড়ে এত রাতে আপনার স্মরণাপর্ণ হয়েছি। শ্যামনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি থ্যালাসেমিয়ায় আক্রান্ত একজন মুমূর্ষু রোগীর জন্য জরুরি রক্তের প্রয়োজন। কিন্তু কোনভাবেই রক্তের ব্যবস্থা করতে পারছি না। আপনি যদি কাউকে বলে দিতেন। আমি দীনেশের কাছে রক্তের গ্রুপ জানতে চান। দীনেশ বাবু এমপিকে জানায় রক্তের গ্রুপ ও+ পজেটিভ। আমি তাকে বলি এত রাতে সবাই তো যার যার বাড়িতে ঘুমে মগ্ন। কাকে বলে দিবেন ভাবতে ভাবতে তখনি আমার মনে পড়ে তার আমার নিজেরই তো রক্তের গ্রুপ ও পজেটিভ। আমি তখন দীনেশকে জানিয়েদি, আমি এখনি আসছি, আমি নিজে রক্ত দিব। ফোন রেখে দ্রুত বাড়ি থেকে বের হয়ে নিজে মোটরসাইকেল চালিয়ে হিতৈষী রক্তদান সংস্থায় যায়ে রক্ত দেন করি। রোগীর পরিবারের সদস্যদের কাছে আমি জানতে পারি তাদের বাড়ি আমার নির্বাচনী এলাকা কালিগঞ্জ উপজেলার নিজদেবপুর গ্রামে। মরিয়মের পরিবারের সদস্যরা আবেগাপ্লুত হয়ে আমাকে ধন্যবাদ জানায় এবং আমার জন্য দোয়া করে। এমপি এস এম জগলুল হায়দার তাদেরকে বলেন তার জন্য নয় বঙ্গবন্ধু, বঙ্গবন্ধু পরিবারের সকল শহীদ সদস্য এবং প্রধানমন্ত্রী ও জননেত্রী শেখ হাসিনার জন্য দোয়া করার অনুরোধ করেন।