মুস্তাফিজের বিসিএল পরীক্ষা


333 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
মুস্তাফিজের বিসিএল পরীক্ষা
ফেব্রুয়ারি ৪, ২০১৭ খেলা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::
বিশ্বসেরা ব্যাটসম্যানরা তার কাটার-ইয়র্কারে কাঁপে। তার কাটার দেখে ওয়াসিম আকরাম, ব্রেট লির মতো কিংবদন্তিদের চোখ ছানাবড়া হয়ে যায়। গত টি২০ বিশ্বকাপে টিভিতে ধারাভাষ্য দেওয়ার সময় তার কাটার দেখে বিস্মিত ব্রেট লি তো বলেই ফেলেছিলেন, ‘এত চমৎকার কাটার ছেলেটা কীভাবে দেয়! তার কব্জি কি রাবারের তৈরি! ছেলেটির মতো কাটার যদি দিতে পারতাম!’ সেই মুস্তাফিজুর রহমান আজ বিসিএলে পরীক্ষা দিতে নামছেন। শুনতে কিছুটা অবাকই লাগছে। সারাবিশ্ব কাঁপিয়ে দেওয়া মুস্তাফিজের কাছে বিসিএল তো নস্যি। তবে পরিস্থিতি পাল্টে গেছে। কাঁধের অস্ত্রোপচারের পর মুস্তাফিজের হাত থেকে প্রাণঘাতী কাটার কিংবা ইয়র্কার বের হতে দেখা যাচ্ছে না। যে কারণে ভারত সফরে নেওয়া হয়নি তাকে। ঘরোয়া ক্রিকেটে পারফর্ম করে ফর্ম পুনরুদ্ধারের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে তাকে। আগামী মার্চে শ্রীলংকা সফরের আগে নিজেকে ফিরে পাওয়ার লড়াইটা বিসিএল দিয়ে শুরু করছেন মুস্তাফিজ।

ভারতের বিপক্ষে দল ঘোষণার মঞ্চেই প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন বলেছিলেন, ফিটনেস এবং ফর্ম ফেরানোর জন্য মুস্তাফিজকে বিসিএলে খেলাবেন তারা। মুস্তাফিজও দেরি করেননি। প্রধান নির্বাচকের কথা শুনে পর দিনই সিলেটের পথে রওনা হয়ে যান। গতকাল বাংলাদেশ দল যখন ভারতের হায়দরাবাদে টেস্টের প্রস্তুতি নিচ্ছে, মুস্তাফিজ তখন লাক্কাতুরা চা বাগান সংলগ্ন সবুজে ঘেরা সিলেট আন্তর্জাতিক ক্রিকেট স্টেডিয়ামে বিসিএলের জন্য নিজেকে ঝালিয়ে নিতে ব্যস্ত। আজ থেকে সিলেটে শুরু হওয়া বিসিএলের দ্বিতীয় রাউন্ডে দক্ষিণাঞ্চলের হয়ে মাঠে নামবেন মুস্তাফিজ। তাদের প্রতিপক্ষ আগের রাউন্ডে চ্যাম্পিয়ন মধ্যাঞ্চলকে হারিয়ে দেওয়া পূর্বাঞ্চল। অবশ্য টেস্ট দলে ডাক পাওয়ায় জয়ের নায়ক লিটন দাসকে পাচ্ছে না পূর্বাঞ্চল। দ্বিতীয় রাউন্ডের অপর ম্যাচে চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ স্টেডিয়ামে মধ্যাঞ্চলের প্রতিপক্ষ উত্তরাঞ্চল।

বিসিএল দিয়ে ফেরার লড়াইটা শুরু করছেন বলে মুস্তাফিজও বেশ খুশি। গতকাল অনুশীলনের ফাঁকে সিলেট স্টেডিয়ামে সংবাদকর্মীদের সে কথা বলেছেনও তিনি, ‘জাতীয় লীগ এবং বিসিএল খেলেই আমি জাতীয় দলে সুযোগ পেয়েছি। আবার বিসিএল দিয়ে শুরু করছি। অবশ্যই ভালো লাগার কথা।’ বিসিএল হলেও নিজের সেরা খেলাটা খেলার চেষ্টা করবেন বলেও জানিয়েছেন তিনি, ‘এমনিতে সব দিক থেকে ভালোই যাচ্ছে। ইনজুরির পর থেকে কোনো টেস্ট খেলিনি, চার দিনের ম্যাচও খেলা হয়নি। এজন্য আমাকে একটা বিসিএলের ম্যাচ খেলার কথা বলা হয়েছে। চেষ্টা করব কালকে খেলায় নিজের সেরাটা দেওয়ার।’ তবে প্রতিপক্ষ সম্পর্কে খুব একটা ধারণা নেই তার, ‘প্রতিপক্ষ সম্পর্কে আমি অতোটা জানি না। আমি কেবল জানি, বিসিএলে আমাদের দক্ষিণাঞ্চলের দল সব সময়ই ভালো হয়। খুলনা বিভাগ ও বরিশাল বিভাগ মিলিয়ে আমাদের দল।’ সিলেট স্টেডিয়াম দেখেও বেশ খুশি মুস্তাফিজ, ‘২০১২ সালে আমি একবার এসেছিলাম এ মাঠে। তখন এ রকম সুন্দর ছিল না। এখন স্টেডিয়াম দেখে খুব ভালো লাগছে।’ মুস্তাফিজের সঙ্গে জাতীয় দলের আরেক তারকা পেসার রুবেল হোসেনও দক্ষিণাঞ্চলের হয়ে মাঠে নামবেন। তাদের দু’জনের জন্য বাদ পড়তে পারেন অভিজ্ঞ পেসার আল-আমিন।