মেসেঞ্জারে ছাত্রীর আপত্তিকর ছবি চান সাতক্ষীরার এক প্রধান শিক্ষক !


612 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
মেসেঞ্জারে ছাত্রীর আপত্তিকর ছবি চান সাতক্ষীরার এক প্রধান শিক্ষক !
মে ১৭, ২০২২ আশাশুনি ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

আকরামুল ইসলাম ::

সাতক্ষীরার আশাশুনি উপজেলার কোদন্ডা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক দুঃখী রাম ঢালীর বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগ তুলেছেন দশম শ্রেণির এক ছাত্রী। এ ঘটনায় মঙ্গলবার (১৭ মে) সকাল ১০টার দিকে আশাশুনি থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন ওই স্কুলছাত্রী।

ভুক্তভোগী ছাত্রী জানায়, কোদন্ডা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক দুঃখী রাম ঢালীর কাছে সে প্রাইভেট পড়তো। সেই সুযোগে প্রথমে ফোন নম্বর নেন ও পরে তার সঙ্গে ফেসবুকে যুক্ত হন প্রধান শিক্ষক। এরপর প্রায় সময় ফোন করে লেখাপড়ার খোঁজখবর নিতেন। একপর্যায়ে ফেসবুক মেসেঞ্জারে আপত্তিজনক মেসেজ দিতে থাকেন ওই শিক্ষক। মেসেজে ও ভিডিও কলে আপত্তিকর ছবি দেখতে চান তিনি।

ওই স্কুলছাত্রী বলে, যখন আমি একা থাকতাম তখন প্রধান শিক্ষক ওড়না ধরে টানাটানি করত। আমি এগুলো সহ্য করতে পারতাম না। ভয়ে প্রথমে ঘটনাগুলো কাউকে জানাইনি। পরে সহপাঠীদের জানালে তারা প্রতিবাদ করতে বলে।

কোদন্ডা মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সহকারী প্রধান শিক্ষক অশোক কুমার বলেন, প্রধান শিক্ষক দুঃখী রাম দুই বছর আগে বিদ্যালয়ে যোগদান করেছেন। ছাত্রীর সঙ্গে এই ঘটনা শুনে আমরা সবাই হতভম্ব হয়ে গেছি। ফেসবুকে গোপনে কখন কী করেছে সেটি তো আমরা জানি না। তবে দুই দিন আগে থেকে এই অভিযোগ করছে ওই ছাত্রী। এরপর আমরা স্যারকে জিজ্ঞেস করেছি স্যার জানিয়েছেন- ফেসবুক হ্যাকড করে এটি কেউ করেছে, আমি করিনি।

অভিযোগের বিষয়ে প্রধান শিক্ষক দুঃখী রাম ঢালীর সঙ্গে একাধিকবার যোগযোগের চেষ্টা করা হলে তার ফোন নম্বরটি বন্ধ পাওয়া যায়।

এদিকে অভিযোগ সংক্রান্ত ফেসবুক মেসেঞ্জারের স্ক্রিনশট ছড়িয়ে দিয়েছে ওই স্কুলছাত্রী।

আশাশুনি উপজেলা শিক্ষা কর্মকর্তা হাসানুজ্জামান বলেন, অভিযোগটা আমি শুনেছি। লিখিত অভিযোগ পেলে তদন্তপূর্বক ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আশাশুনি থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) জাহাঙ্গীর হোসেন বলেন, ওই স্কুলছাত্রী নিজেই বাদী হয়ে থানায় অভিযোগ দিয়েছেন। আমরা ঘটনাটি যাচাই-বাছাই করছি। তদন্তপূর্বক আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।