মোদির আগমনকে ঘিরে শ্যামনগরে উৎসব আমেজ


218 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
মোদির আগমনকে ঘিরে শ্যামনগরে উৎসব আমেজ
মার্চ ২২, ২০২১ ফটো গ্যালারি শ্যামনগর
Print Friendly, PDF & Email

॥ শাহিদুর রহমান ॥

ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আগমনকে ঘিরে সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলার ঈশ্বরীপুর ইউনিয়নের যশেরেশ্বরী কালীমন্দির এবং সংলগ্ন এলাকায় বিরাজ করছে উৎসব আমেজ। চারদিকে সাজ সাজ অবস্থা বিরাজমান। নেওয়া হয়েছে তিন স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা।

স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উপলক্ষে বাংলাদেশ আসছেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। ২৬ মার্চ তিনি ঢাকায় পৌঁছাবেন। ২৭ মার্চ ঈশ্বরীপুর যশেরেশ্বরী কালীমন্দির পরিদর্শন ও পূজা-অর্চনায় অংশ নেওয়ার কথা রয়েছে তার।

এ সফরকে ঘিরে মন্দিরের নিরাপত্তা সংক্রান্ত সার্বিক প্রস্তুতি পর্যবেক্ষণ করেছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত ভারতীয় হাইকমিশনার বিক্রম দোড়াইস্বামী। শনিবার (২০ মার্চ) দুপুরে তিনি সরেজমিনে মন্দির পরিদর্শন করেন।
নরেন্দ্র মোদির জন্য নতুন রূপে সাজছে শ্যামনগর

ভারতীয় হাইকমিশনার বিক্রম দোড়াইস্বামী কালীমন্দির এসে পৌঁছান ১২ টায় ১৫ মিনিটে। আসার সঙ্গে সঙ্গে শঙ্খর ধ্বনি, উলুধ্বনি, ঢাকঢোল পিটিয়ে তাকে বরণ করে নেন মন্দিরে দেবীর পূজা দিতে আসা ভক্তরা। বেলা সাড়ে ১২ টায় তিনি শনিবারের সাপ্তাহিক পূজায় অংশ নেন। পরে তিনি মন্দির প্রাঙ্গণ, ভারতীয় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির জন্য প্রস্তুত বিশ্রামাগার, কালীমন্দিরে যাওয়ার নবনির্মিত রাস্তা এবং চারটি হেলিপ্যাড এলাকা পরিদর্শন করেন।

এসময় তার সফরসঙ্গী হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ভারতীয় সহকারী হাইকমিশনার রাজেশ কুমার রায়না, প্রটোকল অফিসার অমরিশ কুমার, অ্যাডিশনাল ডিআইজি (ক্রাইম) নজরুল ইসলাম, সাতক্ষীরা জেলা প্রশাসক এস এম মোস্তফা কামাল, পুলিশ সুপার মোস্তাফিজুর রহমান, শ্যামনগর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আতাউল হক দোলন, শ্যামনগর উপজেলা নির্বাহী অফিসার আবুজার গিফারী, সহকারী কমিশনার মোহাম্মদ শহীদুল্লাহ, শ্যামনগর থানার অফিসার ইনচার্জ আলহাজ্ব নাজমুল হুদা প্রমুখ।

হিন্দু সম্প্রদায়ের ৫১ শক্তিপীঠের মধ্যে শ্যামনগর উপজেলার যশোরেশ্বরী কালীমন্দির অন্যতম। শক্তিপীঠের ৫১ খণ্ডর একখণ্ড দেখতে সাতক্ষীরা উপকূলের এই মন্দিরে আসছেন নরেন্দ্র মোদি। ২৭ মার্চ সকাল ৯টা ৫০ মিনিটে সাতক্ষীরার সুন্দরবন ঘেঁষা শ্যামনগরের ঈশ্বরীপুরে অবস্থিত যশোরোশ্বরী দেবীমন্দির পরিদর্শন করবেন তিনি। সেখানে ২০ মিনিট অবস্থান শেষে একইদিন ১০টা ১০ মিনিটে হেলিকপ্টারে করে যাবেন গোপালগঞ্জ।
কেন গোপালগঞ্জের ওড়াকান্দি যেতে চান মোদি?

মোদির আগমন উপলক্ষে ঈশ্বরীপুর এ সোবহান মাধ্যমিক বিদ্যালয় মাঠে দুটি এবং পাশের স্থানে একটি হেলিপ্যাড প্রস্তুত করা হচ্ছে। তার আগমন উপলক্ষে মন্দির সংস্কারের কাজ চলছে পুরোদমে। মন্দির সংলগ্ন ঐতিহ্যবাহী ঈশ্বরীপুর বাজার মাঠও পাকা করা হচ্ছে।
ভারতের প্রধানমন্ত্রীর আগমন উপলক্ষে ইতোমধ্যে একাধিকবার ভারত ও বাংলাদেশের পৃথক নিরাপত্তা টিম ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। জেলা প্রশাসন, জেলা পুলিশ, উপজেলা প্রশাসন, জনপ্রতিনিধিসহ বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থার প্রতিনিধি পরিদর্শন ও বৈঠক করছেন প্রতিনিয়ত। এলজিইডির তত্ত্বাবধানে এলাকার বিভিন্ন স্থানে সংস্কারে কাজ চলছে।

পল্লীবিদ্যুতের একটি ইউনিট উচ্চশক্তির ট্রান্সমিটার লাগানোর কাজ চলছে। ওইদিন নিরবচ্ছিন্ন বিদ্যুৎসেবা দিতে তাদের কার্যক্রম থেমে নেই।

শ্যামনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) আ ন ম আবুজর গিফারী বলেন, ‘ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির শ্যামনগরে আগমন উপলক্ষে জেলা প্রশাসনের নির্দেশনা অনুযায়ী চলছে সব ধরনের প্রস্তুতি। তার আগমন উপলক্ষে যশোরেশ্বরী মন্দিরের সংস্কার কাজ চলছে।’ পরিরদর্শন স্থানটি প্রতিনিয়ত দেখাশোনা করা হচ্ছে বলে জানান তিনি।