যশোরে দুর্নীতির মামলায় এসআই-কনস্টেবল কারাগারে


401 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
যশোরে দুর্নীতির মামলায় এসআই-কনস্টেবল কারাগারে
জুলাই ২২, ২০১৫ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

যশোর প্রতিনিধি :
যশোরে দুর্নীতির অভিযোগে দায়েরকৃত মামলায় পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) ও এক কনস্টেবলকে কারাগারে পাঠিয়েছেন আদালত।

মঙ্গলবার (২১ জুলাই) বিকেলে যশোরের জেলা ও দায়রা জজ মিজানুর রহমান তাদেরকে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

যশোর কোর্ট পুলিশের ইন্সপেক্টর রেজাউল ইসলাম মঙ্গলবার রাতে ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করেন।

তিনি জানান, দুর্নীতির দায়ে অভিযুক্ত এসআই ও কনস্টেবল আদালতে হাজির হয়ে জামিনের আবেদন করলে বিচারক জামিন নামঞ্জুর করে কারাগারে পাঠানোর নির্দেশ দেন।

আসামিরা হলেন, খুলনা জেলার বটিয়াঘাটা থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) উত্তম কুমার ও যশোরের মণিরামপুর থানার কনস্টেবল ইদ্রিস আলী।

আদালত সূত্রে জানা যায়, আসামিরা যশোর সদর উপজেলার সাজিয়ালি পুলিশ ক্যাম্পে কর্মরত থাকাকালীন ২০১২ সালের ২৬ জানুয়ারি স্থানীয় দোগাছিয়া গ্রামের মৃত রমজান আলীর ছেলে রবিউল ইসলামকে ক্রসফায়ারের ভয় দেখিয়ে এক লাখ টাকা ঘুষ দাবি করেন এসআই উত্তম কুমার। তবে দাবিকৃত ঘুষের টাকা না দেওয়ায় রবিউলকে আটক করে একটি পেন্ডিং মামলায় কোর্টে চালান দেওয়া হয়।

এ ঘটনায় ওই বছরের ১৯ ফেব্রুয়ারি ভুক্তভোগী রবিউল ইসলামের ভাই রেজাউল বাদি হয়ে যশোর স্পেশাল জজ আদালতে একটি দুর্নীতির মামলা দায়ের করেন। বিচারক মামলাটি তদন্ত করে প্রতিবেদন দাখিলের জন্য জেলা দুর্নীতি দমন কমিশনকে নির্দেশ দেন। আদালতের নির্দেশনা মোতাবেক ২০১৩ সালের ২৮ নভেম্বর যশোর দুর্নীতি দমন কমিশনের সহকারী পরিচালক হাফিজুর রহমান এসআই উত্তমসহ আরও ৪-৫ জনকে অভিযুক্ত করে আদালতে প্রতিবেদন দাখিল করেন। পলাতক থাকায় ২০১৪ সালের ২ ফেব্রুয়ারি এসআই উত্তম এবং কনস্টেবল ইদ্রিস আলীর বিরুদ্ধে গ্রেফতারি পরোয়ানা জারি করেন আদালত। পরবর্তীতে তারা আদালতে হাজির হয়ে অস্থায়ী জামিন নেন। তবে মঙ্গলবার (২১ জুলাই) স্থায়ী জামিনের জন্য তারা আদালতে হাজির হন। এ সময় তাদের আইনজীবী দেবাশীষ দাস বেলবন্ড প্রত্যাহার করে নেন। এরপর বিচারক শুনানি শেষে আসামিদের জামিন নামঞ্জুর করে জেলহাজতে পাঠানোর নির্দেশ দেন।