যশোরে রেললাইনের পাশে মাদ্রাসাছাত্রের লাশ উদ্ধার


339 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
যশোরে রেললাইনের পাশে মাদ্রাসাছাত্রের লাশ উদ্ধার
মার্চ ৪, ২০১৭ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

মেহেদী হাসান,কেশবপুর ::
যশোর শহরের রেল স্টেশন এলাকার জমাদ্দারপাড়া এলাকা থেকে অজ্ঞাত এক শিশুর (১১) মরদেহ উদ্ধার করেছে রেল পুলিশ। তার গায়ের পোশাক দেখে ধারণা করা হচ্ছে সে মাদ্রাসায় পড়াশুনা করতো।

তার পাঞ্জাবির পকেটে থাকা একটি টিকিটের পেছনে থাকা মোবাইল ফোন নম্বরে ফোন করে জানা গেছে, শিশুটির নাম মাহবুব। সে ঢাকার রামপুরা বনশ্রী এলাকার একটি বেসরকারি মাদ্রাসার ছাত্র। তার বাড়ি খিলগাঁও।

শনিবার (৪ মার্চ) সকাল ৮টার দিকে এই মরদেহ রেললাইনের ধারে পড়ে থাকতে দেখে পুলিশকে খবর দেন স্থানীয়রা।

স্থানীয় বাসিন্দা সুমন জানান, ‘শিশুটির পকেটে ঢাকা থেকে যশোর আসার একটি বাস টিকিট ছিল। মনে হয়, সে ঢাকা থেকে যশোরে কোথাও তার আত্মীয়-স্বজনের কাছে এসেছিল।’

যশোর রেলওয়ে পুলিশের এসআই ইদ্রিস আলী জানান, স্থানীয় লোকদের দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে সকাল সোয়া ৯টার দিকে ঘটনাস্থল থেকে শিশুটির মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

তিনি জানান, তার গায়ে পাঞ্জাবি ও পাজামা এবং মাথায় টুপি ছিল। ধারণা করা হচ্ছে সে কোনও মাদ্রাসাছাত্র। মরদেহটি রেল লাইনের পাশে পড়ে ছিল। কী কারণে তার মৃত্যু হয়েছে তা ময়নাতদন্ত ছাড়া বলা যাচ্ছে না বলে তিনি জানান।

এদিকে শিশুটির টিকিটের পেছনে থাকা একটি মোবাইল নম্বরে ফোন করে পুলিশ। নারায়ণগঞ্জের মোস্তফা মিয়া নামের এক ব্যবসায়ীর নম্বর ছিল এটি। মোস্তফা মিয়া জানান, তিনি ব্যবসায়িক কাজে প্রায়ই ঢাকা-যশোর রুটে যাতায়াত করেন। তিনি শুক্রবার বিকালে শিশুটিকে ঢাকার কমলাপুর রেলস্টেশনে ঘোরাফেরা করতে দেখেন। তাকে ডেকে জিজ্ঞেস করলে সে জানায়, তার নাম মাহবুব ও সে বনশ্রীর একটি মাদ্রাসায় পড়াশোনা করে। থাকে খিলগাঁওয়ে। যশোরে সে ফুফুর বাড়িতে বেড়াতে যেতে চায় বলে জানায়। মোস্তফা মিয়া শিশুটিকে বাবা-মায়ের কাছে ফিরে গিয়ে তাকে ফোন করে জানাতে বলেন ও নম্বর দিয়ে দেন। তবে তিনিও শিশুটির বাবা-মায়ের পরিচয় জানেন না