“রক্ত হোক অসাম্প্রদায়িকতার দৃঢ় বন্ধন”


546 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
“রক্ত হোক অসাম্প্রদায়িকতার দৃঢ় বন্ধন”
অক্টোবর ১৪, ২০১৫ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

প্রেস বিজ্ঞপ্তি :
সারাদেশে সাতক্ষীরার অধিবাসী চিকিৎসক ও চিকিৎসা বিজ্ঞানে অধ্যয়নরত ছাত্র-ছাত্রীদের সংগঠন ডক্টরস এন্ড মেডিকেল স্টুডেন্টস ফ্রম সাতক্ষীরা’র আয়োজনে এবং বাংলাদেশ সনাতন ধর্মীয় যুব সংঘ ও জয় মহাপ্রভু সেবক সংঘ যুব কমিটি’র সহযোগিতায় “রক্ত হোক অসাম্প্রদায়িকতার দৃঢ় বন্ধন” শ্লোগানকে ধারণ করে ১৪ অক্টোবর  বুধবার সকাল ১২ টায় পুরাতন সাতক্ষীরাস্থ শ্রী শ্রী রাধা শ্যাম সুন্দর মন্দির প্রাঙ্গণে এক রক্তদান কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়।

উক্ত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ঢাকাস্থ বাংলাদেশের ভারতীয় দূতাবাসের ফাস্ট সেক্রেটারী (প্রেস, ইনফরমেশন ও কালচারাল) শ্রী সিদ্ধার্থ চট্টোপাধ্যায়।

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জয় মহাপ্রভু সেবক সংঘ কেন্দ্রীয় কমিটির সহ-সভাপতি মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডা. সুশান্ত ঘোষ, ঢাকাস্থ বাংলাদেশের ভারতীয় দূতাবাস কর্তৃক প্রকাশিত মাসিক পত্রিকা “ভারত বিচিত্রা” এর সম্পাদক শ্রী নান্টু রায়, কর্ণাটক থেকে আগত লোকনাট্য শিল্পী যক্ষগান দল ‘শবর’ -এর দলনেতা শ্রী নাগরাজ যোশী জয় মহাপ্রভু সেবক সংঘ সাতক্ষীরা জেলা শাখার সভাপতি বিশ্বনাথ ঘোষ, জীবদ্দশায় ৯৯ বার রক্তদাতা জাকারিয়া বিশ্বাস এবং স্বাধীন বাংলা ফুটবল দলের খেলোয়াড় আলহাজ্ব আব্দুল খালেক। সারাদেশে সাতক্ষীরার অধিবাসী চিকিৎসক ও চিকিৎসা বিজ্ঞানে অধ্যয়নরত ছাত্র-ছাত্রীদের সংগঠন ডক্টরস এন্ড মেডিকেল স্টুডেন্টস ফ্রম সাতক্ষীরার আহবায়ক ডা. সুব্রত ঘোষ এর সঞ্চালনায় উক্ত অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন শ্যামসুন্দর মন্দিরের সেবায়েত ও ইসকন সাতক্ষীরা’র দায়িত্বপ্রাপ্ত সমন্বয়ক পরমপুরুষ দাশ। বক্তব্য প্রদান করেন বাংলাদেশ সনাতন ধমীয় যুব সংঘের সহ-সভাপতি পলাশ দেবনাথ, সাতক্ষীরা মেডিকেল কলেজের ছাত্র মিনাক কুমার বিশ্বাস, দিপু বসাক, খ্রীস্টিয় সম্প্রদায়ের প্রতিনিধি মারিও পান্ডে, ইসকন মন্দির সাতক্ষীরার সেবায়েত দ্বারকেশ্বর যাদব দাশ, জয় মহাপ্রভু সেবক সংঘ যুব কমিটির সুমন অধিকারী প্রমুখ।

এসময় বক্তারা বলেন রক্তদানের ক্ষেত্রে কোন জাত-ধর্ম-বর্ণ ভেদাভেদ নেই। হিন্দু-মুসলিম-বৌদ্ধ-খ্রীস্টান সকলেরই রক্ত লাল এবং রক্তদান একটি মহতী উদ্যোগ। রক্তদানে একটি জীবন বাঁচে। সকলকে রক্তদানে উদ্বুদ্ধ করতে সামাজিক আন্দোলন গড়ে তোলার উপর তারা গুরুত্বারোপ করেন। সভা শেষে সকল ধর্মের মানুষ হাতে হাত ধরে মানবতার সেবায় নিয়মিত রক্তদানের অঙ্গীকার করেন।