রফতানি বৃদ্ধিতে আরো তৎপর হওয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর


275 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
রফতানি বৃদ্ধিতে আরো তৎপর হওয়ার আহ্বান প্রধানমন্ত্রীর
ডিসেম্বর ২, ২০১৮ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::

উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে উত্তোরণের সুযোগ গ্রহণ করে রফতানি বাণিজ্য বৃদ্ধিতে কর্মতৎপরতা আরো জোরদার করার জন্য ব্যবসায়ী সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

রোববার সকালে রাজধানীর প্যান প্যাসিফিক সোনারগাঁও হোটেলে জাতীয় রফতানি ট্রফি ২০১৫-১৬ বিতরণ অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘উন্নয়নশীল দেশ হিসেবে আমরা যে সুযোগটা পেয়েছি তাতে আমাদের ঋণ গ্রহণের সুবিধা হবে, ব্যবসা-বাণিজ্যের সুবিধা হবে।’

তিনি বলেন, ‘যে বিশাল সুযোগ আমাদের সৃষ্টি হবে রফতানি বাণিজ্য করার, সেই সযোগটা আমাদের গ্রহণ করতে হবে। আর তার উপযুক্ত পরিবেশ সৃৃষ্টি করতে হবে।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘এলডিসিভুক্ত দেশ হিসেবে অন্য যে সুযোগগুলো আমরা পাই সেগুলো হয়তো পাবো না, তাতে আমাদের কোনো অসুবিধা হবে না। কারণ, সেভাবেই আমরা আমাদের নীতিমালাসহ সবকিছু প্রণয়ন করেছি।’

 

হা-মীম গ্রুপের ব্যবস্থাপনা পরিচালক এ. কে. আজাদের হাতে ট্রফি তুলে দেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা—

দল মত নির্বিশেষে তার দরজা ব্যবসায়ীদের জন্য সবসময় খোলা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আপনারা দেশ-বিদেশে ঘোরেন, আপনারাও খুঁজে বের করুন কোন দেশে আমাদের দেশের কোন কোন পণ্য রফতানি করা যায়।’

তিনি বলেন, ‘বাজারকে খুঁজে নেওয়া এবং পণ্যটাকে তৈরি করা, সেটাও কিন্তু আপনাদের একটা দায়িত্ব। সেই ক্ষেত্রে যদি কোনো রকম সহযোগিতা লাগে, অবশ্যই সরকার হিসাবে আমরা তা করব।’

আসন্ন নির্বাচণের কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে সরকার প্রধান বলেন, ‘যদিও সময় এখন সীমিত। আগামীতে ইলেকশন, কী হবে বলতে পারি না! যতক্ষণ আছি ততক্ষণে যা যা প্রয়োজন সেটা করে দিতে পারবো— সেইটুকু কথা দিতে পারি।’

শেখ হাসিনা বলেন, ‘আগামী ইলেকশনে কী হবে তা বলতে পারি না। তবে আমরা যে একটা সিস্টেম করে রেখেছি, এরপর যেই ক্ষমতায় আসুক না কেন কেউ দেশের উন্নয়নে বাধা দিতে পারবে না। বাংলাদেশের এগিয়ে যাওয়াকে আর কেউ থামাতে পারবে না।’

বাণিজ্য মন্ত্রণালয় এবং রফতানি উন্নয়ন ব্যুরোর যৌথ উদ্যোগে আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে বাণিজ্যমন্ত্রী তোফায়েল আহমেদ সভাপতিত্ব করেন।

এফবিসিসিআই সভাপতি শফিউল ইসলাম মহিউদ্দিন অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন এবং বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মফিজুল ইসলাম অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য দেন।

অনুষ্ঠানে ২০১৫-২০১৬ অর্থবছরে বিভিন্ন পণ্য ও খাতভিত্তিক সর্বোচ্চ রফতানি আয়ের জন্য ৫৬টি প্রতিষ্ঠানকে ‘জাতীয় রফতানি ট্রফি’ প্রদান করা হয়।