রাবি সংবাদ ॥ বর্ণাঢ্য আয়োজনে রাবিতে বিশ্ব দর্শন দিবস পালিত


399 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
রাবি সংবাদ ॥ বর্ণাঢ্য আয়োজনে রাবিতে বিশ্ব দর্শন দিবস পালিত
নভেম্বর ২৮, ২০১৫ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

আব্দুর রহমান আশিক :
“জয় হোক দর্শনের, জয় হোক মানবতার” এই স্লোগানকে সামনে রেখে রাবিতে পালিত হলো বিশ্ব দর্শন দিবস। শনিবার দিবসটি উপলক্ষে বর্ণাঢ্য র‌্যালী বের করে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় দর্শন বিভাগ।
সকাল সাড়ে ৯টার দিকে র‌্যালীটি দর্শন বিভাগের সামনে থেকে শুরু করে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে সিনেট ভবনের সামনে এসে মিলিত হয়। পরবর্তীতে সকাল ১০টায় সিনেট ভবনে সেমিনার অনুষ্ঠিত হয়।
দর্শন বিভাগের সভাপতি প্রফেসর ড. আক্তার আলীর সভাপতিত্বে ও তাসনিম নাজিরা রিদার উপস্থাপনায় সেমিনারে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয়ের উপাচার্য প্রফেসর মুহাম্মাদ মিজানউদ্দিন, বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন উপ-উপাচার্য প্রফেসর ড. চেীধুরী সারওয়ার জাহান এবং সেমিনারে মূল বক্তব্য পাঠ করেন প্রফেসর ইমেরিটাস ড. অরুণ কুমার বসাক। এছাড়াও আরও  উপস্থিত ছিলেন দেশ বরেণ্য কথা সাহিত্যিক হাসান আজিজুল হক ও অবসরপ্রাপ্ত প্রফেসর ড. সাজাহান প্রমূখ।
প্রধান অতিথির বক্তব্যে প্রফেসর মিজানউদ্দীন বলেন, মানব জীবনে দর্শনের শিক্ষার কোন বিকল্প নেই। আজ সারা বিশ্বে অশান্তি বিরাজ করছে তার মুল কারণ হলো আমরা দর্শনের শিক্ষা থেকে দূরে চলে এসেছি। আজ বিশ্ব শান্তি নেই বলেই বিশ্ব দর্শন দিবস পালন করতে হচ্ছে। বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠায় পূর্বের দার্শনিকগন যে শিক্ষা দিয়েছেন আমরা কিন্তু তা শিক্ষা দিতে পারি না। তাই আজ বিশ্ব অশান্তি বিরাজ করছে। এসময় বিশ্ব শান্তি প্রতিষ্ঠায় দার্শনিকদের এগিয়ে আসার আহ্বান জানান তিনি।
সেমিনারে ‘মানুষের কল্যাণে দর্শনের ভূমিকা’ শীর্ষক লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন প্রফেসর ইমেরিটাস ড. অরুণ কুমার বসাক।

রাবির দুই শিক্ষককে সর্বহারা পরিচয়ে হুমকি
রাবি প্রতিনিধি:
রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের সভাপতি প্রফেসর আবুল কাশেম ও ইতিহাস বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত প্রফেসর মোহাম্মদ শাফিকে একই ফোন নম্বর থেকে টাকা চেয়ে হুমকি দেওয়া হয়েছে। শুক্রবার সন্ধ্যায় সর্বহারা পার্টি পরিচয়ে এ হুমকি দেওয়া হয়।

প্রফেসর আবুল কাশেম বলেন, ‘শুক্রবার সন্ধ্যায় বিশ্ববিদ্যালয়ের ডীন কমপ্লেক্সে আমার অফিসে বসেছিলাম। ৭টা ৩৫ মিনিটে একটি মুঠোফোন নম্বর (০১৬২৫২৯৩২০১) থেকে আমার ফোনে কল আসে।

এ সময় আমাকে বলা হয়, আপনি বাইরে না বাসায়? উত্তরে বলি, বাইরে। তখন তিনি বলেন, বাসায় যান আমি আসছি। এ সময় তার পরিচয় জানতে চাইলে আমাকে বলা হয়, আমি সর্বহারা পার্টির রণজিৎ। এই বলে ফোন রেখে দেওয়া হয়।’
তিনি আরও বলেন, ‘রাতেই বিষয়টি আমি বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন সহকারী প্রক্টরকে জানিয়েছি। থানায় সাধারণ ডায়েরি করব।’

ইতিহাস বিভাগের অবসরপ্রাপ্ত প্রফেসর মোহাম্মদ শাফি বলেন, ‘সন্ধ্যায় আমি বাসায় ছিলাম। ৭টা ৪৬ মিনিটে আমার ফোনে একটি নম্বর (০১৬২৫২৯৩২০১) থেকে কল আসে।
আমাকে বলা হয়, আপনি বাসায় না বাইরে? তখন আমি বলি, বাসায়। তিনি বলেন, থাকেন আমরা আসছি। এ সময় আমি বলি, আমি তো অসুস্থ, তাই আপনাদের সঙ্গে কথা বলতে পারব না। তিনি বলেন, তাহলে আমাদের টাকা দেন। আমাদের ছেলেরা ভেলোর (ভারত) ও দেশে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এর জন্য বিপুল পরিমাণ টাকা দরকার। তখন আমি বলি, আমি আবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক। আমার কাছে তেমন টাকা নেই। আমি টাকা দিতে পারব না। এতে তিনি রেগে গিয়ে বলেন, ঠিক আছে, পরে নিজের বা আপনার সন্তানদের কিছু হলে আমরা দায়ী হব না। এ সময় তার পরিচয় জানতে চাইতে তিনি বলেন, আমি সর্বহারা পার্টির কমরেড মতিন।’

এ বিষয়ে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর প্রফেসর ড. তারিকুল হাসান বলেন, ‘আমাকে মৌখিক ভাবে জানানো হয়েছে। অমি এ বিষয়ে পুলিশের উদ্ধতন কর্মকর্তাদেরকে সাথে কথা বলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে বলেছি।’

মতিহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হুমায়ুন কবির বলেন, ‘আমি বিষয়টি শুনিছে। তবে এখনো লিখিত কোন অভিযোগ করা হয়নি। লিখিত অভিযোগ করলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।
##
নতুন নেতৃত্বে রাবি ছাত্র ইউনিয়ন
রাবি প্রতিনিধি :
মিনহাজুল আবেদিনকে সভাপতি ও সাইদুজ্জামান সুহানকে সাধারণ সম্পাদক করে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্র ইউনিয়নের ১৭ সদস্য বিশিষ্ট নতুন কমিটি ঘোষণা করা হয়েছে। কমিটিতে মাহমুদুল হাসান আসিফকে সাংগঠনিক সম্পাদক করা হয়।
২৯তম সম্মেলনের দ্বিতীয় দিন শুক্রবার দুপুরে বিশ্ববিদ্যালয়ের রাকসু ভবনে ছাত্র ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় সভাপতি লাকী আক্তার এ কমিটি ঘোষণা করেন।
এসময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন, রাবি ছাত্র ইউনিয়নের সাবেক সভাপতি অ্যাড. আবু সায়েম ও সদ্য বিদায়ী সভাপতি আয়াতুল্লাহ খোমেনীসহ অন্যান্ন নেতাকর্মীরা।
প্রসঙ্গত, বৃহস্পতিবার সকালে বিশ্ববিদ্যালয়ে দুই দিন ব্যাপী ছাত্র ইউনিয়নের এ সম্মেলন শুরু হয়। সম্মেলনের প্রথম দিনে ছাত্র ইউনিয়নের সাবেক ও বর্তমান নেতারা সা¤্রাজ্যবাদ-জঙ্গীবাদ-শিক্ষাবাণিজ্য প্রতিরোধে কাজ করার শপথ নেন।