র‌্যাংকিংয়ে তামিম-মাহমুদুল্লাহ,সৌম্যর বড় লাফ


377 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
র‌্যাংকিংয়ে তামিম-মাহমুদুল্লাহ,সৌম্যর বড় লাফ
মার্চ ৫, ২০১৯ খেলা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::

নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে তিন ম্যাচ সিরিজের প্রথম টেস্টে বাংলাদেশ ইনিংস ও ৫২ রানে হেরেছে। দলগত পারফর‌ম্যান্সে বাংলাদেশ দল ছিল অনুজ্জ্বল। তবে ব্যক্তিগত পারফরম্যান্স ভালো হয়েছে কয়েকজনের। বোলাররা কেউ দলের হয়ে ভালো বোলিং করতে পারেননি। তবে দুই ইনিংসে তিন ব্যাটসম্যান পেয়েছেন সেঞ্চুরি। প্রথম ইনিংসে তামিম এবং দ্বিতীয় ইনিংসে সৌম্য ও মাহমুদুল্লাহ শতকের ইনিংস খেলেছেন। টেস্ট র‌্যাংকিংয়েও তাদের উন্নতি হয়েছে।

প্রথম ইনিংসে ১২৬ রানের ইনিংস খেলেন তামিম। এছাড়া দ্বিতীয় ইনিংসে তিনি করেন ৭৪ রান। ওয়ানডে সিরিজে মাত্র ১০ রান করেন তামিম। এরপর টেস্টের দুই ইনিংসে ভালো করায় র‌্যাংকিংয়ে ১১ ধাপ এগিয়েছেন তিনি। দেশের হয়ে সেরা টেস্ট র‌্যাংকিং ২৫ এ আছেন তিনি। তার পরে আছেন সাকিব। তার ব্যাটিং র‌্যাংকিং ২৮।

ক্যারিয়ারসেরা র‌্যাংকিংয়ে অবস্থান করছেন মাহমুদউল্লাহ। এই মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান প্রথম ইনিংসে মাত্র ২২ রান করেন। তবে দ্বিতীয় ইনিংসে তার ব্যাট থেকে ১৪৬ রানের ইনিংস দেখা যায়। শেষ পর্যন্ত লড়াই করে নবম ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হন তিনি। এর আগে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ঘরের মাঠে টেস্টে সেঞ্চুরি পান বাংলাদেশ অধিনায়কের দায়িত্বে থাকা মাহমুদুল্লাহ। র‌্যাংকিংয়ে তিনি ১২ ধাপ এগিয়ে ৪০ নম্বরে উঠে এসেছেন। এছাড়া বোলিং র‌্যাংকিংয়ে তিন ধাপ এগিয়ে ৬৩তম স্থানে মাহমুদউল্লাহ।

ওদিকে দ্বিতীয় ইনিংসে টেস্ট ক্যারিয়ারের প্রথম সেঞ্চুরি পেয়েছেন সৌম্য সরকার। প্রথম ইনিংসে তিনি মাত্র ১ রান করেন। দ্বিতীয় ইনিংসে দেড়শ’ করতে পারেননি এক রানের জন্য। দেশের হয়ে টেস্টে তামিমের সঙ্গে যৌথভাবে ৯৪ বলে দ্রুততম সেঞ্চুরি করেন সৌম্য। র‌্যাংকিংয়ে এই ইনিংস ২৫ লাফ দিয়ে সৌম্যকে ৬৭ নম্বরে জায়গা এনে দিয়েছে।

টেস্ট ক্রিকেটে ক্যারিয়ার সেরা ৯১৫ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয় অবস্থানে উঠে এসেছেন নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন। তিনি ক্যারিয়ারের প্রথম ডাবল সেঞ্চুরি পেয়েছেন। এই সেঞ্চুরি তাকে কোহলির সঙ্গে র‌্যাংকিংয়ে শীর্ষে ওঠার লড়াইয়ে নামিয়েছে। ভারতীয় অধিনায়ক ৯২২ পয়েন্ট নিয়ে সেরা অবস্থানে আছেন। কিন্তু বিশ্বকাপের আগে তার আর টেস্ট ম্যাচ নেই। কেনের সামনে আছে এখনও দুই টেস্ট।