লকডাউন শিথিলের পর জার্মানিতে বাড়ছে সংক্রমণ


232 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
লকডাউন শিথিলের পর জার্মানিতে বাড়ছে সংক্রমণ
মে ১১, ২০২০ প্রবাস ভাবনা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::

জার্মানিতে করোনাভাইরাসের সংক্রমণ ফের বাড়তে শুরু করেছে। দেশটির চ্যান্সেলর অ্যাঙ্গেলা মেরকেল কয়েকদিন আগে লকডাউন শিথিলের ঘোষণা দিয়েছিলেন। তারপর থেকেই দেশটিতে বাড়তে শুরু করে সংক্রমণ। বার্তা সংস্থা এএফপির প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

জার্মানির দ্য রবার্ট কখ ইনস্টিটিউট ফর পাবলিক হেলথ (আরকেআই) জানিয়েছে, দেশে সংক্রমণের হার বেড়ে হয়েছে ১ দশমিক ১ শতাংশ। তার মানে, ১০ জন করোনা আক্রান্ত রোগী সংক্রমণ করছেন ১১ জন সুস্থ ব্যক্তিকে। অর্থাৎ রোগীরা এখন গড়ে একজনের বেশি মানুষকে সংক্রমিত করছেন।

আরকেআই জানিয়েছে, সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণে রাখতে এ হার এক শতাংশের নীচে রাখা প্রয়োজন। গত বুধবার পর্যন্ত জার্মানিতে এ হার ছিল ০.৬৫ শতাংশ। কিন্তু তারপরই মাংসের বাজারে ও বৃদ্ধাশ্রমগুলোতে হঠাৎ করেই গুচ্ছভিত্তিক সংক্রমণ ছড়াতে শুরু করে।

গত বুধবার মেরকেল জানিয়েছিলেন, করোনাভাইরাস মহামারির প্রথম ধাপ অতিক্রম করে ফেলেছে জার্মানি। ওই দিনই ১৬ রাজ্যের কর্তৃপক্ষের সঙ্গে বৈঠকের পর সামাজিক বিধিনিষেধ শিথিলের ঘোষণা দেন মেরকেল। তার আগে গত ২০ এপ্রিল ছোট ছোট দোকান খোলার অনুমতি দেওয়া হয়েছিল।

বুধবারের পর দেশটিতে বেশিরভাগ দোকান ও শিশুদের খেলার মাঠ খুলে দেওয়া হয়। ধাপে ধাপে স্কুলে ফিরতে শুরু করে শিশুরা। বিভিন্ন জায়গায় রেঁস্তোরা, ব্যায়ামাগার ও উপাসনালয় খুলে দেওয়া হয়। নিজ পরিবারের বাইরে অন্য একটি পরিবারের সদস্যদের সঙ্গে মেলামেশার সুযোগ দেওয়া হয়।

সংক্রমণের হার বেড়ে গেলে স্থানীয় সরকারগুলো ফের লকডাউন প্রয়োগের কথা বলেছে। যদি কোনো এলাকায় এক সপ্তাহে প্রতি এক লাখ মানুষে সংক্রমণের হার ৫০ জনের ওপর চলে যায় তাহলে ফের কড়াকড়ি আরোপ হতে পারে। আরকেআই জানিয়েছে, গত তিন দিনে অন্তত তিনটি জেলায় এ ধরনের পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে।

গত বুধবার সামাজিক বিধিনিষেধ শিথিলের ঘোষণা দিয়ে সমালোচনার মুখে পড়েছেন মেরকেল। তবে এই সমালোচনার পাশাপাশি লকডাউন পুরোপুরি তুলে নেওয়ার দাবিও জোরালো হচ্ছে দিনদিন।

গত শনিবার রাজধানী বার্লিনে লকডাউনবিরোধী বিক্ষোভ হয়েছে। এক পর্যায়ে পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষের ঘটনাও ঘটেছে। মিউনিখে তিন হাজারের বেশি মানুষ লকডাউনবিরোধী বিক্ষোভে অংশ নেন। জার্মানির অন্যত্রও হয়েছে এ বিক্ষোভ।

জার্মানিতে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হয়েছেন এক লাখ ৭১ হাজার ৮৭৯ জন। তাদের মধ্যে প্রায় দেড় লাখ মানুষ সুস্থ হয়েছেন। মৃত্যু হয়েছে সাত হাজার ৫৬৯ জনের।