লক্ষ্মীপুরে ৫টি ঘূর্ণিঝড় আশ্রয়কেন্দ্রের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী


314 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
লক্ষ্মীপুরে ৫টি ঘূর্ণিঝড় আশ্রয়কেন্দ্রের উদ্বোধন করলেন প্রধানমন্ত্রী
অক্টোবর ১৩, ২০১৬ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক :
লক্ষ্মীপুরের মেঘনা উপকূলীয় এলাকায় ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে ৫টি ঘুর্ণিঝড় আশ্রয়কেন্দ্রের উদ্বোধন করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আন্তর্জাতিক দুর্যোগ প্রশমন দিবস উপলক্ষে বৃহস্পতিবার বেলা ১১টায় জেলার রামগতি ও কমলনগর উপজেলায় দুটি করে চারটি ও রায়পুর উপজেলায় একটি আশ্রয়কেন্দ্রের উদ্ধোধন করেন প্রধানমন্ত্রী।

এদিকে, দিবসটি উপলক্ষে জেলা শহর ও কমলনগরে পৃথক র‌্যালি অনুষ্ঠিত হয়েছে। এছাড়া প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে অংশ নিতে সংশ্লিষ্ট এসব এলাকার বাসিন্দারা ও স্থানীয় প্রশাসন অধীর আগ্রহে অপেক্ষ করতে দেখা যায়।

উপকূলীয় চলাঞ্চলের বাসিন্দারা তাদের কাঙ্ক্ষিত আশ্রয়কেন্দ্র পেয়ে উচ্ছ্বাস প্রকাশ করেছেন। একই সঙ্গে দুর্যোগ ঝুঁকি থেকে রক্ষা ও জরাজীর্ণ শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা নতুন ভবনে শিক্ষা কার্যক্রম পরিচালনা করতে পারছেন জানিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে অভিনন্দন জানান তারা।

শহিদ নগর উচ্চ বিদ্যালয় বহুমুখী ঘূর্ণিঝড় আশ্রয়কেন্দ্র

জেলা ত্রাণ ও পূণর্বাসন কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা অধিদপ্তরের অর্থায়ণে প্রায় ৮ কোটি ৬০ লাখ টাকা ব্যয়ে এই ৫টি আশ্রয়কেন্দ্র নির্মাণ করা হয়েছে। তিনতলা বিশিষ্ট এসকল আধুনিক বহুমুখী ঘূর্ণিঝড় আশ্রয়কেন্দ্রের প্রতিটিতে কমপক্ষে প্রায় ১ হাজার মানুষ আশ্রয় নিতে পারবেন। তবে দুর্যোগ মুহূর্ত ছাড়া অন্য সময়ে এগুলো বিদ্যালয়ের ভবন হিসাবে ব্যবহৃত হবে।

উদ্বোধনকৃত আশ্রয় কেন্দ্রগুলো হলো কমলনগরের তোরাবগঞ্জ উচ্চ বিদ্যালয় বহুমুখী ঘূর্ণিঝড় আশ্রয়কেন্দ্র, শহিদ নগর উচ্চ বিদ্যালয় বহুমুখী ঘূর্ণিঝড় আশ্রয়কেন্দ্র, রামগতির চর আফজাল আজাদ মেমোরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয় বহুমুখী ঘূর্ণিঝড় আশ্রয়কেন্দ্র, আজাদনগর মালেক মোল্লা উচ্চ বিদ্যালয় বহুমুখী ঘূর্ণিঝড় আশ্রয়কেন্দ্র এবং রায়পুরের দারুল ইসলামিয়া দাখিল মাদরাসা বহুমুখী ঘূর্ণিঝড় আশ্রয়কেন্দ্র।