লবণের কোনো ঘাটতি নেই : বিসিক


295 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
লবণের কোনো ঘাটতি নেই : বিসিক
আগস্ট ২৬, ২০১৮ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::
বাংলাদেশ ক্ষুদ্র ও কুটির শিল্প করপোরেশন (বিসিক) জানিয়েছে, দেশে এখন লবণের কোনো ঘাটতি নেই। বর্তমানে যে পরিমাণ মজুদ রয়েছে, তাতে চাহিদার পুরোটাই মেটানো সম্ভব। এদিকে ঈদুল আজহার আগে ঘাটতির অজুহাত দেখিয়ে ব্যবসায়ীরা প্রতি বস্তা সাধারণ লবণের দাম ২০০ টাকা পর্যন্ত বাড়িয়েছেন বলে অভিযোগ করেছেন এ ধরনের লবণের বড় গ্রাহক চামড়া ব্যবসায়ীরা। এ নিয়ে গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশের পরিপ্রেক্ষিতে শুক্রবার বিসিক এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে লবণের কোনো ঘাটতি নেই বলে জানায়। ফলে লবণের দাম বাড়ারও কোনো কারণ নেই বলে মনে করেন এ সংস্থার কর্মকর্তারা।

বিসিকের বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, এবারের মৌসুমে (গত বছরের নভেম্বর থেকে চলতি বছরের মে পর্যন্ত) মোট ১৪ লাখ ৯৩ হাজার টন লবণ উৎপাদন হয়েছে। এ ছাড়া আগের মৌসুমের আড়াই লাখ টন মজুদ রয়েছে। ফলে উৎপাদিত ও আগের বছরের মজুদকৃত মোট লবণের পরিমাণ দাঁড়িয়েছে ১৭ লাখ ৪৩ হাজার টন। দেশে প্রতি মাসে গড়ে এক লাখ ৩৫ হাজার টন করে লবণের চাহিদা রয়েছে। এতে সারা বছরে চাহিদা ১৬ লাখ ২০ হাজার টন। গত মে থেকে চলতি মাস পর্যন্ত ৫ লাখ ৪০ হাজার টন লবণ ব্যবহার হয়েছে। বর্তমানে মজুদ আছে ১২ লাখ ৩ হাজার টন।

চামড়া ব্যবসায়ীদের তথ্যমতে, এ বছর ঈদুল আজহায় সারাদেশে গরু, ছাগলসহ প্রায় এক কোটি ১৫ লাখ পিস বিভিন্ন পশুর চামড়া হবে। এ বিপুল চামড়া সংরক্ষণে প্রচুর লবণের প্রয়োজন হয়। চামড়া ব্যবসায়ীরা জানান, প্রতিবছর কোরবানির পশুর চামড়া সংরক্ষণের আগে ঘাটতি দেখিয়ে বাড়তি দামে লবণ বিক্রি করে কিছু অসাধু চক্র। এবারও এর ব্যতিক্রম হয়নি। গত এক সপ্তাহের ব্যবধানে প্রতি বস্তা (৭৫ কেজি) লবণের দাম বেড়েছে ২০০ টাকা। এ দর বৃদ্ধির পরে প্রতি কেজি সাধারণ লবণ ১৩ থেকে ১৪ টাকায় বিক্রি হচ্ছে।