লবন সহনশীল ধান চাষের ফলাফল উপস্থাপনে কৃষক মাঠ দিবস


695 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
লবন সহনশীল ধান চাষের ফলাফল উপস্থাপনে কৃষক মাঠ দিবস
এপ্রিল ১২, ২০১৭ ফটো গ্যালারি শ্যামনগর
Print Friendly, PDF & Email

বোরো মৌসুমে লবন সহনশীল ধান চাষের ফলাফল উপস্থাপনে গতকাল উপকূলীয় শ্যামনগর উপজেলার মুন্সিগঞ্জের কদমতলা গ্রামে অনুষ্ঠিত হয়েছে কৃষক মাঠ দিবস। বেসরকারী উন্নয়ন সংগঠন লিডার্স এর সহযোগিতায় কৃষক মাঠ দিবসে শ্যামনগর উপজেলা কৃষিকর্মকর্তা, সাংবাদিক, শিক্ষক, শিক্ষার্থী, লিডার্স এর কর্মকর্তা সহশতাধিক কৃষক-কৃষাণী অংশগ্রহন করেন। কৃষক তপন কুমার মন্ডলের সভাপতিত্বে শুরু হয় সকল অংশগ্রহনকারীসহ কৃষকের ধান চাষের সফলতা পরিদর্শন এবং আলোচনা সভা।
“এক সময় এই জমি পতিত ছিল। নোনার কারনে বছরে ১ বার ছাড়া ধান চাষ করা যেতনা। ২০১৬ সালে এক জন কৃষক ঝূঁকি নিয়ে বোরো ধান চাষ করে কিছুটা সফল হয়। এরপর লিডার্স এখানকার জমির মাটি ও পানি পরীক্ষা করে। পানিতে ৬ পিপিটি লবনের পরিমান পাওয়া যায়। লিডার্স ৬ পিপিটি লবনপানি সেচ দিয়ে বোরো মৌসুমে লবনসহনশীল বিনা ১০ ও ব্রি ৪৭ চাষের পরামর্শ দেন। কৃষকেরা আগ্রহ করলে লিডার্স স্যালো মেশিন বসিয়ে দেয় এবং বীজ সহায়তা করে। এ বছর আমরা প্রায় ১৭ জন কৃষক ১৮ বিঘা জমিতে ধান চাষ করে বিঘা প্রতি ২৫ মণ ফলন পেয়েছি। এখন গ্রামের অনেকে আগ্রহী। তারাও আগামী বছর থেকে বোরো মৌসুমে ধান চাষ করবে ”-বোরো মৌসুমে লবনসহনশীল ধান চাষের ফলাফল উপস্থাপনের মাঠ দিবসে এভাবেই নিজের অভিজ্ঞতা সহভাগিতা করেন উপকূলীয় শ্যামনগর উপজেলার মুন্সিগঞ্জের কদমতলা গ্রামের কৃষক দেব দুলাল কুমার মন্ডল।

উক্ত কৃষক মাঠ দিবসে একই গ্রামের কৃষাণী ববিতা রানী মন্ডল বলেন,“লিডার্স এর সহায়তা ও পরামর্শে লবনাক্ত মাটি-পানিতে ধান চাষ করে আমরা সফল। পরিবারের খাবারের চিন্তা থাকবে না। গবাদি পশুরখাদ্য সংকট হবেনা, জ¦ালানীর চাহিদা পূরন হবে। এভাবে একই জমিতে বছরে ২ বার ধান চাষ করে আমরা টিকে থাকতে পারব। আমাদের পথ অনুসরণ করে অন্য কৃষক পরিবার ও সুখে থাকতে পারবে। তাহলে, পরিবার রেখে এলাকা ছেড়ে কাজের জন্য বাইরে যেতে হবেনা”।

মাঠ দিবসের প্রধান অতিথি শ্যামনগর উপজেলা কৃষি অফিসার মো: আবুল হোসেন বলেন,“লবন মাটিতে লবনপানি সেচ দিয়ে বোরো ধান চাষ করে আসলেই কৃষকেরা সফল হয়েছেন। লিডার্স এরসহায়তায় আরো অনেক কৃষক এভাবেই নিজেদের খাদ্য চাহিদা পূরন করে দেশকে সমৃদ্ধ করবে। তিনি সকল কৃষকদের ধান কাটার পরামর্শ দেন”।
লবনাক্ত মাটি ও পানিতে বোরো ধান চাষের সফল সক্ষমতা অর্জন করেছে উপকূলীয় কৃষক। এক সময় যে জমি লবনাক্ততায় পতিত থাকত, সেই জমিতে ধান চাষ করে স্বপ্ন পূরন হয়েছে কৃষকের।

প্রেস বিজ্ঞপ্তি