শপথ নিলেন মন্ত্রিপরিষদের ২৪ মন্ত্রী


232 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
শপথ নিলেন মন্ত্রিপরিষদের ২৪ মন্ত্রী
জানুয়ারি ৭, ২০১৯ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::

মন্ত্রিপরিষদের পূর্ণমন্ত্রীরা শপথ নিয়েছেন। সোমবার বিকেলে সাড়ে ৩টায় এ শপথ অনুষ্ঠান শুরু হয়। বঙ্গভবনের দরবার হলে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ মন্ত্রীদের শপথ পড়ান।

সংবিধান অনুযায়ী, নতুন এই মন্ত্রিসভার শপথের মধ্য দিয়ে দেশের নতুন সরকার গঠন হলো। নতুন মন্ত্রিসভা শপথ নেওয়ার মাধ্যমে আগের মন্ত্রিসভা স্বয়ংক্রিয়ভাবেই বাতিল হলো।

নতুন মন্ত্রিসভায় মন্ত্রী হিসেবে যারা শপথ নিয়েছেন, তারা হলেন- মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ. ক. ম. মোজাম্মেল হক (গাজীপুর-১); সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের (নোয়াখালী-৫); কৃষিমন্ত্রী ড. আবদুর রাজ্জাক (টাঙ্গাইল-১); স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল (ঢাকা-১২); তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ (চট্টগ্রাম-৭); আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রী অ্যাডভোকেট আনিসুল হক (ব্রাহ্মণবাড়িয়া-৪); অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল লোটাস (কুমিল্লা-১০); স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায়মন্ত্রী:তাজুল ইসলাম (কুমিল্লা-৯); শিক্ষামন্ত্রী ডা. দীপু মনি (চাঁদপুর-৩); পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন (সিলেট-১); পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নান (সুনামগঞ্জ-৩); শিল্পমন্ত্রী নূরুল মজিদ মাহমুদ হুমায়ুন (নরসিংদী-৪); বস্ত্র ও পাটমন্ত্রী গোলাম দস্তগীর গাজী বীরপ্রতীক (নারায়ণগঞ্জ-১); স্বাস্থ্য ও পরিবারকল্যাণমন্ত্রী জাহিদ মালেক স্বপন (মানিকগঞ্জ-৩); খাদ্যমন্ত্রী সাধন চন্দ্র মজুমদার (নওগাঁ-১); বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি (রংপুর-৪); সমাজকল্যাণমন্ত্রী নূরুজ্জামান আহমেদ (লালমনিরহাট-২); গৃহায়ন ও গণপূর্তমন্ত্রী অ্যাডভোকেট শ. ম. রেজাউল করিম (পিরোজপুর-১); পরিবেশ, বন ও জলবায়ু পরিবর্তন মন্ত্রী শাহাব উদ্দিন (মৌলভীবাজার-১); পার্বত্য চট্টগ্রামবিষয়ক মন্ত্রী বীর বাহাদুর উ শৈ সিং (বান্দরবান); ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী জাবেদ (চট্টগ্রাম-১৩); রেলপথমন্ত্রী নূরুল ইসলাম সুজন (পঞ্চগড়-২); বিজ্ঞান ও প্রযুক্তিমন্ত্রী স্থপতি ইয়াফেস ওসমান (টেকনোক্র্যাট) এবং ডাক, টেলিযোগাযোগ ও তথ্যপ্রযুক্তিমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার (টেকনোক্র্যাট)।

এই শপথের মধ্যে দিয়েই টানা তৃতীয়বারের মত রাষ্ট্র পরিচালনার দায়িত্ব নিল আওয়ামী লীগ। আর আওয়ামী লীগ সভাপতি শেখ হাসিনা চতুর্থ মেয়াদে বাংলাদেশের সরকারপ্রধানের দায়িত্ব নিয়ে গড়লেন ইতিহাস। ঐতিহাসিক এ নবযাত্রায় নতুনদের প্রতি আস্থা রাখলেন আওয়ামী লীগ সভাপতি, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এবারের ৪৭ জনের মন্ত্রিসভায় ২৭ জনই নতুন মুখ।

গত ৩০ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে নিরঙ্কুশ সংখ্যাগরিষ্ঠতা লাভ করে আওয়ামী লীগ। নির্বাচনে ২৯৮টি আসনের মধ্যে ২৫৬টিতেই জয় পায় ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ। মহাজোট পায় ২৮৮টি। যার মধ্যে জাতীয় পার্টি ২২টি, জাসদ তিনটি, ওয়ার্কার্স পার্টি তিনটি, বিকল্পধারা দুটি, তরীকত ফেডারেশন একটি ও বাংলাদেশ জাসদের একটি আসন রয়েছে। অন্যদিকে, বিএনপি ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট মাত্র সাতটি আসন পায়। স্বতন্ত্র প্রার্থীরা জিতেছেন তিনটি আসনে।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের এমপিরা ছাড়া নবনির্বাচিত সব এমপিই শপথ নেন। বৃহস্পতিবার আওয়ামী লীগ সংসদীয় দলের বৈঠকে দলীয় প্রধান শেখ হাসিনা সংসদ নেতা নির্বাচিত হন। পরে রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ সংখ্যাগরিষ্ঠ দলের নেতা হিসেবে শেখ হাসিনাকে সরকার গঠনের আমন্ত্রণ জানান।

এর আগে ২০১৪ সালের ৫ জানুয়ারি বিএনপি জোটের বর্জনের মধ্যেই দশম জাতীয় সংসদের নির্বাচন হয়। ১২ জানুয়ারি গঠিত হয় নতুন মন্ত্রিসভা। ওই সময় শেখ হাসিনাকে প্রধানমন্ত্রী করে ৪৮ সদস্যের নতুন মন্ত্রিসভা গঠন করা হয়। ওই সরকারে প্রধানমন্ত্রী ছাড়া ২৯ জন মন্ত্রী, ১৭ প্রতিমন্ত্রী এবং দু’জন উপমন্ত্রী ছিলেন। পরে কয়েক দফা মন্ত্রিসভায় রদবদল আনা হলে শেষ পর্যন্ত মন্ত্রিসভার আকার দাঁড়ায় ৫২ সদস্যের। তবে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের আগে টেকনোক্র্যাট তিন মন্ত্রীকে বাদ দেওয়া হয়।