শপথ নিলেন মাহাথির মোহাম্মদ


331 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
শপথ নিলেন মাহাথির মোহাম্মদ
মে ১০, ২০১৮ প্রবাস ভাবনা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

এস কে সেকেন্দার আলী, মালয়েশিয়া  ::
মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিয়েছেন মাহাথির মোহাম্মদ। এর মধ্য দিয়ে বিশ্বের সবচেয়ে বেশি বয়সী প্রধানমন্ত্রী হলেন তিনি।

মালয়েশিয়ার স্থানীয় সময় বৃহস্পতিবার রাত ৯টা ৫৭ মিনিটে দেশটির রাজা সুলতান মুহাম্মদ তার প্রাসাদ ইসতানা নেগারাতে মাহাথির মোহাম্মদকে শপথ করান বলে দেশটির সংবাদ মাধ্যম স্টার অনলাইনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে।

বুধবার মালয়েশিয়ার ১৪তম সাধারণ নির্বাচনের ভোট গ্রহণ সম্পন্ন হয়। পরে গভীর রাতে মাহাথিরের জোটকে জয়ী ঘোষণা করে নির্বাচন কমিশন।

ঘোষিত ফল অনুযায়ী, ৯২ বছর বয়সী মাহাথির মোহাম্মদের নেতৃত্বাধীন বিরোধী জোট পাকাতুন হারাপান পায় ১২৬টি আসন।

দেশটিতে স্বাধীনতার পর থেকেই ক্ষমতায় থাকা তারই সাবেক দল বারিসান ন্যাশনাল কোয়ালিশন এই প্রথমবারের মতো নির্বাচনে হেরে যায়। সরকার গঠনে তাদের দরকার ছিল ১১২টি আসন। কিন্তু তারা পায় ৮৮ আসন।

এর পরপরই সরকার গঠনের জন্য মাহাথির মোহাম্মদকে আমন্ত্রণ জানান দেশটির রাজা। আর বৃহস্পতিবার রাতে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ গ্রহণের মধ্য দিয়ে আবারও দেশটির ক্ষমতায় ফিরলেন মাহাথির।

এর আগে দুই দশকেরও বেশি সময় মালয়েশিয়ার শাসন ক্ষমতায় ছিলেন মাহাথির। ১৯৮১ সাল থেকে ২০০৩ সাল পর্যন্ত টানা ২২ বছর প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব পালনের পর অবসরে যান তিনি। তার আমলেই দেশটি অর্থনৈতিক উন্নয়নের শীর্ষে পৌঁছে।

বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, মাহাথিরেরই একসময়ের শিষ্য, যার কাছে তিনিই ক্ষমতা হস্তান্তর করেছিলেন, সেই নাজিব রাজাকের দুর্নীতি আর স্বজনপ্রীতির কারণে ক্ষুব্ধ হয়ে অবসর জীবন থেকে আবার রাজনীতিতে সক্রিয় হন মাহাথির।

অবশ্য সাংবাদিকদের তিনি বলেছেন, ‘আমরা প্রতিশোধ নিতে চাই না, আমরা শুধুমাত্র আইনের শাসন পুনর্বহাল করতে চাই।’

১৯৫৭ সালে ব্রিটেনের কাছ থেকে স্বাধীনতা পাওয়ার পর থেকেই দেশটিতে ক্ষমতায় ছিল বোরিসান ন্যাশনাল। ২০১৩ সালেও বিরোধীরা অনেক ভোট পেয়েছিল, কিন্তু সরকার গঠনের জন্য পর্যাপ্ত আসন পায়নি।

২০১৬ সালে বোরিসান জোট ত্যাগ করে আলাদা দল গঠন করেন মাহাথির মোহাম্মদ। পরে তিনি বিরোধীদের নিয়ে জোট গঠন করেন।