শরিকদের ৫৯ আসন ছাড়ল বিএনপি


230 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
শরিকদের ৫৯ আসন ছাড়ল বিএনপি
ডিসেম্বর ৯, ২০১৮ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::

২০০১ এবং ২০০৮ সালে শরিকদের ৪০টি আসন ছেড়েছিল বিএনপি। এবার দুই জোটের শরিকদের ছেড়েছে ৫৯ আসন।

শরিকদের মধ্যে নিবন্ধন হারানো জামায়াতে ইসলামীকে সর্বোচ্চ ২২টি আসন ছাড়া হলেও এতে সন্তুষ্ট নয় দলটি।

এবারের নির্বাচনে বিএনপির দলীয় প্রার্থী থাকছে ২৪১ আসনে। ৫৯ আসন পাওয়া বিএনপির শরিকরা একটি বাদে বাকিগুলো লড়বে ধানের শীষ প্রতীকে। এ হিসেবে আসন্ন নির্বাচনে ২৯৮ টি আসনে থাকছে বিএনপির ধানের শীষ।

কক্সবাজার-২ আসনে জামায়াত নেতা হামিদুর রহমান আযাদ স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন। তাকে সমর্থন দিয়ে বিএনপি প্রার্থী প্রত্যাহার করেছে।

দুই জোট জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট এবং ২০ দলীয় জোটের আটটি নিবন্ধিত দলকে ২৭টি আসন ছেড়েছে বিএনপি। অনিবন্ধিত সাতটি দলকে ছেড়েছে ৩২ আসন।

চট্টগ্রাম-১৪ আসলে এলডিপি সভাপতি কর্ণেল (অব.) অলি আহমেদ ব্যতিত নিবন্ধিত দলগুলোর ২৬ প্রার্থী লড়বেন ধানের শীষ প্রতীকে। তাদের ধানের শীষ প্রতীক দিতে নির্বাচন কমিশনে (ইসি) চিঠি দিয়েছে বিএনপি। অলি আহমদে ভোট করবেন এলপিডির ছাতা প্রতীকে।

নিবন্ধিত দলগুলোর মধ্যে ঐক্যফ্রন্ট শরিক গণফোরাম ৭, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগ ও জেএসডি ৪টি করে আসন পেয়েছে। ঐক্যফ্রন্টের অনিবন্ধিত দল নাগরিক ঐক্য পেয়েছে ৪টি আসন। সবমিলিয়ে ঐক্যফ্রন্ট শরিকদের ১৯টি আসন ছেড়েছে বিএনপি। এ দলগুলোর সব প্রার্থীরা ধানের শীষ প্রতীকে ভোট করবেন।

বিএনপি তার নেতৃত্বাধীন ২০ দলের সাত শরিককে ছেড়েছে ৪০ আসন। নিবন্ধিত পাঁচটিকে ১২ আসন ছেড়েছে দল। এলডিপি ৫, জমিয়তে উলামায়ে ইসলাম ৩, খেলাফত মজলিশ ২, কল্যাণ পার্টি ও বিজেপি ১টি করে আসন পেয়েছে। ২০ দলীয় জোটের নিবন্ধিত দুই শরিক মুসলিম লীগ ও জাগপা কোনো আসন পায়নি।

২০ দলীয় জোটের অনিবন্ধিত ছয়টি দল পেয়েছে ২৮ আসন। জামায়াত ২২, জাতীয় পার্টি (জাফর) ২ এবং জমিয়ত (ওয়াক্কাস), এনপিপি, লেবার পার্টি ও পিপিবি ১টি করে আসন পেয়েছে। জোটের অনিবন্ধিত ৯টি দল আসন পায়নি।