‘শর্ট ফিল্ম নির্মাণের কর্মশালা শিশুদের মানুষ তৈরীতে সাহায্য করবে’


350 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
‘শর্ট ফিল্ম নির্মাণের কর্মশালা শিশুদের মানুষ তৈরীতে সাহায্য করবে’
নভেম্বর ২১, ২০১৬ ফটো গ্যালারি বিনোদন
Print Friendly, PDF & Email

আমিনা বিলকিস ময়না :
এক মিনিটের চলচ্চিত্র নির্মাণের এই কর্মশালা শিশুদের অনেকদুর এগিয়ে নিয়ে যেতে সাহায্য করবে। আজকে যারা সাতক্ষীরাসহ দেশের সংস্কৃতির বিভিন্ন অঙ্গনে প্রতিষ্ঠিত তারাও এধরনের কর্মশালার সুযোগ পায়নি। দেশের দক্ষিণ-পশ্চিম উপকুলীয় জেলার প্রান্তসীমায় দাঁড়িয়ে এরকম কর্মশালার পঁচিশ শিশুর মধ্যে কেউ না কেউ তারেক মাসুদের মতো হবে এটাই কাম্য।
সাতক্ষীরার শিল্পকলা একাডেমিতে ১২-১৮ বছর বয়সী শিশু-কিশোরদের অংশগ্রহনে ৪ দিনব্যাপী এক মিনিটের চলচ্চিত্র নির্মাণ কর্মশালার ২য় দিন সোমবার বিকালে পরিদর্শনে এসে পরিদর্শক ও অতিথিরা এসব কথা বলেন।
রোববার বেলা ১১টায় সাতক্ষীরা শিল্পকলা একাডেমীতে বাংলাদেশ শর্ট ফ্লিম ফোরামের আয়োজনে এবং বাংলাদেশ শিল্প একাডেমী ও ইউনেসেফ’র সহযোগীতায় জেলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ২৫জন  শিক্ষার্থীদের নিয়ে এ কর্মশালা শুরু হয়। কর্মশালার স্থানীয় সমন্বয়ক ও বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম’র সাতক্ষীরা প্রতিনিধি শরীফুল্লাহ কায়সার সুমন কর্মশালায় সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সংক্ষিপ্ত আলোচনা করেন সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবের সভাপতি আবুল কালাম আজাদ, বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমীর জেলা কমিটির সদস্য সচিব, সঙ্গীত শিল্পী শামিমা পারভিন রতœা, শেখ মোসফিকুর রহমান মিল্টন, চলচ্চিত্র নির্মাতা জহিরুল ইসলাম, কর্মশালার প্রধান প্রশিক্ষক মোহাঃ আসাবুল হক নান্নু, মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের সাতক্ষীরা জেলা নেটওয়ার্ক শিক্ষক গাজী মোমিনউদ্দীন, প্রধান শিক্ষক শিখা রাণী চৌধুরী, শামিমা আক্তার লিপি প্রমুখ।
অতিথিরা বলেন, আজ যারা এই কর্মশালায় উপস্থিত হয়েছে তারা অনেক  সৌভাগ্যবান। বড় বড় গুণী মানুষ যারা দেশের শিল্প-সাহিত্যে বড় ভূমিকা রেখেছে তারা কখনও এই রকম কোন কর্মশালায় অংশ গ্রহণ করার সুযোগ পায়নি। তারা কাজের মাধ্যমে নিজের প্রমাণ করেছে। এক মিনিটের চলচ্চিত্রের মাধমে নিজেকে বিশ্বের দরবারে প্রমাণ করা সম্ভব হবে। প্রশিক্ষণ নিয়ে চলে গেলে হবে না। নিয়মিত চর্চা করতে হবে। সবার আগে নিজেকে বাঙ্গালি হিসেবে গড়ে তুলতে হবে। নিজের মধ্যে দেশপ্রেম থাকতে হবে। দেশের জন্য ভূমিকা রাখার বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে।