‘‘শান্তি প্রতিষ্ঠা ও সামাজিক সক্ষমতা বৃদ্ধিতে যুব সমাজ, শিক্ষক ও গণমাধ্যমের ভূমিকা’’ শীর্ষক বিতর্ক প্রতিযোগিতা


567 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
‘‘শান্তি প্রতিষ্ঠা ও সামাজিক সক্ষমতা বৃদ্ধিতে যুব সমাজ, শিক্ষক ও গণমাধ্যমের ভূমিকা’’ শীর্ষক বিতর্ক প্রতিযোগিতা
মার্চ ২০, ২০১৭ আশাশুনি ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

মাসুদুর রহমান মাসুদ, আশাশুনি ::

আশাশুনিতে ‘‘শান্তি প্রতিষ্ঠা ও সামাজিক সক্ষমতা বৃদ্ধিতে যুব সমাজ, শিক্ষক ও গণমাধ্যমের ভূমিকা’’ শীর্ষক বিতর্ক প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। আশাশুনি সরকারি কলেজ ও গাজীপুর কুড়িগ্রাম আলিম মাদরাসার শিক্ষার্থীদের অংশগ্রহণে সোমবার সকালে আশাশুনি কলেজ হল রুমে এ প্রতিযোগিতা অনুষ্ঠিত হয়।

প্রতিযোগিতায় ‘‘উগ্রতা ও সহিংসতা মুক্ত সমাজ গঠনে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের ভূমিকাই প্রধান’’ বিষয়ের পক্ষে গাজীপুর মাদরাসার বিতার্কিক ও বিপক্ষে আশাশুনি সরকারি কলেজের বিতার্কিকরা যুক্তিতর্ক উপস্থাপন করেন।

প্রতিযোগিতায় আশাশুনি কলেজ বিজয়ী হয়। শ্রেষ্ঠ বক্তা নির্বাচিত হয় বিজয়ী দলের দলনেতা তানজির আহম্মেদ। বাংলাদেশ এন্টারপ্রাইজ ইন্সটিটিউট এর আয়োজনে অনুষ্ঠিত প্রতিযোগিতায় মডারেটর হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন

সহকারী অধ্যাপক সুশীল কুমার মন্ডল, বিচারক হিসেবে ছিলেন আশাশুনি প্রেসক্লাব উপদেষ্টা একেএম এমদাদুল হক, গুনাকরকাটি মাদরাসার ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ মাওঃ আবু তাহের এবং হাজী জালাল উদ্দীন কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ জালাল উদ্দীন ফারুক।

সভাপতির দায়িত্ব পালন করেন আশাশুনি সরকারি কলেজের সহকারী অধ্যাপক কৃষ্ণপদ মন্ডল। এসময় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সহকারী অধ্যাপক তৃপ্তি রঞ্জন সাহা, প্রভাষক ইছহাক আলী, সজল কুমার আঢ্য, মাহমুদুল ইসলাম,

মিজানুর রহমান, মাসুদুর রহমান মাসুদ, আক্তারুজ্জামান প্রিন্স, জহুরুল ইসলাম, ছন্দা রানী মন্ডল, শিক্ষক রনজিত কুমার স্বর্ণকার প্রমুখ।
##