শিক্ষা সহায়ক স্বপ্নপুরণের উদ্যোগে দরিদ্র ও কর্মহীন পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ


579 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
শিক্ষা সহায়ক স্বপ্নপুরণের উদ্যোগে দরিদ্র ও কর্মহীন পরিবারের মাঝে খাদ্য সামগ্রী বিতরণ
মে ৪, ২০২১ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

॥ শাহিদুর রহমান ॥

নোভেল করোনাভাইরাস সংক্রামন রোধে ঘোষিত ‘‘ঘরে থাকুন নিরাপদে থাকুন’’ সামাজিক দুরত্ব বজায় রাখতে সংকটকালীন সময়ে দরিদ্র ও কর্মহীন পরিবারের মৌলিক চাহিদার অংশ হিসাবে নিত্য প্রয়োজনীয় খাদ্যসামগ্রী সাহায্যে প্রদানে এগিয়ে এসেছে সমাজের দরিদ্র ও অসহায় ঝরেপড়া শিক্ষার্থীদের নিয়ে কাজ করা (সামাজিক সংগঠন) শিক্ষা সহায়ক স্বপ্নপুরণ।

মঙ্গলবার বেলা ১১টায় ঘরে ঘরে খাদ্যসামগ্রী বিতরণ কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন শিক্ষা সহায়ক স্বপ্নপুরণ সংগঠনের আহবায়ক কুয়েটের সিভিল বিভাগের অধ্যাপক ড. মো. রাফিজুল ইসলাম। তিনি সকলের উদ্দেশ্যে বলেন নিজেদের পরিবার পরিজনের জন্য হলেও নিজ গৃহে অবস্থান করুন। জরুরী প্রয়োজনে বাইরে বের হলে সামাজিক দুরত্ব বজায় রেখে চলার জন্য আহবান জানিয়ে স্বচ্ছল ও বৃত্তবানদের এ সময়ে অসহায় মানুষের সাহায্যে এগিয়ে আসার অনুরোধ জানান।

শিক্ষা সহায়ক স্বপ্নপূরণের মূল উদ্দেশ্য অসহায়, দরিদ্র এবং মেধাবী ছাত্র-ছাত্রীদের শিক্ষায় সহায়তা করা। তারই ধারাবাহিকতায় এবারও কয়েকজন এসএসসি পরীক্ষার্থী রেজিস্ট্রেশন ফি সহ অন্যান্য সুযোগ-সুবিধা দেওয়া হয়। তাছাড়া করোনার এই প্রাদুর্ভাবে অসহায় দরিদ্র মানুষের মাঝে পূর্বের ন্যায় এবারও খাদ্য সামগ্রী উপহার হিসেবে বিতরণ এর সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

কুয়েট ও কুয়েট সংলগ্ন এরিয়ায় পবিত্র মাহে রমজান ও আসন্ন ঈদুল ফিতর উপলক্ষে ৩৩০ টি পরিবারের মধ্যে খাদ্য সামগ্রী হিসেবে পোলাও চাউল, তেল, আলু, সেমাই, চিনি, ছোলা, মুড়ি, লাচ্ছা ইত্যাদি উপহার হিসেবে বিতরণ করা হয়।

প্রোগ্রামটি সুন্দর ও সাফল্যমন্ডিত করতে সর্বদা সহযোগিতা করেন শিক্ষা সহায়ক স্বপ্নপূরণের উদ্যোক্তা সোনালী বিনতে শরীফ।

শিক্ষা সহায়ক স্বপ্নপূরণের আহ্বায়ক সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্টের বিভিন্ন গ্রাজুয়েট এবং তার রিসার্চ গ্রুপের ছাত্রছাত্রী যাহারা দেশ-বিদেশ হতে অর্থ ও পরামর্শ দিয়ে সহযোগিতা করেছেন তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন। তাদের সহযোগিতায় প্রথম পর্বের খাদ্য বিতরণ কর্মসূচি সম্পন্ন করা হয়েছে এবং দ্বিতীয় পর্বের খাদ্য বিতরণ কর্মসূচি আগামী ১১ ই মে ২০২১ অনুষ্ঠিত হইবে।

উক্ত প্রোগ্রামটি সফল ও সাফল্যমণ্ডিত করতে সার্বিক সহযোগিতা করেন প্রফেসর এ এন এম এনামুল কবীর, প্রফেসর ড. কাজী এবিএম মহিউদ্দিন, প্রফেসর ড. মোঃ জহির উদ্দিন, প্রফেসর ড. পল্লব কুমার চৌধুরী, প্রফেসর ড. সজল কুমার অধিকারী, প্রফেসর ড. ইসমাইল সাইফুল্লাহ, সহযোগী অধ্যাপক মীর আব্দুল কুদ্দুস, সহযোগী অধ্যাপক ড. পারভেজ আহমেদ, সহকারি অধ্যাপক ঝুমানা আক্তার, সহকারি অধ্যাপক মাহজাবিন আফরোজ, ইঞ্জিনিয়ার প্রতাপ কুমার ঘোষ, ইঞ্জিনিয়ার অর্পিতা উর্মি লাজ, ইঞ্জিনিয়ার তানজিয়া মাহজাবিন তৃণা,ইঞ্জিনিয়ার মোঃ আসাদুজ্জামান আসাদ, ইঞ্জিনিয়ার মোঃ মতিউর রহমান, ইঞ্জিনিয়ার মোঃ হাসিবুর রহমান লিমন, ইঞ্জিনিয়ার তাহিয়া রাব্বি, ইঞ্জিনিয়ার হোসাইন মোহাম্মদ এরশাদ,ইঞ্জিনিয়ার মাহমুদুল হাসান রানা, ইঞ্জিনিয়ার মোঃ মনিরুল ইসলাম, ইঞ্জিনিয়ার মোঃ অলিউল ইসলাম,ইঞ্জিনিয়ার অনিমেষ চন্দ্র রায়, ইঞ্জিনিয়ার সানজিদা খায়ের, ইঞ্জিনিয়ার মোঃ মোস্তাফিজুর রহমান, ইঞ্জিনিয়ার মোঃ খায়রুল ইসলাম, ইঞ্জিনিয়ার মোঃ মেহেদী হাসান ইমন, ইঞ্জিনিয়ার রুখসানা পারভীন হেলেন, ইঞ্জিনিয়ার মোঃ মতিউর রহমান, ইঞ্জিনিয়ার দেবতোষ পার্থ বনিক, ইঞ্জিনিয়ার পঙ্কজ কুমার মহন্ত, ইঞ্জিনিয়ার এস এম রাফিউ, আয়েশা সিদ্দিকা, মোঃ রাকিব হাসান, এস এম সাইফুল্লাহ পলাশ, মোঃ আসাদুজ্জামান, পারভেজ আলম, মোঃ শফিক উদ্দিন,ইমতিয়াজ আহমেদ, মোঃ আমিন উদ্দিন, কাউছার আহমেদ, রহিমা জামান প্রমুখ।

#