শিশুদের দু’ঘন্টা রৌদ্রে দাঁড় করিয়ে রেখে, ছবি তুলে একটি চকলেট দিয়ে বিদায় ! সাসের বিরুদ্ধে শ্যামনগরে ক্ষোভ


800 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
শিশুদের দু’ঘন্টা রৌদ্রে দাঁড় করিয়ে রেখে, ছবি তুলে একটি চকলেট দিয়ে বিদায় ! সাসের বিরুদ্ধে শ্যামনগরে ক্ষোভ
সেপ্টেম্বর ৮, ২০১৫ ফটো গ্যালারি শিক্ষা শ্যামনগর
Print Friendly, PDF & Email

এস কে সিরাজ, শ্যামনগর ব্যুরো :
শ্যামনগরে নামমাত্র স্বাক্ষরতা দিবস পালন নিয়ে সব মহলে চলছে ক্ষোভ । মঙ্গলবার সাস এনজিওর অর্থায়নে  শ্যামনগর উপজেলা প্রসাশন এর আয়োজনে নামমাত্র স্বাক্ষরতা দিবস পালন করা হয়েছে ।

সকালে স্বাক্ষরতা দিবস পালনের নামে মোবাইল আর ক্যামেরায় ছবি তুলে দিবসের ইতি টানা হয়।  পরে উপজেলা অডিটোরিয়াম কক্ষে শ্যামনগর মাধ্যমিক  কর্মকর্তা মোঃ রবিউল ইসলাম,আর প্রাথমিক কর্মকর্তা মোঃ ইসমাইল হোসেন এর মাধম্যে ১০ মিনিটের আলোচনা সভায় শেষ করা স্বাক্ষরতা দিবস।

এদিবসের তাৎপয, কি কারেন এদিবস,কেন এদিবস পালন করে   থাকে সরকার এসকল বিষয় নিয়ে বিস্তর আলোচনা না করে নামমাত্র দিবসটি পালন করায় সমালোচনার ঝড় উঠেছে।

এদিকে এদিবস পালনের লক্ষে বিভিন্ন স্কুল থেকে ছোট ছোট বাচ্ছাদের এনে রৌদ্রে দীঘক্ষন  দাঁড় করিয়ে রেখে ছবি তোলার ফ্যাশন ছিল মুল বিষয়।

সাস এনজিওর এধরনের কমসুচী পালনের ক্ষেত্রে সরকারের ভাবমুর্তি নষ্ট হওয়ায় এমপি এস এম জগলুল হায়দার নিজেই ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন

প্রেসক্লাবের সামনে বাচ্ছাদের এভাবে রৌদ্রে দাঁড় করিয়ে ১টাকা দামের একটি করে চকলেট দিয়ে বিদায় করায় শ্যামনগরের প্রেসক্লাবের সভাপতি আকবর কবীর বলেন, ছোট ছোট বা্চছারা খুবই কষ্ট পেয়েছে।

তিনি বলেন, বিষয়টি তাৎক্ষনিক ভাবে কতৃপক্ষের দৃষ্টিতে দেয়া হয়েেছে। এদিকে সাস এনজিওর শ্যামনগরের সম্নয়কারী আসাদুজ্জামান বলেন, অনুষ্ঠানের দায়িত্ব সম্পুন প্রসাশনের।  অন্যদিকে প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ ইসমাইল হোসেন বলেন, সাস
এনজিও’র এ অনুষ্ঠানের সার্বিক দায়িত্ব ছিল। সরকারী কোন বরাদ্ধ না থাকায় বাচ্ছাদের নাস্তার ব্যবস্থা করা সম্ভব হয়নি ।