‘শেখ হাসিনা বিপন্ন বিশ্বের মানবতার বাতিঘর’


345 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
‘শেখ হাসিনা বিপন্ন বিশ্বের মানবতার বাতিঘর’
সেপ্টেম্বর ২৯, ২০১৭ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::
রাজধানী ঢাকাসহ সারাদেশে নানা কর্মসূচির মাধ্যমে প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনার ৭১তম জন্মদিন উদযাপিত হয়েছে।

ঢাকায় জন্মদিনের এক অনুষ্ঠানে অংশ নিয়ে দলের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের বলেছেন, রোহিঙ্গা ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রমাণ করেছেন যে, তিনি বিপন্ন বিশ্বের মানবতার বাতিঘর।

লাখ লাখ দুর্গত মানুষ দেশে আসার পরিপ্রেক্ষিতে তার জন্মদিনে কেক কেটে উৎসব না করতে দলীয় নেতা-কর্মীদের প্রতি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার দেওয়া নির্দেশের উল্লেখ করে ওবায়দুল কাদের বলেন, উৎসবের অর্থ রোহিঙ্গাদের সাহায্য করতে পাঠানো হবে।

বৃহস্পতিবার সকালে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে শেখ হাসিনার জন্মদিনে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগ আয়োজিত রক্তদান ও মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে বিশ্বশান্তির অগ্রদূত হিসেবে অভিহিত করে আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক বলেন, মিয়ানমারের নির্যাতিত রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে শেখ হাসিনা নিজেকে ‘লাইট হাউস অব ওয়ার্ল্ড হিউম্যানিটি’ প্রমাণ করেছেন। তিনি বলেন, ‘একজন রাজনীতিক একটি নির্বাচনের পর আরেকটি নির্বাচন নিয়ে চিন্তা করেন। আর একজন রাষ্ট্রনায়ক পরবর্তী প্রজন্ম নিয়ে চিন্তা করেন। শেখ হাসিনা পরবর্তী প্রজন্ম নিয়ে চিন্তা করেন।’ তিনি বলেন, রোহিঙ্গা ইস্যুতে প্রধানমন্ত্রী জাতিসংঘে যে পাঁচ দফা প্রস্তাব দিয়েছেন তা সারাবিশ্বে প্রশংসা পেয়েছে।

অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ যুবলীগের সভাপতি ইসমাইল চৌধুরী সম্রাট। বক্তব্য রাখেন যুবলীগের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ওমর ফারুক চৌধুরী, সাধারণ সম্পাদক হারুনুর রশিদ প্রমুখ।

১৯৪৭ সালের ২৮ সেপ্টেম্বর জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জ্যেষ্ঠ কন্যা শেখ হাসিনা গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়ায় জন্মগ্রহণ করেন। জাতিসংঘের সাধারণ পরিষদের ৭২তম অধিবেশনে যোগ দিতে তিনি এখন যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থান করছেন।

জন্মদিন উপলক্ষে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগ বিকেলে রাজধানীর ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউট মিলনায়তনে আলোচনা সভার আয়োজন করে। মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবুল হাসনাতের সভাপতিত্বে কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী সেখানে বক্তব্য রাখেন। সভায় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরও উপস্থিত ছিলেন।

এর আগে সকালে ধানমণ্ডিতে বঙ্গবন্ধু ভবনের সামনে এক অনুষ্ঠানে বেগম মতিয়া চৌধুরী এবং ওবায়দুল কাদের উপস্থিত থেকে ভ্যান ও রিকশা বিতরণ করেন। আওয়ামী লীগের ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ উপকমিটি বন্যা ও দারিদ্র্যপীড়িত মানুষের মধ্যে রিকশা ও ভ্যান বিতরণের আয়োজন করে। এ সময় উপস্থিত ছিলেন আওয়ামী লীগ নেতা আবদুর রহমান এমপি, আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, সুজিত নন্দী রায়, মহানগর নেতা শাহে আলম মুরাদ প্রমুখ।

বঙ্গবন্ধু মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়: এ ছাড়াও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে এক আলোচনা সভার আয়োজন করা হয়। উপাচার্য অধ্যাপক ডা. কামরুল হাসান খানের সভাপতিত্বে সভায় স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম, কথাসাহিত্যিক সেলিনা হোসেন, বিএমএ সভাপতি ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দীন, স্বাধীনতা চিকিৎসক পরিষদ সভাপতি অধ্যাপক ইকবাল আর্সলান, মহাসচিব অধ্যাপক এম এ আজিজ বক্তৃতা করেন।

আজিমপুর এতিমখানা: রাজধানীর আজিমপুর এতিমখানায় বস্ত্র ও খাবার বিতরণ কর্মসূচির উদ্বোধনকালে স্বাস্থ্যমন্ত্রী মোহাম্মদ নাসিম বলেন, রোহিঙ্গাদের প্রতি মানবতা দেখিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আশ্রয় দিয়ে খাদ্য ও চিকিৎসার ব্যবস্থা করেছেন। এখন তিনি বিশ্ব জনমত সৃষ্টি করে রোহিঙ্গা সমস্যার সমাধান করবেন। এরই মধ্যে তার আহ্বানে বিশ্ব নেতৃবৃন্দ সোচ্চার হয়েছেন মিয়ানমার সরকারের বর্বরতার বিরুদ্ধে। আওয়ামী লীগের ত্রাণ উপকমিটি এই কর্মসূচির আয়োজন করে।

ইসলামিক ফাউন্ডেশন: বৃহস্পতিবার বাদ জোহর ইসলামিক ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ সময় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের এমপি, সভাপতিমণ্ডলীর সদস্য ড. আবদুর রাজ্জাক এমপি, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুবউল আলম হানিফ এমপি, জাহাঙ্গীর কবির নানক এমপি, আবদুর রহমান এমপি, ধর্ম সচিব মো. আনিছুর রহমান, ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মহাপরিচালক সামীম মোহাম্মদ আফজাল প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন। মিলাদ ও মোনাজাত পরিচালনা করেন বায়তুল মোকাররম জাতীয় মসজিদের সিনিয়র পেশ ইমাম মাওলানা মুহাম্মদ মিজানুর রহমান ও পেশ ইমাম মাওলানা এহসানুল হক।

উপাসনালয়: দুপুরে ঢাকেশ্বরী মন্দিরে এবং বিভিন্ন প্যাগোডা, গির্জাসহ ধর্মীয় উপাসনালয়ে বিশেষ প্রার্থনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। গতকাল দেশের সরকারি হাসপাতালসহ সব ধরনের স্বাস্থ্যকেন্দ্রে দুই ঘণ্টার বেশি স্বাস্থ্যসেবা দেওয়া হয়।

বঙ্গবন্ধু গবেষণা পরিষদ: প্রধানমন্ত্রীর জন্মদিন উপলক্ষে বঙ্গবন্ধু গবেষণা পরিষদের উদ্যোগে ‘জননেত্রী শেখ হাসিনা ও মানবতা’ শীর্ষক আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। রাজধানীর ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি ভবনের স্বাধীনতা হলে আয়োজিত এ সভায় বক্তব্য রাখেন মুক্তিযুদ্ধবিষয়ক মন্ত্রী আ ক ম মোজাম্মেল হক, অ্যাডভোকেট নাভানা আক্তার এমপি, কৃষি ব্যাংকের চেয়ারম্যান মোহাম্মদ ইসমাইল, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব চিকিৎসা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রো-ভিসি অধ্যাপক ড. শহীদুল্লাহ শিকদার ও জাতীয় প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ফরিদা ইয়াসমিন। সভায় সভাপতিত্বে করেন সংগঠনের সভাপতি মো. গনি মিয়া বাবুল।

মুক্তিযোদ্ধা সমন্বয় কমিটি: মুক্তিযোদ্ধা ও মুক্তিযোদ্ধা সন্তানদের পক্ষ থেকে রাজধানীতে কোরআনখানি আলোচনা, মিলাদ ও দোয়ার আয়োজন করা হয়। জাতীয় প্রেস ক্লাবের কনফারেন্স রুমে আয়োজিত এ অনুষ্ঠানে জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা সমন্বয় কমিটির নির্বাহী চেয়ারম্যান মোহাম্মদ হারুন অর রশিদের সভাপতিত্বে অংশ নেন মহিলা ও শিশুবিষয়ক মন্ত্রী মেহের আফরোজ চুমকি, মেজর জেনারেল (অব.) মোহাম্মদ আলী সিকদার পিএসপি, খন্দকার গোলাম মাওলা, জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা সমন্বয় কমিটির মহাসচিব শফিকুল বাহার মজুমদার টিপু প্রমুখ।

ছাত্রলীগ: বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক জানান, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার জন্মদিনে আনন্দ শোভাযাত্রা ও দোয়া মাহফিল করেছে ছাত্রলীগ। দেশব্যাপী এ কর্মসূচি পালন করে সংগঠনটি। বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মধুর ক্যান্টিন থেকে আনন্দ শোভাযাত্রা বের করে কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগ। অংশ নেন ছাত্রলীগ সভাপতি সাইফুর রহমান সোহাগ, সাধারণ সম্পাদক এস এম জাকির হোসাইনসহ কেন্দ্রীয় ও ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্রলীগের নেতা-কর্মীরা।

বিজিএমইএ সভাপতির অভিনন্দন: জন্মদিন উপলক্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন বিজিএমইএ সভাপতি মো. সিদ্দিকুর রহমান। এক বার্তায় তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর দূরদর্শী, সুদক্ষ, সৃজনশীল ও সাহসী নেতৃত্বের ফলে দেশ আজ উন্নয়নের বিস্ময়কর রোলমডেল। তার নেতৃত্বে বাংলাদেশ ২০২১ সালের মধ্যে একটি মধ্যম আয়ের দেশ ও ২০৪১ সালের মধ্যে একটি উন্নত দেশে পরিণত হওয়ার পথে ধাবমান। সমগ্র জাতি আজ এই অনন্য অর্জনে গর্বিত। তিনি প্রধানমন্ত্রীর দ্রুত আরোগ্য ও সুস্বাস্থ্য কামনা করেন।