শ্যামনগরের কৈখালীতে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুর রহিম


465 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
শ্যামনগরের কৈখালীতে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুর রহিম
অক্টোবর ৩১, ২০১৬ ফটো গ্যালারি শ্যামনগর
Print Friendly, PDF & Email

এস কে সিরাজ,শ্যামনগর :
সুন্দরবন সংলগ্ন উপজেলার সীমান্তবর্তী শ্যামনগর কৈখালী ইউপির ৯ ওয়ার্ডে গত ২২ মার্চ নির্বাচন হলেও জাল ভোট প্রয়োগের কারনে ওই ইউনিয়নের ১ ,২ ও ৪ নং ওয়ার্ডের নির্বাচন স্থগিত করা হয়।
এক পর্য্যায় আজ সোমবার নির্বাচন কমিশনারের আদেশ অনুযায়ী স্থগিতকৃত ওই তিন কেন্দ্রে সকাল হতে বিকাল ৪টা পর্যন্ত বিরতিহীন ভাবে গ্রহন চলে। ব্যাপক স্বচ্ছ ও শান্তিপুর্ন ভাবে সারাদিন ভোট গ্রহন চলে।
প্রায় রাত ৭টার বিভিন্ন কেন্দ্র ফলাফল আসতে শুরু করে।১নং কেন্দ্র পুর্ব কৈখালী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে মোঃ আব্দুর রহিম ঘোড়া প্রতীক ১৩৭৬ ভোট,জি এম রেজাউল করিম নৌকা প্রতীক ৮২৩ ভোট ও জি এম শাহ আলম ধানের শীর্ষ প্রতীকে ৬২৩ ভোট পান, ২নং কেন্দ্র জয়াখালী মহাজেরিন সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়ে ঘোড়া প্রতীক- ১৯০৬, নৌকা প্রতীক- ৪৬০ ভোট ও ধানের শীর্ষ প্রতীক ১৩৮ ভোট পান,৪নং কেন্দ্র শৈলখালী আলিম মাদ্রাসায় ঘোড়া প্রতীক-৪৭০ ভোট, নৌকা প্রতীক- ৫০৬ ভোট,ও ধানের শীর্ষ প্রতীক- ১৬০ ভোট পান। এ তিন কেন্দ্রে  মোট ঘোড়া প্রতীক – ৩৭১২, নৌকা প্রতীক – ১৭৮৯ও ধানের শীর্ষ প্রতীক ৯২১ ভোট পান।
এদিকে পুর্বের ভোট সহ ৯ ওয়ার্ড মোট ভোট পেয়েছেন ঘোড়া প্রতীক- ৫৮৯১,নৌকা প্রতীক ৪১৯৮ ও ধানের শীর্ষ প্রতীক ৩৬২৭ ভোট পান। ১৬৯৩ ভোট বেশী পেয়ে শ্যামনগরের ৫নং কৈখালী ইউপির বে- সরকারী ভাবে  স্বতন্ত্র প্রার্থী ( ঘাড়া প্রতীক) মোঃ আব্দুর রহিম চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।
ব্যাপক উৎসাহ উদ্দীপনার মধ্য দিয়ে প্রসাশনের ব্যাপক তৎপরতায় সুষ্ঠ ও নিরপেক্ষ ভাবে ভোট গ্রহন অনুষ্টিত হয়।প্রত্যেক কেন্দ্রে একজন করে নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটের নেতৃত্বে পুলিশ, বিজিবি ও র্যাব দ্বায়িত্ব পালন করেন।এধরনের সুন্দর ও সুষ্ট নির্বাচন হতে পারেনা বলে ভোটাররা মনে করেন।শান্তিপুর্ন ভোট দিতে পারায় সাধারন ভোটাররা মহা খুশি। তারা প্রসাশন কে আন্তরিক ভাবে ধন্যবাদ প্রদান করেন।
এদিকে ১নং ওয়ার্ডে ইউপি মেম্বর হিসাবে মোঃমতিয়ার রহমান,৪নং ওয়ার্ডে মোঃ আজিজ সরদার,ও ২নং ওয়ার্ডে মোঃ মোহম্মদ আলী কাগুচী নির্বাচিত হয়েছেন। মহিলা মেম্বর হিসাবে নির্বাচিত হয়েছেন,রাশিদা খাতুন। ####