শ্যামনগরে গৃহবধু মুন্নির লাশ কবর থেকে উত্তোলন


2202 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
শ্যামনগরে গৃহবধু মুন্নির লাশ কবর থেকে উত্তোলন
আগস্ট ৯, ২০১৬ ফটো গ্যালারি শ্যামনগর
Print Friendly, PDF & Email

এস কে সিরাজ,শ্যামনগর :
অবশেষে শ্যামনগরের নিহত আলোচিত গৃহবধু মুন্নির লাশ উত্তোলন করা হলো কবর থেকে।আজ মঙ্গলবার দুপুরে আদালতের নির্দেশ মোতাবেক শ্যামনগর উপজেলা সহকারী কমিশনার ও নির্বাহী ম্যজিষ্ট্রেট মোঃ আহসান উল্লাহ শরিফীরর নেতৃত্বে এ লাশ উত্তোলন করা হয়েছে।পরে শ্যামনগর থানার মাধ্যমে মুন্নির লাশ ময়না তদন্তের লক্ষে সাতক্ষীরায় পাঠানো হয়েছে বলে জানা গেছে। শ্যামনগরের মুন্সিগন্জ গ্যারেজ এলাকায় শ্বশুরের আপত্তিকর প্রস্তাবে রাজী না হওয়ায় পুত্রবধু মুন্নিকে পরিকল্পিত ভাবে হত্যা করে আত্বহত্যা বলে চালানোর চেষ্টা ব্যার্থ হতে চলেছে।

স্থানীয় ইউপি মেম্বর আকবর আলী পাড় সকলকে মোটা টাকায় ম্যানেজ করে তড়িগড়ি নিহত মুন্নির লাশ কবরস্থ করে। বিষয় টি স্থানীয় লোকজনের মধ্যে জানা জানি হলে, ওই এলাকার হাজার হাজার মানুষ রাস্তায় এসে মুন্নি হত্যার বিচার,ঘাতকদের আটক সহ লাশ উত্তোলনের দাবীতে বিক্ষোভ,সমাবেশ,মানববন্ধন,কালো ব্যাচ ধারন ও সাংবাদিক সম্মেলন অব্যহত রাখে।

এক পর্য্যায় নিহত মুন্নির পিতা সিদ্দীকুল ইসলামের আবেদনের পরিপ্রেক্ষিতে সাতক্ষীরা অতিরিক্ত চীপজুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালত ৪/৮/১৬ তারিখ মুন্নির লাশ উত্তোলন পুর্বক ময়না তদন্তের জন্য অফিসার ইনচার্জ শ্যামনগর কে নির্দেশ দেন।

এদিকে মুন্নি হত্যার বিচারের দাবী করে সাতক্ষীরার  উপকুলীয় শ্যামনগরের সুন্দরবনের  পাদদেশ  মুন্সিগঞ্জের রাস্তায় রাস্তায়  ওই এলাকার চার গ্রামের  মুন্সিগঞ্জ,আবাদচন্ডিপুর , গ্যারেজ ও হরিনগরের  হাজার হাজার মানুষ রাস্তায় বিক্ষোভে ফেটে পড়ে। এসময় তারা বিক্ষোভ,মানববন্ধন,কালো ব্যাচ ধারন ও সমাবেশের মাধ্যমে গৃহ বধু মুন্নি হত্যার ঘাতকদের আটক পুর্বক নিহত মুন্নির কবর থেকে লাশ উত্তোলনের দাবী করে আসে।

এসময় সমাবেশ থেকে বক্তারা বলেন ,২৮/ ৭/ ১৬ তারিখ সকালে পরিকল্পিত ভাবে স্বামী শিমুল, শ্বশুর ফরিদউদ্দীন গাজী ও শ্বাশুড়ী মাহফুজা বেগম  গৃহবধু মুন্নিকে হত্যা করে ওড়না দিয়ে পেচিয়ে ঘরের আড়ায় ঝুলিয়ে আত্বহত্যা করে বলে প্রচার চালায়। পরে কৌশলে প্রসাশন কে ম্যানেজ করে ময়নাতদন্ত ছাড়াই তড়িগড়ি করে মুন্নির লাশ কবরস্থ করা হয়।

এদিকে নিজ কন্যার হত্যার বিচার দাবী করে নিহত রাবেয়া আক্তার মুন্নির মা, নাসিমা খাতুন বাদী হয়ে মুন্নির স্বামী মোঃ শিমুল গাজী, শ্বশুর জনাব আলীর পুত্র মোঃ ফরিদউদ্দীন, শাশুড়ী ফরিদউদ্দীনের স্ত্রী মাহফুজা বেগম কে বিবাদী করে  সাতক্ষীরা আদালতে  ৩০২/ ২০১/৩৪ নং ধারায় মামলা দায়ের করেন। গত বুধবার দুপুর দেড়টার দিকে নিজ কন্যা মুন্নি হত্যার বিচার দাবী করে ও লাশ উত্তোলনের দাবীতে মুন্নির পিতা সিদ্দীকুল ইসলাম এক সংবাদ সম্মেলন করেন।

এদিকে  স্থানীয় মেম্বর আকবর আলী পাড় ঘটনাটি ভিন্নখ্যাতে প্রবাহিত করার লক্ষে মুন্নির শ্বশুর ফরিদউদ্দীন গাজীর কাছ থেকে মোটা টাকা নিয়ে মাঠে নেমে পড়েছেন বলে বিক্ষুব্দ জনতা সমাবেশ করে তা অভিযোগ।