শ্যামনগরে ঘূর্নিঝড় বুলবুলে ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে সুপেয় পানি সরবরাহ


168 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
শ্যামনগরে ঘূর্নিঝড় বুলবুলে ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে সুপেয় পানি সরবরাহ
নভেম্বর ২২, ২০১৯ ফটো গ্যালারি শ্যামনগর
Print Friendly, PDF & Email

মোঃ আশিকুর রহমান ::

সুশীলনের উদ্যোগে বুলবুলের ক্ষতিগ্রস্থদের মাঝে সুপেয় পানির বিতরন করা হয়েছে। ঘূর্নিঝড় “বুলবুলে” মারাত্মকভাবে ক্ষতিগ্রস্থ বাংলাদেশের দক্ষিনাঞ্চলের শ্যামনগর উপজেলার সবকয়টি ইউনিয়ন। এখানের অধিকাংশ মিষ্টি পানির পুকুরগুলো ঘূর্নিঝড় বুলবুলের কারনে নষ্ট হয়ে যাওয়ার কারনে তীব্র পানির সংকট দেখা দেয়।

চারিদিকে অথৈ পানি কিন্তুু সুপেয় পানি নাই। তাদের নিরাপদ পানির সাময়িক সমস্যা হ্রাস করার জন্য সুশীলনের সহযোগী প্রতিষ্ঠান “অক্সফ্যাম” পানি সরবারাহ করতে থাকে। তারা উপজেলার গাবুরা, কৈখালী, রমজাননগর, বুড়িগোয়লিনী ও মুন্সিগঞ্জ ইউনিয়নের মোট ১০টি গ্রামের ৭৪৮ টি পরিবারের মোট ৪১৮০জনের মাঝে পানি সরবারাহ নিশ্চিত করে ও বর্তমানে সরবারাহ চলমান রাখার জন্য নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

সুশীলনের সহযোগী সংগঠন অক্সফ্যামের প্রতিনিধি সনজন কুমার বড়ুয়ার উপস্থিতিতে তারা ভ্রাম্যমান ডিস্যালাইনেশন প্লান্ট (মোবাইল), পিক আপ,ইন্জিন ভ্যানের মাধ্যমে উপজেলার প্রত্যান্ত গ্রাম গুলোতে পানি সরবারাহ করে। এই বিষয়টি নিয়ে বুড়িগোয়লিনী ইউপি চেয়ারম্যান বলেন যে,বুলবলে ক্ষতিগ্রস্থ প্রত্যান্ত এলাকার মানুষের পানির সমস্যা সমাধান করার জন্য সুশীলনের উদ্যোগ প্রশংসনীয়, ভ্রাম্যমান ডিস্যালাইনেশন প্রান্ট(মোবাইল) টি খুবই কার্যকরী একটি প্রযুক্তি, এটা নিয়ে যে কোন জায়গায় লবন পানি মিষ্টি করা যায়।

তিনি পানি সরবারাহ চলমান রাখার জন্য সুশীলন ও সহযোগী সংগঠন অক্সফ্যাম অনুরোধ জানান। সুশীলন রি কল ২০২১ প্রকল্পের প্রকল্প সমন্বয়কারী মনিরা সুলতানা বলেন যে, ঘূর্নিঝড় বুলবলে ক্ষতিগ্রস্থ লোকজনদের পানি সমস্যা সমাধান করার জন্য তারা নিরলস ভাবে কাজ করে যাচ্ছে ও তাদের সেবা চলমান থাকবে।