শ্যামনগরে জোরপূর্বক সম্পত্তি দখলের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন


552 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
শ্যামনগরে জোরপূর্বক সম্পত্তি দখলের অভিযোগে সংবাদ সম্মেলন
আগস্ট ২০, ২০১৮ ফটো গ্যালারি শ্যামনগর
Print Friendly, PDF & Email

 

নিজস্ব প্রতিনিধি :

শ্যামনগর উপজেলা সদরের বাদঘাটা গ্রামে পৈত্রিক সম্পত্তি দখলকারীদের হাত থেকে ফিরে পেতে সোমবার ২০ আগষ্ট সকাল ১১টায় শ‍্যামনগর উপজেলা প্রেসক্লাবে সংবাদ সম্মেলন করেন জোবেদা সোহরাব মডেল মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক আঃ বারী।

তিনি লিখিত বক্তব্যে বলেন, আমার পৈত্রিক ভিটা নিজ অর্থায়নে পাকা প্রাচীর দিয়ে ২ টা পাকা রুম করে বসবাস করছি। আমার ভাই আঃ সবুর তরফদার জামাতের সক্রিয় নেতা ও রোকন। আমার প্রতি হিংসার বশবর্তী হয়ে আমাকে ক্ষতি করার উদ্দেশ্যে এলাকার চিহ্নিত বিএনপি নেতা,পরসম্পদ লোভী, সন্ত্রাস সৃষ্টিকারী বাদঘাটা গ্রামের নূর আলী গাজীর পুত্র আঃ সালাম, আবুল কালাম, নূর ইসলাম,আঃ সাত্তার, সাতক্ষীরা সদরের সুলতানপুর গ্রামের আঃ জোব্বারের পুত্র মোঃ জাবের হোসেন ও তাদের সহযোগীদের দিয়ে আমাকে ক্ষতি করার লক্ষ্যে আমার ঘরবাড়ি ভাংচুর করে। এঘটনায় আমি সাতক্ষীরা-৪ আসনের সংসদ সদস্য এস.এম জগলুল হায়দার বরাবর অভিযোগ করি। এমপি মহোদয় সাতক্ষীরার ২ জন সিনিয়র উকিলের নিকট দুই পক্ষের কাগজ পত্র দেখে মতামত প্রকাশের জন্য সুপারিশ করেন। বিজ্ঞ এ্যাডভোকেট আলাউদ্দিন সাহেব ও উকিল বারের সভাপতি এ্যাডভোকেট আবুল হোসেন পৃথক পৃথক ভাবে কাগজপত্র দেখে আমার প্রতি রায় প্রদান করেন। গত ১৩ জুন ভোর ৫ টায় বিবাদীগণ আমার ঘরবাড়ি দখল করার চেষ্টায় ভাংচুর করতে থাকে। আমার বৃদ্ধা মা ও বাবা বাধা দেওয়ায় তাদেরকে মারপিট করে হুমকি দিয়ে চলে যায়।এঘটনায় আমি পুলিশ সুপার বরাবর অভিযোগ করি। গত ১০ আগস্ট আনুমানিক বেলা ১ টার সময় তারা দলবদ্ধ হয়ে আবারও আমার ভরবাড়ি ভাংচুর করে। আমার স্ত্রী ও কন্যা তাদেরকে বাধা দিতে গেলে তাদেরকে ও মারপিট করে এবং আমার স্ত্রীর কাছে থাকা গহনা পাতি ছিনতাই করে। এসময়ে আমার ছোট দুই ভাই আঃ রাজ্জাক ও আঃ হাই বাধা দেওয়ায় দখলকারীরা ধারালো অস্ত্র দিয়ে তাদের ঘাড়ে ও মাথায় কোপ মারে।অদ্যবধি তারা শ্যামনগর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। আমি ও আমার স্ত্রী নিরিহ ও শান্ত প্রকৃতির শিক্ষক, আমার কোন প্রকার গোলমাল পছন্দ করিনা। বর্তমানে দখলকারীরা আমার ঘরবাড়ি দখল করে আছে।
এঘটনায় আমি বাদী হয়ে দখলকারীদের বিরুদ্ধে শ্যামনগর থানায় এজেহার দাখিল করি।ঘটনা তদন্ত পূর্বক থানায় মামলা হয়।মামলা নং ১০,তারিখ ১০ /০৮/২০১৮।ধারা -১৪৩,৪৪৭,৪৪৮,৩২৩,৩২৪,৩২৫,৩২৬,৩০৭,৩৭৯,৩৮০,৪২৭,৩৫৪,৫০৬।এসকল ঘটনা থেকে পরিত্রাণ পেতে এবং সুষ্ঠ বিচার পেতে প্রশাসনের সুদৃষ্টি কামনা করছি।