শ্যামনগরে দায়ের কোপে বৃদ্ধার কান বিচ্ছিন্ন


120 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
শ্যামনগরে দায়ের কোপে বৃদ্ধার কান বিচ্ছিন্ন
এপ্রিল ২৪, ২০২০ ফটো গ্যালারি শ্যামনগর
Print Friendly, PDF & Email

শ্যামনগর (সাতক্ষীরা) সংবাদদাতা ॥
তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে হাতে থাকা ধারালো দায়ের কোপে চাচীর কান শরীর থেকে বিচ্ছিন্ন করে দিয়েছে জহিদুল ইসলাম নামের এক যুবক। শুক্রবার সকাল সাড়ে আটটার দিকে ঘটনাটি ঘটেছে শ্যামনগর উপজেলার রমজাননগর ইউনিয়নের সোনাখালী গ্রামে। ঘটনার পরপরই আহত নিঃসন্তান বৃদ্ধা লাইলি বেগম (৫২)কে শ্যামনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।

আহত বৃদ্ধার স্বামী মোবারক আলী জানায় ভাইপো জহিদুল বৃহস্পতিবার রাতে বন্ধুদের নিয়ে তাদের একটি মুরগী ধরে রান্না করে খায়। শুক্রবার সকালে তার স্ত্রী লাইলি ঐ বিষয়ে কথা বলতে গেলে জহিদুল ঈশ^রীপুর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সভাপতি চেয়ারম্যান শোকর আলীর ভাগ্নে সোহরাব হোসেনকে ডেকে আনে। এসময় বাদানুবাদের এক পর্যায়ে সাবেক ইউপি সদস্য সোহরাব লাঠি দিয়ে বৃদ্ধা লাইলিকে পেটাতে শুরু করে।

মোবারক আলী আরও জানায় মারধরের সময় তার স্ত্রী চিৎকার করতে থাকায় জহিদুল চুলের মুঠি ধরে ডান হাতে থাকা দা দিয়ে এক কোপে শরীর থেকে কান বিচ্ছিন্ন করে ফেলে। এসময় প্রতিবেশীরা এগিয়ে এসে তার স্ত্রীকে উদ্ধার করে শ্যামনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করে। তিনি নিজে বাদি হয়ে ঘটনার সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে মামলা করবেন বলেও নিশ্চিত করেন ।

স্থানীয় ইউপি সদস্য পতিত পবন মন্ডল জানান, দায়ের আঘাতে কান বিচ্ছিন্ন হওয়ার পর তিনি লাইলি বেগমকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার ব্যবস্থা করেন।

সোহরাব হোসেনের মুটোফোনে একাধিকবার চেষ্টা সত্ত্বেও তিনি ফোন ধরেননি।

শ্যামনগর অফিসার ইনচার্জ মোঃ নাজমুল হুদা বলেন, ঘটনাটি মৌখিকভাবে জেনেছেন। ঘটনার শিকার বৃদ্ধার পরিবারকে লিখিত অভিযোগ দিতে বলা হয়েছে।#