শ্যামনগরে প্রকাশ্যে সুন্দরবনের কর্তন নিষিদ্ধ কাঠ বিক্রী হচ্ছে !


414 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
শ্যামনগরে প্রকাশ্যে সুন্দরবনের কর্তন নিষিদ্ধ কাঠ বিক্রী হচ্ছে !
এপ্রিল ৩০, ২০১৭ ফটো গ্যালারি শ্যামনগর
Print Friendly, PDF & Email

এস কে সিরাজ ::
সুন্দরবন সংলগ্ন খোলপেটুয়া নদীর তীরে গড়ে ওঠা শ্যামনগর উপজেলার আটুলিয়া ইউনিয়নের নওয়াবেকী বাজার। এ বাজারটিতে যাবতীয় মালামাল নদী পথে এসে থাকে।কারন বাজার টি নদীর তীরে অবস্থিত হওয়ায়।সুন্দরবন সংলগ্ন খোলপেটুয়া নদী দিয়ে রাতে দিনে প্রায় সময় সুন্দরবনের কর্তন নিষিদ্ধ কাঠ এ বাজারে এসে থাকে। এখানে প্রকাশ্যে গরান, গেওয়া ও সুন্দরী কাঠ বহাল তবিয়্যাতে বিক্রী করা হয়ে থাকে।সরকারী ভাবে প্রায় ৫/৬ বছর ধরে সুন্দরবনে গরান কাঠ কাটার কোন পারমিট নেই।শুধু গরান নয়,কোন কাঠ কাটার অনুমতি নেই। অথচ সাতক্ষীরা রেন্জের মাত্র কয়েক কিলোমিটার দুরে নওয়াবেকী বাজারে প্রকাশ্যে গরান সহ অন্যান্য কাঠ বিক্রী হচ্ছে। সম্প্রতি উপজেলা মাসিক সভায় সুন্দরবন থেকে বনবিভাগের সহযোগিতায় কাঠ পাচার হচ্ছে, এমন অভিযোগ এনে গাবুরা ইউপি চেয়ারম্যান আলী আযম টিটো বক্তব্য দিয়েছিলেন।যাহা উপজেলা রেজুলেশনে লিপিবদ্ধ আছে। কিন্ত তারপর ও প্রকাশ্যে কাঠ পাচারতো দুরের কথা, প্রকাশ্যে জনসম্মুখে বিক্রি হচ্ছে।এরপরও কর্তৃৃপক্ষের কেন নজরে আসছে না যান চায়,সচেতন মহল। সরকার সুন্দরবন কে আরো সুন্দর করার লক্ষে সকল প্রকার কাঠ কর্তন নিষিদ্ধ ঘোষনা করেছে। তারপরও যদি এভাবে বনের কাঠ বিক্রী হয় তাহলে কাঠ পাচার কারীদের আদৌ থামানো যাবে না। এ বিষয় সাতক্ষীরা রেন্জের সহকারী বন সংরক্ষক মাোঃ মাকছুদুর রহমান বলেন,এটি আমার জানা নেই,তবে তদন্ত করে দ্রুত ব্যবস্থা নেয়া হবে।