শ্যামনগরে মাদক পাচারের সময় পুলিশের তাড়া খেয়ে প্রাইভেটকার খাদে


603 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
শ্যামনগরে মাদক পাচারের সময় পুলিশের তাড়া খেয়ে প্রাইভেটকার খাদে
জুলাই ১৮, ২০১৬ ফটো গ্যালারি শ্যামনগর
Print Friendly, PDF & Email

এস কে সিরাজ,শ্যামনগর :
আবারও মাদক আলোচনার শীর্ষে আসলো শ্যামনগর ভুরুলিয়া ইউনিয়নের কাটিবার হল গ্রামের বিশ্বজিৎ বাবু । এলাকার শতখানিক মানুষ মাদকবাহী খালে পড়ে থাকা প্রাইভেটকারের পাশে দাড়িয়ে নির্দিধায় বলতে থাকে বিশ্বজিতের মাদক সম্পর্কিত বিষয়ে  নানা তথ্যের কথা। সরেজমিনে তথ্য সংগ্রহ কালে এসব খবর জানা যায়।

এদিকে শ্যামনগর থানা পুলিশ গোপন সংবাদের ভিত্তিতে শ্যামনগর উপজেলার ভুরুলিয়া ইউনিয়নের ইসলামিক মিশন এলাকায় যেয়ে একটি প্রাইভেটকারকে লক্ষ করে থামাতে বললে প্রাইভেটকারটি দ্রুত পালানোর চেষ্টা করে। এক পর্য্যায় পুলিশের তাড়া খেয়ে ভুরুলিয়ার চালতেঘাটার খালের মধ্যে পড়ে প্রাইভেটকারটি। এসময় পুলিশ -ঢাকা মেট্টো-খ-১১-৪৪৯৬ নং প্রাইভেটকারটি আটক করে। এসময় আটককৃত প্রাইভেটকার থেকে ১০ বোতল ফেনসিডিল ও উদ্ধার করে পুলিশ ।

পুলিশ ও স্থানীয় একাধিক সূত্রে জানাযায়, খানপুর কাটিবার হল গ্রামের দীর্ঘদিনের মাদক ব্যবসায়ী সুধীর দাসের পুত্র বিশ্বজিৎ দাস এর কাছ থেকে ১০ বোতল ফেন্সিডিল সহ নিজ ব্যবহৃত প্রাইভেট কার নিয়ে সাইফুল নামের এক যুবক কালিগন্জ  যাওয়ায় সময় গোপন সংবাদের ভিত্তিত্বে বিকাল ৫টায় শ্যামনগর থানার এস আই আসাদ এ এস আই ইমরান সঙ্গীয় ফোর্স নিয়ে অভিযান চালায়।  এ সময়  পুলিশের অবস্থান বুঝতে পেরে প্রাইভেটকারটি ফেলে পালিয়ে যায় সাইফুল কাজী। এদিকে প্রাইভেটকারটি,  ১০ বোতল ফেন্সিডিল সহ চালতেঘাটা বাজার রোডে পার্শ্বে খালে পড়ে  যায়। এ সময় পুলিশ ১০ বোতল ফেন্সিডিল সহ কার টি জব্দ করে থানায় নিয়ে আসে। তবে এস আই আসাদের সাথে হলে তিনি বলেন, পৃথক অভিযানে ফেন্সিডিল আর প্রাইভেট উদ্ধার করা হয়েছে। প্রাইভেটে কোন লোক না পাওয়া যাওয়ায় পরিতক্ত অবস্থায় উদ্ধার দেখানো হয়েছে। তবে সাইফুল কাজীর নাম্বারে যোগাযোগ করা সম্ভব না হওয়ায় তার বক্তব্য নেয়া যায়নি। এ ঘটনায় শ্যামনগর থানায় মাদক আইনে মামলা হয়েছে।