শ্যামনগর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জামায়াত নেতা আব্দুল বারী অপসারিত


656 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
শ্যামনগর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জামায়াত নেতা আব্দুল বারী অপসারিত
অক্টোবর ৫, ২০১৫ ফটো গ্যালারি শ্যামনগর
Print Friendly, PDF & Email

বিশেষ প্রতিনিধি :
সাতক্ষীরার শ্যামনগর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান জামায়াত নেতা মওলানা আবদুল বারীকে তার পদ থেকে অপসারন করা  হয়েছে। মওলানা আব্দুল বারী জামায়াতের কেন্দ্রীয় শুরা সদস্য ও শ্যামনগর উপজেলার সাবেক আমির।

২০১৪ সালের সেপ্টেম্বর থেকে জানুয়ারি ২০১৫ পর্যন্ত পর পর পাঁচটি মাসিক সভায় অনুপস্থিত থাকার কারণে তাকে অপসারন করে ওই পদ শুন্য ঘোষনা করে  এই উপজেলার উপনির্বাচনের জন্য নির্বাচন কমিশনকে অনুরোধ জানানো হয়েছে । গত ২৩ সেপ্টেম্বর    স্থানীয় সরকার বিভাগের একটি পত্রে এ কথা উল্লেখ করা হয়েছে।

স্থানীয় সরকার মন্ত্রনালয়ের সিনিয়র সহকারি সচিব ড. জুলিয়া মঈন স্বাক্ষরিত পত্রে বলা হয়, যেহেতু পর পর পাঁচটি মাসিক সভায় চেয়ারম্যান মওলানা আবদুল বারী অননুমোদিতভাবে অনুপস্থিত ছিলেন বলে  প্রমানিত হয়েছে এবং কারণ দর্শানোর নোটিশের জবাবে তিনি তা স্বীকার করেছেন সেহেতু উপজেলা পরিষদের ১৯৯৮ এর ১৩/২ ধারা অনুযায়ী তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয় এবং ব্যক্তিগত শুনানির জন্য তাকে নোটীশ প্রেরন ও জারি করা হলেও  তিনি হাজির হননি  বিধায় তাকে স্বীয় পদ থেকে অপসারিত করা হলো । একই সাথে উক্ত পদ শুন্য ঘোষনা করে শ্যামনগর উপজেলা পরিষদ  উপ নির্বাচনের আয়োজন করার জন্য নির্বাচন কমিশনকে সুপারিশ করা  গেল।

উল্লেখ্য, জামায়াত নেতা মওলানা আবদুল বারী ১৯৮৯ সালে এবং  ২০০৯ এর উপজেলা নির্বাচনে  পর পর দুইবার শ্যামনগর উপজেলা  চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন।  এরপর ২০১৪ সালের ২৭ ফেব্রুয়ারি অনুষ্ঠিত নির্বাচনে তিনি তৃতীয়বারের মতো উপজেলা চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন। ২০১২ সালের ১৬ নভেম্বর তিনি এক নারী কেলেংকারীর মামলায় গ্রেফতার হন।  এছাড়া  ২০১৪ সালের ১৫ আগস্ট জাতীয় শোক দিবসে অংশ করা থেকে বিরত থাকা এবং এ সম্পর্কে অশোভন মন্তব্য করায় জনগন তার অফিসে তালা ঝুলিয়ে দেয় এবং অফিস ভাংচুর করে। এর পর থেকে তিনি আর পরিষদে আসেন নি বলে জানা গেছে।