শ্যামনগর সংবাদ ॥ দুই ইউনিয়নের মধ্যে সংঘর্ষে আহত- ১৫


744 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
শ্যামনগর সংবাদ ॥ দুই ইউনিয়নের মধ্যে সংঘর্ষে আহত- ১৫
জুন ২২, ২০১৬ ফটো গ্যালারি শ্যামনগর
Print Friendly, PDF & Email

শ্যামনগর প্রতিনিধি :
শ্যামনগরে স্বশস্ত্র সন্ত্রাসী হামলায় ১৫-১৬ জন মারাতœক আহত হয়ে শ্যামগর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল বুধবার সকাল ১১টায় চৌদ্দরশি ব্রীজ সংলগ্ন পাতাখালী এলাকায়। রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত মামলার প্রস্তুতি চলছিল। পদ্মপুকুর ইউপি চেয়ারম্যান ও আ’লীগ নেতা এ্যাড. আতাউর রহমান জানান, চৌদ্দরশি ব্রীজ সংলগ্ন ১২ নং গাবুরা পাড়ে একটি মাছের সেট চলমান আছে। ১১নং পদ্মপুকুর ইউনিয়নের মানুষের দাবীর প্রেক্ষিতে ওই ব্রীজ সংলগ্ন ১১নং পদ্মপুকুর ইউনিয়নে পাতাখালীতে একটি নুতন মাছের সেট তৈরী হচ্ছিল।

এ সংবাদ পেয়ে ১২নং গাবুরা ইউপি চেয়ারম্যান আলী আজম টিটু ৪০-৫০ জন লোক নিয়ে পদ্মপুকুর ইউনিয়নের নতুন মাছের সেট তৈরীতে বাধা দেয়। এসময় পদ্মপুকুর ইউপি চেয়ারম্যার এর পিএ আমিনুর রহমান ও সাজিদ বিল্লাহ প্রতিবাদ করিলে তাদের ধরে গাবুরা ইউনিয়ন পরিষদে নিয়ে যায়। এ খবর পেয়ে পদ্মপুকুর ইউপির শতাধিক মানুষ ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়। এ সময় গাবুরা ইউপি চেয়ারম্যান তার নিজস্ব বাহিনী নিয়ে পুনরায় ঘটনাস্থলে এসে পদ্মপুকুর বাসীর উপর হামলা চালায়। এতে আহত হয় ছোট চন্ডিপুর গ্রামের ওজেদ তরফদারের ছেলে আজহারুল ইসলাম (২৪), পাতাখালী গ্রামের ছফেদ মোল্লার ছেলে রবিউল ইসলাম (২৬) একই গ্রামের আব্দুল হামিদ মোড়লের ছেলে ইমাম হোসেন (২৫), রিয়াজ (২০), ইউপি সদস্য আমান উল্লাহ (৪৫), আমজাদ হোসেনের ছেলে বাবলু (৩৬), গড়কুমারপুর গ্রামের মোকছেদ আলী ছেলে আমিনুর রহমান (৩৫) ও পাতাখালী গ্রামের মৃত দাউদ আলীর ছেলে সাজ্জিদ (৩০) সহ ১৫ জন।

পদ্মপুকুর ইউপি চেয়ারম্যান আরও জানান, সন্ত্রাসী হামলার সময়ে আমি বিষয়টি শ্যামনগর ইউএনও শ্যামনগর থানাকে অবহিত করেছি। তবে থানার ওসি পুলিশ পাঠানো হয়েছে বলে আমার সাথে প্রতারণা করেন। এ বিষয়ে গাবুরা ইউপি চেয়ারম্যান আলী আজম টিটু জানান চৌদ্দরশি ব্রীজের পাশে গাছ কাটাকে কেন্দ্র করে আমার লোকজন ২জনকে ধরে আনে। আমি তাদের ইউনিয়ন পরিষদে নিয়ে এসে মুচলেকা নিয়ে ছেড়ে দিয়েছি। এরপরও আতাউর চেয়ারম্যানের লোকজন আমার ইউনিয়নের কয়েকটি দোকান ভাংচুর করে। এসময় আমার লোকজন গিয়ে তাদের লোকজনের উপর হামলা চালায়। এ ঘটনায় শ্যামনগর থানার ওসি সাথে যোগাযোগ করার চেষ্টা করেও মোবাইলটি রিসিপ না করায় যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

###

শ্যমনগরে পাষন্ড স্বামী কর্তৃক স্ত্রীর হাত পা ভেঙ্গে দিযেছে

শ্যামনগর প্রতিনিধি  :
শ্যমনগরে পাষন্ড স্বামী কর্তৃক স্ত্রীকে পিটিয়ে হাত পা ভেঙ্গে দিয়েছে। ঘটনাটি ঘটেছে মঙ্গলবার রাতে উপজেলার যাদবপুর স্বামীর বাড়িতে। আহত স্ত্রী আছমা খাতুন (২৫) শ্যামনগর হাসপাতালে চিকিৎসাধীন। এঘটনায় রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছিল। আহত আছমা খাতুন জানায় ৯ বছর পূর্বে যাদবপুর গ্রামের আইয়ুব আলীর ছেলে জামিনুরের সাথে তার বিয়ে হয়। বিবাহিত জীবনে তাদের একটি ছেলে ও একটি মেয়ে।

Hos

 

গত দুই বছর পূর্বে থেকে বিভিন্ন সময়ে যৌতুকের দাবিতে কারনে অকারনে তাকে মারপিট করে। গত মঙ্গবার রাতে একই দাবিতে তাকে গরের বাইরে বের করে দেয়। এসময়ে সে ঘরে প্রবেশ করার চেষ্টা করলে লাঠি দ্বারা তার স্বামী মাধায় আঘাত করে। এসময় বাম হাত দ্বারা ঠেকাতে গেলে তার হাত ভেঙ্গে যায়। এছাড়া লাঠি দিয়ে তার পায়ে আঘাত করে আছমা খাতুনের পা ভেঙ্গে যায়। খবর পেয়ে আছমা খাতুনের বাবার বাড়ী থেকে লোকজন এসে তাকে শ্যামনগর হাসপাতালে ভর্তি করে। এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত থানায় মামলার প্রস্তুতি চলছিল।