সংঘাত নয়, নির্বাচন চাই : সিইসি


317 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সংঘাত নয়, নির্বাচন চাই : সিইসি
নভেম্বর ২৬, ২০১৮ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

অনলাইন ডেস্ক ::
প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কে এম নুরুল হুদা বলেছেন, আমরা চাই একটি নির্বাচন। আমরা চাই না সেই নির্বাচনকে কেন্দ্র করে কোনো সংঘাত হোক এবং সেখানে কোনোরকম রক্তপাত হোক অথবা প্রাণহানি হোক।

সোমবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনের অডিটোরিয়ামে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে দায়িত্বপ্রাপ্ত নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের তিনদিনব্যাপী ব্রিফিংয়ের শেষ দিনের কার্যক্রম উদ্বোধনকালে সিইসি এসব কথা বলেন। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন উপলক্ষে তিন দিনে তিন ব্যাচে ৬৯১ জন নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের ব্রিফিং দিচ্ছে নির্বাচন কমিশন।

অনুষ্ঠানে ম্যাজিস্ট্রেটদের উদ্দেশে সিইসি বলেন, নির্বাচনের দিন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। ওইদিন অত্যন্ত সতর্কতার সাথে ম্যাজিস্ট্রেটদের দায়িত্ব পালন করতে হবে। অনেক সময় বিব্রত ও বিভ্রান্তিকর অবস্থায় পড়তে হয়। আপনাদের (ম্যাজিস্ট্রেট) বিচলিত করতে অনেকে উস্কানিমূলক কথাবার্তা বলতে পারে। যাকে বলা যায় ‘মিসগাইডিং’। এ ক্ষেত্রে আপনারা অভিজ্ঞতা, দক্ষতা, ক্ষিপ্রতা, ম্যাজিস্ট্রেসি মানসিকতা দিয়ে অবস্থা বুঝে দায়িত্ব পালন করবেন। এবারের নির্বাচন কোনোভাবেই যেন প্রশ্নবিদ্ধ না হয়, সে জন্য আচরণবিধি অনুযায়ী দৃঢ়ভাবে দায়িত্ব পালন করে যেতে হবে। নির্বাচনের পূর্বে ও পরে আপনাদের আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সাথে থাকতে হবে এবং তাদের পরিচালনা করতে হবে। আচরণবিধি প্রয়োগ করতে গিয়ে এমন কিছু করবেন না যেন একটা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণহীন হয়ে পড়ে। কখনও আইনকানুনের অবস্থা থেকে বিচ্যুত হবেন না।

সিইসি বলেন, এই ওরিয়েনটেশনের মাধ্যমে আপনাদের অবস্থান আমরা জানলাম। আমাদের অবস্থানও আপনারা জানলেন। আমাদের অবস্থান হলো আমরা সুষ্ঠু, নিরপেক্ষ, অবাধ একটা নির্বাচন অনুষ্ঠান করতে হবে। অবাধ মানে—ভোটার ভোটকেন্দ্রে যাবে, পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিয়ে নিরাপদে বাড়িতে যাবে এবং বাড়িতে গিয়ে নিরাপদে বসবাস করবেন। আর চারদিকের পরিবেশ নিরাপদ রাখার দায়িত্বে আপনারা থাকবেন।

রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বদের ওপর আস্থা রাখার আহ্বান জানিয়ে তিনি বলেন, দেশের রাজনৈতিক নেতাদের সঙ্গে আপনাদের কাজ। যারা দেশের শাসনভার গ্রহণ করবেন, যারা সংসদ সদস্য নির্বাচিত হবেন, যারা মন্ত্রী, স্পিকার, দেশ পরিচালনা করবেন। নির্বাচনে যারা অংশ নেবেন তারা প্রত্যেকে সম্মানীয় ব্যক্তি। আমি জানি রাজনৈতিক ব্যক্তিত্বরা আপনাদের কখনও বিভ্রান্তকর পরিস্থিতির মধ্যে ফেলবেন না। তাদের ওপর আস্থা রাখবেন ও তাদের কথা শুনতে হবে।

নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটদের নিয়ে তিন দিনব্যাপী ব্রিফিংয়ের শেষ দিন সোমবার রংপুর, রাজশাহী ও ‍খুলনা বিভাগের এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেটদের ব্রিফ করে নির্বাচন কমিশন। এই ব্রিফিংয়ে অন্যদের মধ্যে নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার, কবিতা খানম ও শাহাদাত হোসেন চৌধুরী এবং নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ ও ইটিআই এর মহাপরিচালক মোস্তফা ফারুক বক্তব্য দেন।