সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রীর নিকট নাগরিকদের আহবান ; জনগণের দু:খ লাঘবে বিভাগীয় পর্য়ায়ে হাইকোর্টের সার্কিট বেঞ্চের চালু করতে হবে


365 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সংবাদ সম্মেলনে প্রধানমন্ত্রীর নিকট নাগরিকদের আহবান ; জনগণের দু:খ লাঘবে বিভাগীয় পর্য়ায়ে হাইকোর্টের সার্কিট বেঞ্চের চালু করতে হবে
সেপ্টেম্বর ৪, ২০১৫ খুলনা বিভাগ ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

ওয়াহেদ-উজ-জামান, খুলনা :
মানুষের দু:খ লাঘবে ষোল কোটি এই দেশকে গতিশীল করতে প্রশাসনের যেমন বিকেন্দ্রীকরণ দরকার, তেমনি বিচার ব্যবস্থাকেও সাধারণ মানুষের দোড়গোড়ায় পৌছে দেওয়ার দরকার। সাধারণ মানুষ যেন কোনভাবেই অর্থের সংকটে বিচার থেকে বঞ্চিত না হয় সেদিকটি সরকারকে লক্ষ্যে রাখতে হবে। বিভাগীয় শহরে হাইকোর্টের সার্কিট বেঞ্চ চালু করা এখন সময়ের দাবী। সাধারণ একটা রিভিশন কিম্বা জামিনের মামলায় প্রতিকার পেতে বাংলাদেশের বিভিন্ন অঞ্চল থেকে ঢাকায় গিয়ে সাধারণ মানুষের পক্ষে আইনের সুবিধা নেয়া অত্যন্ত কষ্টকর, সময় সাপেক্ষ এবং অতিরিক্ত ব্যয়বহুল । যে কারণে অনেক সময়ই সাধারণ মানুষ বিচারের সুফল পাওয়া থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। এভাবে বললেন বাংলাদেশ নাগরিক অধিকার আন্দোলন ও জনউদ্যোগ,খুলনার সংবাদ সম্মেলনে বক্তারা।
শুক্রবার বেলা ১১ টায় কনসেন্স মিলনায়তনে বাংলাদেশ নাগরিক অধিকার আন্দোলন ও জনউদ্যোগ, খুলনার আয়োজনে ‘বিভাগীয় পর্যায়ে হাইকোর্টের সার্কিট বেঞ্চ চালুর দাবিতে’ সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বক্তারা বলেন, হাইকোর্টের এমন অনেক বিচার্য বিষয় আছে যেমন ছোট খাটো রিভিশন, জামিন বিভাগীয় পর্যায় সার্কিট বেঞ্চের এখতিয়ার ভুক্ত করে প্রতিকার দেয়া সম্ভব। এতে করে ঢাকায় মামলার চাপ যেমন কমবে, সাধারণ মানুষও সহজে বিচার পাবে।
বক্তারা বলেন, বাংলাদেশ সংবিধানের অনুচ্ছেদ ১০০তে বলা হয়েছে, মাননীয় প্রধান বিচারপতি মহামান্য রাষ্ট্রপতির অনুমোদন লইয়া বাংলাদেশের যেকোন স্থানে যেকোন সময় হাইকোর্টের সার্কিট বেঞ্চ বসানোর এখতিয়ার রাখেন । এক সময় দেশের কয়েকটি অঞ্চলে হাইকোর্টের স্থায়ী বেঞ্চ চালুও ছিল, যা পরবর্তীতে তুলে দেয়া হয়েছে । বিচার ব্যবস্থাকে সাধারণ মানুষের কাছে পৌঁছে দিতে প্রয়োজনে সংবিধান সংশোধন করে বিভাগীয় শহরগুলোতে পুনরায় হাইকোর্টের স্থায়ী বেঞ্চ চালুর বিষয়টি বিবেচনার জন্য সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করছি । সংবাদ সম্মেলনে লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন বাংলাদেশ সংবিধান প্রণয়ণ কমিটির অন্যতম সদস্য ও সাবেক সংসদ সদস্য এ্যাড: এনায়েত আলী। বাংলাদেশ নাগরিক অধিকার আন্দোলন ও জনউদ্যোগ,খুলনার আহবায়ক এ্যাড: কুদরত-ই-খুদার ও জনউদ্যোগ, খুলনার সদস্য সচিব সাংবাদিক মহেন্দ্র নাথ সেনের পরিচালনায় অন্যান্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন খুলনা জেলা আইনজীবী সমিতির সাবেক সভাপতি এস আর ফারুক, বাংলাদেশ মানবাধিকার বাস্তবায়ন সংস্থার এ্যাড: মোমিনুল ইসলাম, নারী নেত্রী এ্যাড: তসলিমা খাতুন ছন্দা, ব্লাষ্টের সমন্বয়কারী এ্যাড: আশোক কুমার সাহা, কনসেন্সের নির্বাহী পরিচালক সেলিম বুলবুল, খুলনা সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক মাহবুবুল আলম সোহাগ, খানজাহান আলী ব্লাড ফাউন্ডেশনের চেয়ারমান এ্যাড. মামুনুর রশীদ, খুলনা পোল্ট্রি ফিস ফিড শিল্প মালিক সমিতির মহাসচিব এস এম সোহরাব হোসেন, সাংবাদিক রনোজিৎ কুমার রনো, অধ্যাপিকা রমা রহমান, নাগরিক অধিকার আন্দোলনের মো: সাইদুর রহমান পিন্টু , নির্বাহী পরিচালক ওয়েসডা ডা: মারুফুল হক, প্রশিকার বাকের আহমেদ প্রমুখ।