সদর ইউএনও’র হস্তক্ষেপে বন্ধ হলো এসএসসি পরীক্ষার্থীর বাল্য বিবাহ


464 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সদর ইউএনও’র হস্তক্ষেপে বন্ধ হলো এসএসসি পরীক্ষার্থীর বাল্য বিবাহ
মার্চ ১৮, ২০১৭ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

আব্দুর রহমান ::
সাতক্ষীরা সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ নূর হোসেন (সজল)’র  হস্তক্ষেপে বাল্য বিবাহ থেকে রক্ষা পেলো কুশরালী মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের ২০১৭ সালের এসএসসি পরীক্ষার্থী ছাত্রী। শুক্রবার সদর উপজেলার কুশখালী  গ্রামে এ স্কুল ছাত্রীর বিয়ের আয়োজন করা হয়েছে এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসারের নেতৃত্বে ইউনিয়ন পরিষদ ও স্থানীয়দের সহযোগিতায় এ বাল্য বিবাহ রোধ করা সম্ভব হয়েছে। সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ নূর হোসেন (সজল) এসএসসি পরীক্ষার্থী এই শিক্ষার্থীকে ১৮ বছর উন্নীত না হওয়া পর্যন্ত বিয়ের কোন পরিকল্পনা আয়োজন করিবেন না মর্মে মেয়ের বাবা ও মাতাকে অঙ্গীকারনামা নেন এবং মেয়েকে স্থানীয় ইউপি সদস্য ইয়াছিন কবিরের জিম্মায় দেন। এব্যপারে সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোহাম্মদ নূর হোসেন (সজল) বলেন, ‘বাল্য বিবাহ একটি সামাজিক ব্যাধি। বাল্য বিবাহ বন্ধে সামাজিক প্রতিরোধ গড়ে তুলতে হবে। আমরা চাই না সদর উপজেলায় আর কোন বাল্য বিবাহ হোক। তিনি আরো বলেন, আমরা খবর পেয়ে মেয়েটির বাল্য বিয়ের চেষ্টা বন্ধ করেছি। এখন দেখার বিষয় মেয়েটির শিক্ষা জীবন রক্ষা পায় কি না। আমরা সেই চেষ্টাই করছি। আমরা এটাও চেষ্টা করছি তাকে যেন অন্যত্র নিয়ে ১৮ বছর না হওয়ার আগে গোপনে বিয়ে দেয়া না হয়। তাকে বাল্যবিয়ের ঝুকিতে থাকা মেয়ে হিসেবে চিহ্নিত করা হয়েছে। আসুন আমরা আমাদের মেয়ে শিশুদের শিক্ষা প্রাপ্তি নিশ্চিত করি। তাদের অপরিণত বয়সে বিয়ের দেয়ার চেষ্টা না করি। শিক্ষার মাধ্যমে আমরা যেন তাদের জীবন গড়তে সহায়তা করতে পারি।