সহোদরের বিরুদ্ধে সম্পত্তি দখলের অভিযোগ করলেন অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ সদস্য


304 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সহোদরের বিরুদ্ধে সম্পত্তি দখলের অভিযোগ করলেন অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ সদস্য
মে ৯, ২০১৬ আশাশুনি ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

স্টাফ রিপোর্টার :
সম্পত্তি দখলের প্রতিবাদে সহোদরের বিরুদ্ধে অভিযোগ জানালেন সাবেক এক পুলিশ সদস্য। পৈত্রিক সম্পত্তি জবর দখলের অভিযোগে সহোদর ভাইয়ের শাস্তির দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করেন আরেক ভাই।
সোমবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে আশাশুনি উপজেলার খালিয়া গ্রামের অবসরপ্রাপ্ত পুলিশ সদস্য ফজলুল হক এ সংবাদ সম্মেলন করেন।
লিখিত বক্তব্যে ফজলুল হক বলেন, তিনি দীর্ঘদিন বাংলাদেশ পুলিশে কর্মরত ছিলেন। ২০১৫ সালে তিনি অবসর নেন। চাকুরীকালিন সময়ে পৈত্রিক সম্পত্তি থেকে আমার অংশের সম্পত্তি আমার ভাই নজরুল ইসলাম দেখভাল করত। কিন্তু বাড়ি ফিরে ভাইয়ের কাছে সম্পত্তি ফেরত চাইলে সে ভিটে বাড়ী থেকে সাড়ে ৪ বিঘা জমি আমাকে দেন। কিন্তু বিলের জমির অংশের  কোন ভাগ দিচ্ছেনা।
তিনি আরও বলেন, খালিয়া জামে মসজিদের দক্ষিণ পাশে পৈত্রিক সম্পত্তিতে ২০১৫ সাল থেকে আমি একটি ঘের করে আসছি। অথচ ২০১৬ সালে আসার এলাকার কিছু চিহ্নিত সন্ত্রাসী দিয়ে আমার মৎস্য ঘেরের বাসা ভাংচুর করে ও ঘেরের মাছ লুট করে আমার ভাই। বিষয়টি স্থানীয় খাজরা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান শাহনেওয়াজ ডালিম এর কাছে অভিযোগ করলে তিনি মিমাংশা করে আমার সম্পত্তি ফেরত দিতে বলেন।
তারপরও আমার ভাই বিচার না মেনে আশাশুনি থানায় উল্টো আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ দায়ের করে। সেখানে পুলিশ আমার পক্ষে রায় দেন। তিনি জানান, আমার চারটি মেয়ে আছে। আমার ভাই নজরুলের ছেলে বায়জিদ হোসেন আমার মেয়েদেরকেও নানাভাবে উত্যক্ত করে। এমনকি এলাকার চিহ্নিত সন্ত্রাসীদের দিয়ে খুন জখমের হুমকিসহ ধর্ষনের হুমকি দিচ্ছে। এছাড়া নজরুল আমার পরিবারের নামে আরও মিথ্যা মামলা দেয়ার ষড়যন্ত্র করছে। আমি আমার পরিবার নিয়ে চরম নিরাপত্তা হীনতায় ভুগছি।
দীর্ঘদিন পুলিশের চাকরী করে এখন এভাবে হয়রানির শিকার হতে হবে ভাবিনী।
আমি যাতে আমার পৈত্রিক সম্পত্তি ফিরে পেতে পারি সে বিষয়ে সংশ্লিষ্ট পুলিশ সুপারের  হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন তিনি।