সাংবাদিক শওকত মাহমুদ গ্রেপ্তার


376 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাংবাদিক শওকত মাহমুদ গ্রেপ্তার
আগস্ট ১৮, ২০১৫ জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

ভেয়স অব সাতক্ষীরা ডটকম :
বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও সাংবাদিক নেতা শওকত মাহমুদকে আজ মঙ্গলবার গ্রেপ্তার করা হয়েছে। সকালে রাজধানীর পান্থপথ থেকে আটকের পর তাঁকে রাজধানীর যাত্রাবাড়ী থানায় গাড়ি পোড়ানোর তিন মামলায় গ্রেপ্তার দেখানো হয়।
জাতীয় প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি শওকত মাহমুদের ব্যক্তিগত কর্মকর্তা মোহাম্মদ আবদুল মোমিন  বলেন, আদর্শ ঢাকা আন্দোলনের একটি অনুষ্ঠানে অংশ নিতে সামারাই কনভেনশনে ঢোকার সময় পুলিশ তাঁকে বাধা দেয়। পরে সাদা পোশাকের পুলিশ ছাই রঙের একটি গাড়িতে (ঢাকা মেট্রো-চ-৫৩৪২০৬) তুলে তাঁকে নিয়ে যায়। শওকত মাহমুদকে পুলিশের গোয়েন্দা শাখার (ডিবি) কার্যালয়ে নেওয়া হয়েছে বলে তাঁর ধারণা। ওই গাড়ির পেছনে শওকত মাহমুদের ঘনিষ্ঠজনদের একটি গাড়িও ছিল।
বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়নের একাংশের সভাপতি শওকত মাহমুদের বিরুদ্ধে গাড়ি পোড়ানোসহ নাশকতার আটটি মামলা আছে বলে তাঁর ব্যক্তিগত কর্মকর্তা জানান।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক পুলিশের একটি দায়িত্বশীল সূত্র বলেন, যাত্রাবাড়ী থানায় করা গাড়ি পোড়ানোর তিন মামলায় আজ শওকত মাহমুদকে গ্রেপ্তার দেখানো হয়েছে।
শওকত মাহমুদ রাজধানীর পান্থপথে সামারাই কনভেনশনে আদর্শ ঢাকা আন্দোলনের যে সভায় যোগ দিতে যাচ্ছিলেন, পুলিশের বাধায় তা পণ্ড হয়ে গেছে।
সভার আয়োজক ও প্রত্যক্ষদর্শীরা বলেন, সিটি করপোরেশন নির্বাচনে অনিয়ম ও কারচুপির তথ্য উপস্থাপনের জন্য আজ বেলা ১১টায় এই সভা অনুষ্ঠিত হওয়ার কথা ছিল। এতে আদর্শ ঢাকা আন্দোলনের আহ্বায়ক অধ্যাপক এমাজউদ্দীন আহমদ, মনোনীত মেয়রপ্রার্থী ও বিশিষ্ট ব্যক্তিরা উপস্থিত থাকবেন বলে জানানো হয়। তবে অনুষ্ঠান শুরু হওয়ার আগেই পুলিশ ফটকটি আটকে দেয়।

কনভেনশনের ফটকে অধ্যাপক এমাজউদ্দীন আহমদ বলেন, ‘এই ঘটনা প্রধানমন্ত্রী ও মন্ত্রীরা যে গণতন্ত্রের কথা বলেন তার বিপরীত। তাই নিন্দাও জানাতে চাই না। শুধু বলতে চাই, তারা (সরকার) যেন নাগরিক অধিকারের ব্যাপারে সচেতন হয়।’

আদর্শ ঢাকা আন্দোলনের নেতা জ্যেষ্ঠ সাংবাদিক মাহফুজ উল্লাহ বলেন, ঘরোয়া অনুষ্ঠানের জন্য অনুমতির প্রয়োজন হয় না। তার পরও কলাবাগান থানাকে এই অনুষ্ঠানের ব্যাপারে লিখিতভাবে জানানো হয়েছে। সেটির কপিও তিনি দেখান। তিনি আরও বলেন, গোয়েন্দারাও অনুষ্ঠানের ব্যাপারে খবর নিয়েছিল। কিন্তু কোনো আপত্তি জানায়নি।

ফটকের সামনে দায়িত্ব পালন করা পুলিশের সহকারী উপপরিদর্শক (এএসআই) ইয়াকুব আলী বলেন, নিরাপত্তার স্বার্থে সকাল থেকে তিনি সেখানে দায়িত্ব পালন করছেন।

সূত্র-প্রথম আেলা অনলাইন।