সাগর থেকে আইএসের অবস্থানে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা রাশিয়ার


346 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাগর থেকে আইএসের অবস্থানে ক্ষেপণাস্ত্র হামলা রাশিয়ার
অক্টোবর ৯, ২০১৫ প্রবাস ভাবনা ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

ভয়েস অব সাতক্ষীরা ডটকম ডেস্ক  :
কাস্পিয়ান সাগর থেকে রুশ নৌবাহিনীর চারটি যুদ্ধজাহাজ থেকে সিরিয়ায় ইসলামিক স্টেট জঙ্গিগোষ্ঠীর অবস্থান লক্ষ্য করে ২৬টি ক্ষেপণাস্ত্র হামলা চালানো হয়েছে। বুধবার রাশিয়ার প্রতিরক্ষামন্ত্রী সের্গেই শোইগু এ কথা জানিয়েছেন। রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিনের সঙ্গে টেলিভিশনে সম্প্রচারিত এক বৈঠকে শোইগু বলেন, চারটি যুদ্ধজাহাজ থেকে ১১টি লক্ষ্যে ২৬টি ক্ষেপণাস্ত্র নিক্ষেপ করা হয় কোনো বেসামরিক ব্যক্তি বা স্থাপনা এতে ক্ষতিগ্রস্ত হয়নি বলে তিনি দাবি করেন। বুধবার রাতে সিরিয়া থেকে প্রায় ১৫০০ কিলোমিটার দূরে কাস্পিয়ান সাগরের রুশ নৌবহর থেকে ক্ষেপণাস্ত্রগুলো নিক্ষেপ করা হয়। রাশিয়া বলেছে, এ ক্ষেপণাস্ত্র হামলায় ইরান ও ইরাক সহযোগিতা করেছে। সিরিয়ায় রুশ হামলা শুরু হওয়ার পর এ পর্যন্ত ১১২টি লক্ষ্যে হামলা চালানো হয়েছে বলে জানান শোইগু। এর আগে রুশ জঙ্গিবিমানের ছত্রছায়ায় সিরিয়ার সরকারি বাহিনী বিদ্রোহীদের বিরুদ্ধে ব্যাপক স্থল হামলা পরিচালনা করে। বলা হচ্ছে, সিরিয়ার গৃহযুদ্ধে রুশ হস্তক্ষেপের পর এটি প্রেসিডেন্ট বাশার আল আসাদের মিত্র বাহিনীগুলোর প্রথম বড় ধরনের সমন্বিত হামলা। আলাদা এক বিবৃতিতে রুশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, আইএস ও অন্যান্য ‘সন্ত্রাসী গোষ্ঠীর’ বিরুদ্ধে লড়াই নিয়ে আলোচনার জন্য এবং ‘সিরিয়ায় রাজনৈতিক স্থিতিশীলতার ক্ষেত্র প্রস্তুতের জন্য’ দেশটির পশ্চিমা সমর্থিত বিদ্রোহীগোষ্ঠী ‘ফ্রি সিরিয়ান আর্মি’র সঙ্গে যোগাযোগ করতে চায় মস্কো।

রুশ বিমান হামলার বিষয়ে আলোচনায় বসছে ন্যাটো : সিরিয়া সংকটে রাশিয়ার সামরিক সম্পৃক্ততা বেড়ে যাওয়া নিয়ে আলোচনায় বসতে যাচ্ছে উত্তর আটলান্টিক নিরাপত্তা জোট ন্যাটো। গতকাল বেলজিয়ামের রাজধানী ব্রাসেলসে অনুষ্ঠিতব্য ন্যাটোর পররাষ্ট্রমন্ত্রীদের বৈঠকে রাশিয়ার বিমান হামলার বিষয়টি গুরুত্ব পাবে বলে জানিয়েছে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম। অভিযোগ সত্ত্বেও রাশিয়া বারবার তুরস্কের আকাশসীমা লঙ্ঘন করছে- সদস্য দেশ তুরস্কের এমন অভিযোগের পর এ আলোচনায় বসতে যাচ্ছে ন্যাটো। আলোচনায় ন্যাটোর সদস্য দেশগুলোর মন্ত্রীরা তুরস্কের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করতে পারেন বলে ধারণা করা হচ্ছে। বৈঠকে পশ্চিম ইউক্রেনে রাশিয়ার সম্পৃক্ততার বিষয়ে বাল্টিক দেশগুলোও উদ্বেগ প্রকাশ করতে পারে বলে ধারণা করা হচ্ছে। এছাড়া বাল্টিক দেশগুলোতে ব্রিটেন দীর্ঘমেয়াদে সেনা নিয়োগে প্রস্তুত বলে বৈঠকে যুক্তরাজ্যের প্রতিরক্ষা সচিব মাইকেল ফ্যালন ঘোষণা দিতে পারেন বলেও আশা করা হচ্ছে। বিবিসি।