সাতক্ষীরার আশাশুনিতে প্রতিমা ভাংচুরের প্রতিবাদে মানববন্ধন


515 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরার আশাশুনিতে প্রতিমা ভাংচুরের প্রতিবাদে মানববন্ধন
অক্টোবর ৯, ২০১৫ আশাশুনি ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

বেলাল হোসেন :
দেশের রাষ্ট্রীয় কাঠামো ধর্মনিরপেক্ষতার উপর প্রতিষ্ঠিত। অসাম্প্রদায়িক চেতনার মধ্য দিয়ে এ দেশের স্বাধীনতা এসেছিল। তাতে হিন্দু, মুসলিম, বৌদ্ধ খ্রীষ্টান সকলেই অংশ নিয়েছিল। অথচ সংখ্যালঘু হওয়ার অপরাধে তাদের জমি শত্রু সম্পত্তি হিসেবে গ্রহণ করেছে সরকার। সারা বিশ্বে এমন বিরল দৃষ্টান্ত খুঁজে পাওয়া যাবে না। রাষ্ট্র কাঠামোতে যেখানে সংখালঘুদের সমান অধিকার থেকে বঞ্চিত করার স্বীকৃতি দেওয়া হচ্ছে সেক্ষেত্রে মৌলবাদি বা সন্ত্রাসীরা হিন্দু সম্প্রদায়ের প্রতিমা ভাংচুর বা জমি জবরদখল করতে সূযোগ নেবে না কেন ?

গত ৬ অক্টোবর রাতে সাতক্ষীরার আশাশুনি উপজেলার প্রতাপনগর কর্মকরপাড়া সার্বজনীন দুর্গা মন্দিরে সদ্য নির্মিত প্রতিমা ভাঙচুরের প্রতিবাদে র বাংলাদেশ হিন্দু বৌদ্ধ খ্রীস্টান ঐক্য পরিষদের সাতক্ষীরা জেলা শাখা আয়োজিত মানববন্ধন ও প্রতিবাদ সমাবেশে বক্তারা এসব কথা বলেন। বক্তারা আরো বলেন, প্রতাপনগর জামায়ত অধ্যুষিত একটি ইউনিয়ন। দীর্ঘ ৩৫ বছর ধরে এখানে শান্তিপূর্ণভাবে পুজা পার্বন শেষ হলেও বর্তমান পরিস্থিতিতে প্রতিমা ভাঙচুরের বিষয়টি নিন্দনীয়। পবিত্র হ্জ্ব সম্পর্কে কটুক্তি সংক্রান্ত ফেসবুকে স্টাটাস লেখার অভিযোগে ‘লিডা’র এর নির্বাহী পরিচালক মোহন কুমার ম-লকে মামলার আগেই গ্রেফতার করা যায়। অথচ প্রতিমা ভাঙচুরের ঘটনায় তিন দিনেও কোন সন্ত্রাসী গ্রেফতার হয় না। অনতিবিলম্বে সন্ত্রীদের চিহ্নিত করে গ্রেফতার না করলে পুজার আগেই বৃহত্তর কর্মসূচি দেওয়া হবে।

শুক্রবার বিকেল চারটায় শহরের শহীদ আলাউদ্দিন চত্বরে মানববন্ধন কর্মসূচি চলাকালে জেলা হিন্দ-ু বৌদ্ধ- খ্রীষ্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি মন্ডলীর সদস্য হেনরী সরদারের সভাপতিত্বে বক্তব্য দেন জেলা হিন্দু বৌদ্ধ খ্রীষ্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি মন্ডলীর সদস্য গোষ্ট বিহারী মন্ডল, জয় মহাপ্রভু সেবক সংঘের সভাপতি বিশ্বানাথ ঘোষ, ঐক্য পরিষদের সাধারন সম্পাদক স্বপন কুমার শীল, প্রচার সম্পাদক বিকাশ কুমার দাস, সদর শাখার সম্পাদক নিত্যানন্দ আমীন, বাংলাদেশ ওয়ার্কার্স পার্টির সাতক্ষীরা জেলা শাখার সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য অ্যড. ফাহিমুল হক কিসলু, অধ্যক্ষ শিবপদ গাইন, সুকেশ চক্রবর্তী, রামপদ দাশ, সমীর বসু, প্রতাপনগর কর্মকারপাড়া সার্বজনীন দুর্গাপুজা উদযাপন কমিটির সভাপতি অমিত কুমার সোম, মানবাধিকার কর্মী মাধব চন্দ্র দত্ত, অপরেশ পাল, সাংবাদিক রঘুনাথ খাঁ, তপন কুমার শীল, বাসুদেব সিংহ, যুব সংগঠণের নেতা সুমন অধিকারি, রণজিৎ সরকার । এছাড়া উপস্থিত ছিলেন, অধ্যক্ষ নির্মল দাশ,  অমেরন্দ্র নাথ ঘোষ,  রঘুজিৎ গুহ, আনন্দ সরকার, কানাই লাল শাহা কানু প্রমুখ।