সাতক্ষীরার কলারোয়ায় ১৩ রোহিঙ্গা শরণার্থী উদ্ধার !


1496 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরার কলারোয়ায় ১৩ রোহিঙ্গা শরণার্থী উদ্ধার !
সেপ্টেম্বর ২২, ২০১৭ কলারোয়া ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

 

কে এম আনিছুর রহমান,কলারোয়া প্রতিনিধি ::
সাতক্ষীরার কলারোয়ায় মায়ানমারের রাখাইন রাজ্যের একই গ্রামের নারী-শিশুসহ ১৩ রোহিঙ্গা মুসলিম শরনার্থীকে উদ্ধার করেছে পুলিশ। শুক্রবার দুপুর একটার দিকে কলারোয়া উপজেলা বাসস্টান্ড এলাকা সংলগ্ন জিকেএমকে পাইলট হাইস্কুল মার্কেটের সামনে থেকে তাদেরকে উদ্ধার করা হয়।
উদ্ধাকৃতরা হলো- মায়ানমারের রাখাঈন রাজ্যের মুন্ডুহ জেলার নেমেরনাই থানার সিদ্দাপাড়া গ্রামের মৃত মন্ডল হোসেনের ছেলে নবী হোসেন (২৭),নবী হোসেনের স্ত্রী সালমা খাতুন (২১), সাথে তাদের শিশু কন্যা নুর হাবিবা (১৪ মাস) ও নুর হাইয়াত (৩০ মাস), আব্দুল আজিজের স্ত্রী দিলদার বেগম (২১),সাথে শিশু ছেলে আব্দুর রহমান (১১ মাস), মৃত নাজির হোসেনের ছেলে আব্দুল করিম (২৫), করিমের স্ত্রী আমেনা বেগম (২০) সাথে শিশু ছেলে মোহাম্মদ নূর হোসেন (১৮ মাস),মৃত ওসিকার রহমানের ছেলে সহিদুল ইসলাম (২৪), সহিদুলের স্ত্রী জিনু আক্তার(২০) সাথে তাদের শিশু কন্যা সাবেকুন নাহার (০৩), মৃত আজি রহমানের ছেলে জমির হোসেন (১৮)।
কলারোয়া থানার অফিসার ইনচার্জ বিপ্লব কুমার নাথ জানান, শুক্রবার ওই সময় তিনি মোবাইল ফোনের মাধ্যমে জানতে পারেন কয়েকজন রোহিঙ্গা মুসলিম শরনার্থী উপজেলা স্টান্ড সংলগ্ন ওই স্কুল মার্কেটের সামনে অবস্থান করছে। পরে থানার এস আই অমিত কুমারের নেতৃত্বে সঙ্গীয় পুলিশ সদস্যরা ওই স্থান থেকে তাদেরকে উদ্ধার করে থানায় নিয়ে আসে। এরপর জিজ্ঞাসাবাদে স্বীকার করে তারা মায়ানমার থেকে পালিয়ে এসেছে। তারা কক্সবাজারের উখিয়াতে রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরে যেতে চায়।
উদ্ধাকৃতদের কি করা হবে এক প্রশের জবাবে ওসি বলেন, পুলিশ স্কটের মাধ্যমে তাদেরকে কক্সবাজার পাঠিয়ে দেওয়া হবে।
পালিয়ে আসা উদ্ধার হওয়া রোহিঙ্গা মুসলিম সহিদুল ইসলাম জানান,তারা গত প্রায় একমাস আগে মায়ানমার সেনাবাহিনীদের অত্যাচারের হাত থেকে জীবনকে রক্ষা করার জন্য মা, বাবা, ভাই বোনদের ফেলে মায়ানমার সীমান্ত পার হয়ে বাংলাদেশে পালিয়ে এসেছে।