সাতক্ষীরার কলারোয়া থেকে আহলে হাদীস কেন্দ্রীয় নেতা উপাধ্যক্ষ ওবায়দুল্লাহ গয্নফর অপহরণ ঘটনায় মামলা দায়ের


467 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরার কলারোয়া থেকে আহলে হাদীস কেন্দ্রীয় নেতা উপাধ্যক্ষ ওবায়দুল্লাহ গয্নফর অপহরণ ঘটনায় মামলা দায়ের
অক্টোবর ৪, ২০১৫ কলারোয়া জাতীয় ফটো গ্যালারি
Print Friendly, PDF & Email

স্টাফ রিপোর্টার :
সাতক্ষীরার কলারোয়া থেকে অপহ্নত জমঈয়তে আহলে হাদীসের কেন্দ্রীয় নেতা উপাধ্যক্ষ (অব:) মাওলানা ওবায়দুল্লাহ জয্নফরের এখনও কোন সন্ধান মেলেনি। অপহরণের ঘটনায় কলারোয়া থানায় ঘটনার এক দিন পর শনিবার রাতে মামলা হয়েছে। ওবায়দুল্লাহ গয্নফরের মেয়ে প্রভাষক মাহমুদা আখতারী মুন্নি বাদী হয়ে ঘটনার দিন অর্থাৎ গত শুক্রবার বিকেলে কলারোয়া থানার একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন। ওই অভিযোগই অপহরণ মামলা হিসেবে রেকর্ড করা হয়েছে বলে জানাগেছে।

কলারোয়া থানার ওসি আবু সালেহ মো: মাসুদ করিম ভয়েস অব সাতক্ষীরা ডটকমকে জানান, শনিবার রাতে ওবায়দুল্লাহ গয্নফরের মেয়ের দায়ের করা অভিযোগটি অপহরণ মামলা হিসেবে রেকর্ড করা হয়েছে। যার মামলা নম্বর-৫। তিনি জানান, মামলাটি তদন্তের জন্য কলারোয়া থানার এসআই হিমেলের ওপর দায়িত্ব দেয়া হয়েছে। তবে রোববার বিকেল পর্যন্ত তার কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি। পুলিশ আসল রহস্য উদঘটনের জন্য মাঠে নেমেছে।

এদিকে, গত শুক্রবার সকাল সাড়ে ৯ টার দিকে সাতক্ষীরা-যশোর সড়কের কলারোয়া উপজেলার তুলসিডাঙ্গা এলাকা থেকে ওবায়দুল্লাহ গয্নফরকে অপহরণের পর তার পরিবারের সদস্যরা উদ্বেগ, উৎকণ্ঠার মধ্যে দিনাতিপাত করছে। তার মেয়ে শনিবার দুপুরে সাতক্ষীরা প্রেসক্লাবে এক সংবাদ সম্মেলন করে তার অপহ্নত পিতার উদ্ধারের ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রী , স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন। কিন্তু এখনও পর্যন্ত তার পিতার কোন সন্ধান তারা পায়নি। তিনি তার পিতার সন্ধানের জন্য সরকারের উচ্চ মহলের দৃষ্টি আকর্ষন করে বলেন, আমার পিতা মাওলানা ওবায়দুল্লাহ গয্নফর  কোন রাজনীতির সাথে জড়িত নন। তিনি অরাজনৈতিক সংগঠন জমঈয়তে আহলে হাদীসের সাতক্ষীরা জেলা শাখার সেক্রেটারী এবং কেন্দ্রীয় জমঈয়তে আহলে হাদীসের যুগ্ম-সম্পাদক।

সাতক্ষীরা জেলা জমঈয়তে আহলে হাদীসের সভাপতি মাওলানা রফিউদ্দিন আনছারী জানান, রোববার দুপুরে সাতক্ষীরা পুলিশ সুপার চৌধুরী মঞ্জুরুল কবীর ওবায়দুল্লাহ গয্নফরের পরিবার ও তার সংগঠনের জেলা নেতাদের সাথে কথা বলেছেন। তিনি অপহনরণ কাহিনী শুনেছেন।

প্রসঙ্গত, গত ২ অক্টোবর শুক্রবার সকাল সাড়ে ৮ টার দিকে তার পিতা ওবায়দুল্লাহ গয্নফর ও অবসরপ্রাপ্ত সেনা কর্মকর্তা খলিলুর রহমান মোটরসাইকেলযোগে বাঁগআচড়া বোডখানায় যাচ্ছিল। জমিয়তে আহলে হাদীসের একটি সাংগঠনিক সম্মেলনে যোগ দেয়ার জন্য তিনি বাড়ি থেকে রওনা হন। কলারোয়ার তুলশিডাঙ্গা এলাকায় পৌছানোর পর পিছন দিক থেকে পরপর ২টি মাইক্রোবাস এসে তার গতিরোধ করে। এ সময় তিনি মোটরসাইকেল থামালে সাদা পোশাকধারী কয়েকজন ব্যক্তি ওই মাইক্রোবাস থেকে বেরিয়ে এসে তার হাতে হ্যান্ডকাপ পরিয়ে  মাইক্রোবাসে উঠিয়ে নিয়ে দ্রুত যশোরের দিকে চলে যায়। এর পর থেকে তার কোন সন্ধান পাওয়া যায়নি।