সাতক্ষীরার কুশখালি সীমান্তে বিএসএফ’র গুলিতে গরু রাখাল নিহতের ঘটনা গুজব ! লাশ খুঁজে হয়রান পুলিশ ও বিজিবি


472 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরার কুশখালি সীমান্তে বিএসএফ’র গুলিতে গরু রাখাল নিহতের ঘটনা গুজব ! লাশ খুঁজে হয়রান পুলিশ ও বিজিবি
জুলাই ১১, ২০১৫ ফটো গ্যালারি সাতক্ষীরা সদর
Print Friendly, PDF & Email

স্টাফ রিপোর্টার :
সাতক্ষীরার কুশখালি সীমান্তের বিপরীতে ভারতের পাতড়াখোলায় বিএসএ্ফএর গুলি ও দায়ের কোপে এক  গরুর রাখাল নিহত হয়েছে এমন গুজব ছড়িয়েছে সীমান্তে জুড়ে। তবে ব্যাপক খোঁজাখুঁজি করেও তার লাশ উদ্ধার করা যায়নি রোববার বিকেল পর্যন্ত।
নিহত ব্যক্তির নাম মুকুল হোসেন(৩৫)। তিনি বাঁশদহা ইউনিয়নের হাওয়ালখালি গ্রামের মহতাব উদ্দিনের ছেলে। তার এক সঙ্গী একই গ্রামের আলি হোসেন এ খবর প্রচার করেই গ্রেফতার এড়াতে গা ঢাকা দিয়েছেন । পুলিশ ও বিজিবি মুকুলের লাশ খুঁজে বেড়াচ্ছে।
এদিকে অসমর্থিত একটি সূত্রে জানাগেছে, সাতক্ষীরা সীমান্ত দিয়ে ভারতীয় গরু আমদানি বর্তমানে বন্ধ করে দিয়েছে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রনালয়। এর পরও আসন্য ঈদকে সামনে রেখে শনিবার ভোরে কুশখালী সীমান্ত দিয়ে শতাধিক গরু নিয়ে আসে জনৈক এক গরু ব্যবসায়ি। ওই গরু আনতে গিয়েই বিএসএফ এর নির্যাতনে নিহত হয়েছে মুকুল হোসেন। মুকুলের লাশ এই মুহুত্বে প্রশাসনের কাছে দিলে গরু গুলো কোরিডোর না হয়ে নিলাম হতে পারে এই আশংকয় গরু ব্যবসায়ি ও গরু রাখালরা তার লাশ প্রশাসনের কাছে হস্তান্তর না করে লুকিয়ে রেখেছে।
সাতক্ষীরা সদর উপজেলার কুশখালি গ্রামের অধিবাসীরা জানান ‘গরু রাখাল আলী হোসেন তাদের জানিয়েছেন যে, মুকুল ও সে শনিবার ভোরে ভারত থেকে গরু নিয়ে বাংলাদেশে ফিরছিলেন।এসময় বিএসএফ এর দুবলি ক্যাম্প সদস্যরা তাদের ওপর গুলি ও হামলা করে। বিএসএফ এর গুলিতে মুকুল হোসেন ঘটনাস্থলে নিহত হন। পরে তার লাশ বাংলাদেশ সীমান্তের কাছে  কোনো এক অজ্ঞাত স্থানে ফেলে রাখা হয়’। এই খবর দিয়েই  আলী হোসেন গাঢাকা দেয়।
কুশখালি ইউপি চেয়ারম্যান আবু রায়হান বিশ্বাস জানান, খবর পাবার পর তিনিও চারদিকে খোঁজাখুঁজি করছেন। দুপুর ২ টা পর্যন্ত  লাশের কোন খোঁজ পাওয়া যায়নি বলে জানান তিনি।
বিজিবির কুশখালি বিওপির নায়েক সুবেদার বিল্লাল হোসেন জানান, খবরটি তিনিও শুনে তন্ন তন্ন করে খোঁজাখুঁজি করেছেন। কিন্তু এখনও এর সত্যতা নিশ্চিত করা যায়নি।
ঘটনাস্থল কুশখালি থেকে সাতক্ষীরা থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) এমদাদ শেখ জানান, তিনি নিজে ও বিজিবি সদস্যরাও একসাথে লাশ খুঁজে পাওয়ার চেষ্টা করেছেন। তিনি বলেন, বিষয়টি সত্য না গুজব  তাও নিশ্চিত করা যায়নি।
সাতক্ষীরা ৩৮ বিজিবির সহ অধিনায়ক মেজর মোজাম্মেল হক এই প্রতিনিধিকে বলেন, মুকুল হোসেন নিহত হওয়ার খবর আমিও শুনেছি। বিষয়টি খোঁখবর নেয়া হচ্ছে।