সাতক্ষীরার ঘোনায় এক বীর মুক্তিযোদ্ধাকে পিটিয়ে হত্যা


405 বার দেখা হয়েছে
Print Friendly, PDF & Email
সাতক্ষীরার ঘোনায় এক বীর মুক্তিযোদ্ধাকে পিটিয়ে হত্যা
ফেব্রুয়ারি ২৮, ২০১৭ Uncategorized
Print Friendly, PDF & Email

ইব্রাহিম খলিল ও রাহাত রাজা ::
পাওনা টাকা চাওয়াকে কেন্দ্র করে সাতক্ষীরা সদর উপজেলার ঘোনা গ্রামে মুক্তিযোদ্ধা আবুল কামাল আজাদ (৬৫) কে পিটিয়ে হত্যা করেছে দুর্বৃত্তরা। সোমবার রাতে মারাত্মাক আহত মুক্তিযোদ্ধাকে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে নেওয়া হলে রাত আড়াই টার দিকে তিনি মৃত্যু বরণ করেন। এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে পুলিশ চারজনকে গ্রেফতার করেছে।

সোমবার রাত ৯ টার দিকে সাতক্ষীরা সদর উপজেলার ঘোনা বাজারে এ ঘটনাটি ঘটে।

মুক্তিযোদ্ধা আবুল কালাম আজাদ সাতক্ষীরা সদর উপজেলার ঘোনা গ্রামের মৃত আব্দুল হামিদে ছেলে।

গ্রেফতারকৃতরা হলো, একই গ্রামের মোমিনুল ইসলাম, ওয়াদুদ, মুন্না হোসেন, ও মো. রনি।

মঙ্গলবার দুপুর ১২ টার দিকে লাশের ময়না তদন্ত শেষে নিহত আবুল কালামের পরিবারের কাছে লাশ হস্তান্তর করা হয়। পরে বিকেল ৪ টায় ঘোনা ফুটবল মাঠে জানাজার নামাজ শেষে রাষ্ট্রিয়  মর্যাদায় তার দাফন সম্পন্ন করা হয়েছে। জানাজার নামাজে সহযোদ্ধা মুক্তিযোদ্ধারা ছাড়াও সর্বস্তরের মানুষ অংশ নেয়।

মুক্তিযোদ্ধার ছেলে আক্তারুল ইসলাম জানান, তার পিতার ঘোনা বাজারে একটি রড সিমেন্টের দোকান আছে। স্থানীয় মোমিনুল তার পিতার দোকান থেকে প্রায় লক্ষাধিক টাকার মালামাল বাকি নেয়। সে টাকা দিতে নানা সময় টালবাহানা করতে থাকে। সোমবার রাত ৯ টার দিকে ঘোনা বাজারে তার পিতা মোমিনুলের কাছে পাওনা টাকা চায়। এতে মোমিনুল ক্ষিপ্ত হয়ে তার পিতাকে বেধম মারপিট করে আহত করে। মারাত্মক আহত অবস্থায় তাকে উদ্ধার করে সাতক্ষীরা সদর হাসপাতালে ভর্তি করা হলে রাত আড়াইটার দিকে তিনি মৃত্যু ররন করেন।

এ ঘটনায় নিহতের ছেলে আক্তারুল বাদী হয়ে সাত জনকে আসামী করে সাতক্ষীরা সদর থানায় একটি হত্যা মামলা দায়ের করলে পুলিশ চারজনকে গ্রেফতার করেছে।

সাতক্ষীরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা ওসি ফিরোজ হোসেন মোল্লা ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, একজন মুক্তিযোদ্ধাকে  পিটিয়ে এভাবে মেরে ফেলবে এটা মেনে নেওয়া যাবে না। ঘটনার সাথে যারা জড়িত তাদের চারজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।
সাতক্ষীরা জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডার মোশাররফ হোসেন মশু বলেন, নিহত আবুল কালাম আজাদ একজন মুক্তিযোদ্ধা। তাকে পিটিয়ে হত্যার ঘটনা খুবই দু:খজনক। তিনি হত্যাকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী করেন।
##